13yercelebration
ঢাকা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

শীঘ্রই চালু হচ্ছে ঠাকুরগাঁও -ঢাকা রেল যোগাযোগ

admin
September 8, 2015 6:46 pm
Link Copied!

বিশেষ প্রতিবেদক, ঠাকুরগাওঃ ঠাকুরগাঁও – ঢাকা রেল যোগাযোগের ডুয়েল গেজ রেল লাইন খুব শীঘ্রই চালু হচ্ছে।জনসংখ্যার অব্যাহত চাপ ও যান জট সমাধানের লক্ষ্যে চার লেনে উন্নীত করা হচ্ছে ঢাকা- ঠাকুরগাঁও রেল পথ।ঢাকা-ঠাকুরগাঁও সেকনে বর্তমান মিটারগেজ রেল লাইনের সমান্তরালে নতুন এ ডুয়েলগেজ রেল লাইন নির্মান কাজ ৭০ভাগ সম্পন্ন করা হয়েছে।

৯শ৮২কোটি টাকা ব্যয়ে রেল মন্ত্রণালয়ের আওতায় ২০১০সালের অক্টোবর মাসে ঠাকুরগাঁওয়ের মিটারগেজ রেলপথকে আধুনিকায়ন ও ডুয়েলগেজে রুপান্তরিত করতে তমা কনস্ট্রাকশন ও ম্যাক্স কনস্ট্রাকশন নামে দু’টি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কাজ শুরু করে।দিনাজপুরের পাবর্তীপুর থেকে ঠাকুরগাঁও হয়ে পঞ্চগড় পর্যন্ত ১শ৫০কিলোমিটারের এ রেললাইনের নির্মান কাজ করা হয়।দু’বার নির্মান কাজের মেয়াদ বাড়ালেও এ পর্যন্ত প্রায় ৭০ভাগ কাজ শেষ হয়েছে।এ রেলপথ চালু হলে একদিকে রেলপথে যাত্রীরা নিরাপদে চলাচলের পাশাপাশি উত্তরাঞ্চলের কৃষিপণ্য বিপননসহ ব্যবসায়ীরা বাণিজ্যিকভাবে লাভবান হবেন।

ঠাকুরগাঁও চেম্বার অব কর্মাসের সভাপতি হাবিবুল ইসলাম বাবলু জানান,ঠাকুরগাঁও কৃষিভিত্তিক এলাকা।এ ্এলাকার প্রচুর পরিমান ধান,গম,শাকসবজী উৎপাদন হয়।সঠিক সময়ে যানবাহন না পাওয়ায় এসব পণ্য জেলার বাইরে পাঠানো সম্ভব হচ্ছে না।এ দ্রুতগামী ট্রেন চালু হলে ঠাকুরগাঁওয়ে কৃষি বিপ্লব ঘটবে।

রেলচালক মনসুর আলম জানান,ডুয়েলগেজ ট্রেন চালু হলে এই এলাকার মানুষের যাতায়াতের  সুবিধা হবে। খুবকম সময়ে ঢাকা,চট্টগ্রাম পৌছা যাবে।

তমা কনস্ট্রাকশনের ফিল্ড সুপারভাইজার তরিকুল ইসলাম বেলান জানান,আমরা আমাদের সুবিধামত কাজ করে যাচ্ছি।এখন পর্যন্ত ৭০ভাগ কাজ শেষ হয়েছে।কিছু সংখ্যক ব্রিজের কাজ শেষ হলেই ডুয়েলগেজ ট্রেন চালু করা সম্ভব হবে।আশা করছি ,সঠিক সময়ের মধ্যে কাজ শেষ হবে।

ঠাকুরগাঁও রেলস্টেশন মাষ্টার মনজুর রহমান জানান,রেললাইনের কাজ শেষের দিকে।কিন্তু আমাদের তীব্র জনবল অভাব।পঞ্চগড় থেকে পাবর্তীপুর পর্যন্ত মোট১৯টি রেল স্টেশন আছে।তার মধ্যে ১২টি স্টেশন লোকবল অভাবে কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে।

উল্লেখ্য,বতমানে পাবতীপুর থেকে  ঠাকুরগাঁও ও পঞ্চগড় ডেমু ট্রেন চলা চল করছে।এছাড়াও পঞ্চগড় থেকে বগুড়া ,সান্তাহার পর্যন্ত রেল চলাচল করছে।পঞ্চগড় থেকে দিনাজপুর ,পাবতীপুর পর্যন্ত নয়ানিবুরুজ,কিসমত,রুহিয়া,আখানগর,শিবগঞ্জ,ভোমরদহ,সুলতানপুর,সেতাবগঞ্জ,মঙ্গলপুর,বাজনাহার,কাউনিয়া, মোহাম্মদপুর রেলস্ট্রেশগুলোতে কোন স্টেশন মাষ্টার নেই।এতে করে সে স্টেশনগুলো বন্ধ রয়েছে।

http://www.anandalokfoundation.com/