ঢাকা

৪ দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে নয়াদিল্লিতে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী

ডেস্ক
September 5, 2022 2:44 pm
Link Copied!

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চার দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে নয়াদিল্লিতে পৌঁছেছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবারের নয়াদিল্লি সফরে ভারতের রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মু, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং উপ-রাষ্ট্রপতি জগদীপ ধনখড়ের সঙ্গে বৈঠক করবেন।

আজ সোমবার (৫ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ সময় দুপুর সাড়ে ১২টায় তিনি দিল্লি পৌঁছান। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফ্লাইটটি নয়াদিল্লির পালাম বিমানবন্দরে পৌঁছালে ভারতের রেল ও টেক্সটাইল প্রতিমন্ত্রী দর্শনা বিক্রম জারদোস ও ভারতে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার মুহম্মদ ইমরান তাকে স্বাগত জানান।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আমন্ত্রণে চার দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে আজ সকাল ১০টায় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইটে নয়াদিল্লির উদ্দেশে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ছাড়েন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এ সফরে ব্যবসা-বাণিজ্য, জ্বালানি, অভিন্ন নদ-নদীর পানি বণ্টন ও রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে সহযোগিতার বিষয়গুলো আলোচনায় বেশি গুরুত্ব পাবে। এ সফরে দুই দেশের মধ্যে বেশ কয়েকটি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সই হবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

সম্পর্ক ও পারস্পরিক সহযোগিতাকে আরও শক্তিশালী করতে এই সফর বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে দু’দেশ।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সফর সঙ্গী হিসেবে রয়েছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ.ক.ম মোজাম্মেল হক, বাণিজ্য মন্ত্রী টিপু মুনশি, রেল মন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন, প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. মসিউর রহমান, প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান ফজলুর রহমান, বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক।

এফবিসিসিআই সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন, এফবিসিসিআয়ের সাবেক পরিচালক ও বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহানসহ দেশের শীর্ষ ব্যবসায়ীদের একটি প্রতিনিধি দল প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে নয়াদিল্লি সফর করছেন।

পালাম বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বিশেষ সম্মাননা জানানো হবে। বিমানবন্দরের আনুষ্ঠানিকতা শেষে সফরকালীন আবাসস্থল নয়াদিল্লির হোটেল আইটিসি মৌর্যে যাবেন প্রধানমন্ত্রী।

সফরের প্রথম দিনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এস. জয়শঙ্কর, ভারতের আদানি গ্রুপের চেয়ারম্যান গৌতম আদানি। বিকেলে হযরত নিজামুদ্দিন আউলিয়ার দরগাহ পরিদর্শন করবেন শেখ হাসিনা। রাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সম্মানে বাংলাদেশ হাউজে নৈশভোজের আয়োজন করবেন ভারতে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার। প্রধানমন্ত্রী এ নৈশভোজে অংশ নেবেন।

সফরের দ্বিতীয় দিন মঙ্গলবার (৬ সেপ্টেম্বর) সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারতের রাষ্ট্রপতি ভবনে যাবেন। সেখানে শেখ হাসিনাকে স্বাগত জানাবেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এখানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আনুষ্ঠানিক অভ্যর্থনা দেওয়া হবে।

রাষ্ট্রপতি ভবনের আনুষ্ঠানিকতা শেষে শেখ হাসিনা রাজঘাটে মহাত্মা গান্ধীর সমাধিসৌধে যাবেন। সেখানে মহাত্মা গান্ধীর সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন তিনি।

এরপর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হায়দরাবাদ হাউসে যাবেন। সেখানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে রুদ্ধদ্বার বৈঠক করবেন শেখ হাসিনা। দুই নেতার বৈঠকের পর দুই দেশের মধ্যে কয়েকটি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সই হওয়ার কথা। একই স্থান থেকে নরেন্দ্র মোদী ও শেখ হাসিনা যৌথ বিবৃতি দেওয়ার কথা।

এরপর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার সম্মানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর দেওয়া মধ্যাহ্নভোজে অংশ নেবেন। বিকেলে দিল্লির রাষ্ট্রপতি ভবনে ভারতের রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মুর সঙ্গে বৈঠক করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।এর আগে, উপরাষ্ট্রপতির কার্যালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারতের উপ-রাষ্ট্রপতি জগদীপ ধনখড়ের সঙ্গে বৈঠক করবেন।

বুধবার (৭ সেপ্টেম্বর) সকালে শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন ভারতের উত্তর পূর্ব অঞ্চলের উন্নয়ন বিষয়ক মন্ত্রী কিষাণ রেড্ডি।

পরে একই হোটেলে বাংলাদেশ-ভারত ব্যবসায়িক ফোরাম আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী। বিকেলে একই স্থানে ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদ এবং যুদ্ধাহত ভারতীয় সৈনিকদের পরিবারদের মাঝে ‘মুজিব স্কলারশিপ’ প্রদান করবেন।

সফরের শেষ দিন বৃহস্পতিবার (৮ সেপ্টেম্বর) নয়াদিল্লি থেকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সে জয়পুর যাবেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানে আজমীরে খাজা গরীবে নেওয়াজ দরগাহ শরীফ পরিদর্শন করবেন।

পরে জয়পুর আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সে ঢাকায় ফিরে আসবেন। সর্বশেষ করোনা মহামারির আগে ২০১৯ সালের অক্টোবরে প্রধানমন্ত্রী ভারত সফর করেন।

http://www.anandalokfoundation.com/