বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ০৯:২৮ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ খবর :
বেনাপোল রজনী ক্লিনিকে দায়িত্ব অবহেলার নবজাতকের মৃত্যু চীনের পণ্য খারাপ ও নিম্নমানের, মুখ ফিরিয়ে নিতে চায় পুরো বিশ্ব শাকিব একাই দু’জন ক্রিকেটারের সমান ফুলবাড়ীতে যুবলীগ কর্মী শহীদ নূর হোসেনকে কূটুক্তিকারীর শাস্তির দাবিতে  বিক্ষোভ বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবসে প্রধানমন্ত্রীর বাণী বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবসে রাষ্ট্রপতির বাণী অবহেলিত মানুষের কাছে স্বাস্থ্য সেবা পৌছে দিতে প্রতিটি ইউনিয়নে দুটি করে কমিউনিটি ক্লিনিক স্থাপন করা হয়েছে -ডা: মুশফিক নবীগঞ্জে এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণের নামে অতিরিক্ত ফি আদায় ঝিনাইদহ কালীগঞ্জে সাড়ে ৭’শ কৃষক পেলেন প্রনোদনা বগুড়ায় বায়োমেট্টিক হাজিরা মেশিন না কিনেই ভাউচার

কম্পিউটার প্রোগ্রামিং প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে শুরু করতে হবে -টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী

কোড স্যামুরাই ২০১৯ এর সমাপনী অনুষ্ঠান

ঢাকা, ১৮ কার্তিক (৩ নভেম্বর) :   কম্পিউটার  প্রোগ্রামিং শিক্ষা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে নয়, প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে শুরু করতে হবে। বলেছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

মন্ত্রী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ এবং বাংলাদেশ জাপান জয়েন্ট ভেঞ্চার কোম্পানি (বিজেআইটি) এর যৌথ উদ্যোগে গতকাল শনিবার রাতে আয়োজিত দুই দিনব্যাপী হ্যাকাথন প্রতিযোগিতা কোড স্যামুরাই ২০১৯ এর সমাপনী অনুষ্ঠানে কম্পিউটারসহ ডিজিটাল শিক্ষা প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে শুরু করার প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী আরও বলেন, বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ সম্পদ হচ্ছে মানবসম্পদ। এই সম্পদকে জ্ঞানভিত্তিক সমাজ বিনির্মাণের উপযোগী করে গড়ে তোলার মাধ্যমে জাপানসহ উন্নত বিশ্বের বিভিন্ন দেশে শ্রমবাজারে তরুণ প্রজন্মের বিপুল ঘাটতি পূরণের বিশাল সুযোগ কাজে লাগানো সম্ভব।

অনুষ্ঠানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড.  মুহাম্মদ সামাদ, বাংলাদেশে জাপানের রাষ্ট্রদূত নওকি ইতো (Naoki Ito), বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. কাজী  শহীদুল্লাহ, জাপান বহুমুখী বাণিজ্য সংস্থা – জেট্রো এর কান্ট্রি রিপ্রেজেনটেটিভ ইউজি অ্যান্ডো (Yoji Ando) এবং বুয়েট এর কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. এম কায়কোবাদ বক্তৃতা করেন। প্রতিযোগিতায় উল্লেখযোগ্য সংখ্যক জাপানিজ ডিজিটাল প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করে।

টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী ডিজিটাল প্রযুক্তি দুনিয়ায় গত এগারো বছরে বাংলাদেশের সফলতা তুলে ধরে বলেন,  বাংলাদেশ পৃথিবীর প্রথম দেশ যে দেশটির নামের আগে ডিজিটাল শব্দ সংযুক্ত করে ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ কর্মসূচি ঘোষণা করে পৃথিবীকে চমকে দেয়। এই কর্মসূচির সফল বাস্তবায়নের ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ আজ বঙ্গবন্ধুর লালিত স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠার দ্বারপ্রান্তে। তিনি বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং বুয়েটসহ বাংলাদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের আইটি স্নাতকরা সারা পৃথিবীতে দক্ষতার সাথে কাজ করছে। বাংলাদেশ পৃথিবীর ৮০টি দেশে আইটি পণ্য রপ্তানি করছে।

প্রতিযোগিতায় ২৫টি স্বায়ত্বশাসিত পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় হতে ১৮৭টি দল প্রাথমিক বাছাই পর্বে আবেদন করেন এবং বাছাই পর্বের পর নির্বাচিত ৩৪ টি দল চূড়ান্ত প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে যা টানা ৩০ ঘন্টাব্যাপী চলে। চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দল ডিইউ এক্সপুরি, দ্বিতীয় হয়েছে একই বিশ্ববিদ্যালয়ের উিইউ স্প্রিংবুকস দল। প্রতিযোগিতায় তৃতীয় হয়েছে খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কুয়েট ম্যাঞ্জারো দল। মন্ত্রী বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন।

শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2019 News Time Media Ltd.
IT & Technical Support: BiswaJit