শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০, ১২:১৭ অপরাহ্ন

সর্বশেষ খবর :
বৈরী আবহাওয়ায় বরিশালের অভ্যন্তরীণ সকল রুটে লঞ্চ চলাচল বন্ধ উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরের নিম্নচাপটি গভীর নিম্নচাপে রূপ নিয়েছে গভীর নিম্নচাপে উত্তাল বঙ্গোপসাগর, সমুদ্রবন্দরগুলোকে ৪ নম্বর হুশিয়ারি আজকের রাশিফল দেখে নিন কি অপেক্ষা করছে আপনার ভাগ্যে বিআরটিএ জনবল নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগে চাকরির সুযোগ শার্শায় ফেনসিডিল ও মোটরসাইকেল সহ একাধিক মাদক মামলার আসামী আটক ঝিনাইদহে নারী নির্যাতন প্রতিরোধ সমাবেশ ও র‌্যালী অনুষ্ঠিত হরিণাকুন্ডুতে শারদীয় দুর্গাপুজা উপলক্ষে নিম্ন আয়ের মানুষের মাঝে বস্ত্র ও খাবার বিতরণ মহেশপুর সীমান্ত থেকে ৮ জন আটক

ভারত থেকেও বাড়তে পারে বাংলাদেশের জিডিপি -আইএমএফ

মাথাপিছু জিডিপি

বিশ্ব অর্থনীতি ২০২০ সালে গভীর মন্দায় পড়তে যাচ্ছে। তবুও ভারতের মাথাপিছু জিডিপি’র তুলনায় বাংলাদেশের মাথাপিছু জিডিপি’র আকার বাড়তে পারে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল।

সম্প্রতি আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল(আইএমএফ)’র বিশ্ব অর্থনৈতিক প্রতিবেদনে এমন তথ্য উঠে এসেছে।

এবছর ২০২০ সালে বিশ্ব অর্থনীতির মন্দা ১৯৩০ সালের চেয়েও ভয়াবহ। মহামারীর কারণে বিশ্ব অর্থনীতির প্রায় ২৮ ট্রিলিয়ন ডলারের ক্ষতি হতে পারে বলে জানায় ঋণদাতা আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল(আইএমএফ)।

আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের বিশ্ব অর্থনৈতিক প্রতিবেদনে দেখা গেছে, ২০২০ সালে মাথাপিছু জিডিপি’র দিক দিয়ে ভারতকে ছাড়িয়ে যেতে পারে বাংলাদেশ। ২০২০ সালে ভারতের মাথাপিছু প্রবৃদ্ধি ধরা হয়েছে ১ হাজার ৮শ’ ৭৭ ডলার, যেখানে বাংলাদেশের ১ হাজার ৮শ’ ৮৮ ডলার। আইএমএফ বলছে, করোনা মহামারীর কারণে ভারতের অর্থনীতি এতোটাই বিপর্যস্ত যে, শুধু বাংলাদেশ নয়, ভারতকে টেক্কা দিতে পারে নেপাল, ভুটান, শ্রীলঙ্কা এমনকি মালদ্বীপ।

বিশ্ব অর্থনীতির অবস্থা এতোটাই বিপর্যস্ত যে, একমাত্র করোনা ভাইরাসকে পরাজিত করতে পারলেই অর্থনীতি স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরবে। চলতি বছর বিশ্ব অর্থনীতি সংকুচিত হতে পারে প্রায় সাড় ৪ শতাংশ। এমনটাই জানিয়েছেন আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল প্রধান ক্রিস্টালিনা জর্জিয়েভা। আশঙ্কা প্রকাশ করে তিনি বলেন, শত বছরের মধ্যে এতো ভয়াবহ বিপর্যয় হয়তো বিশ্ব অর্থনীতিতে আসেনি। জি টুয়েন্টি সদস্য উন্নত দেশগুলো আরো ৬ মাস ঋণ পরিশোধ মওকুফ করেছে দরিদ্র দেশগুলোর জন্য। সময় বাড়ানো হয়েছে উন্নয়নশীল দেশগুলোর জন্যেও। এরপরও সারা বিশ্বের মাথাপিছু ঋণ মোট জিডিপির প্রবৃদ্ধির ১শ’ শতাংশে পৌঁছাবে আগামী বছরই।

আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের প্রধান ক্রিস্টালিনা জর্জিয়েভা বলেন, বিশ্ব অর্থনীতির যে পরিমাণ ক্ষতি হচ্ছে, তা কাটিয়ে উঠতে আগামী ৫ বছরে ২৮ ট্রিলিয়ন ডলারের ভর্তুকি প্রয়োজন পড়তে পারে। বিশ্ব অর্থনীতি শিখে নিয়েছে কিভাবে ভাইরাসের সাথেই বাস করতে হবে। অর্থনীতি স্বাভাবিক তখনই হবে, যদি মহামারীকে আমরা পরাজিত করতে পারি। এই সময়ের মধ্যে ব্যাংক দেউলিয় হচ্ছে, বেকারত্ব বাড়ছে। মাথাপিছু ঋণের বোঝাও এখন সব দেশের মাথাব্যথার অন্যতম কারণ। সব দেশের সরকারকেই বলছি, যতোটুকু পারবেন, করুন। যেটা জরুরি সেটা করুন, কিন্তু মানুষকে অসচ্ছল অবস্থায় ফেলবেন না।

সংস্থাটির প্রধান অর্থনীতিবিদ গীতা গোপিনাথ জানান, চীন ছাড়া প্রায় সব দেশের প্রবৃদ্ধি চলতি বছর নেতিবাচক হবে। তবে ২০২১ সালে সারা বিশ্বের ৫ শতাংশের ওপরে প্রবৃদ্ধি হবে বলেও পূর্বাভাস দেয় সংস্থাটি। গীতা গোপিনাথ বলেন, দেশিয় বা আন্তর্জতিক, দুই দিক থেকেই এই মন্দা মহামন্দার থেকেও ভয়াবহ। এ মহামারী বিশ্ব অর্থনীতি, স্বাস্থ্য, শিক্ষা সব খাতকেই অনিশ্চয়তায় ফেলে দিয়েছে। মহামারী চলতে থাকলে পরিস্থিতি আরো ভয়াবহ হবে। দেশে দেশে বৈষম্য বাড়ছে। নিম্ন আয়ের মানুষ, নারী আর তরুণরাই বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। দরিদ্র দেশগুলোর তো ভবিষ্যতই অনিশ্চয়তায় পড়ে গেছে। সবার আগে স্বাস্থ্যখাতকে স্থির অবস্থায় নিয়ে যেতে হবে।

SHARE THIS:

শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

দ্যা নিউজ এর বিশেষ প্রকাশনা

পুরাতন সংবাদ পডুন

SatSunMonTueWedThuFri
     12
24252627282930
31      
   1234
       
282930    
       
      1
       
     12
       
2930     
       
    123
25262728   
       
      1
9101112131415
30      
  12345
6789101112
272829    
       
   1234
2627282930  
       
1234567
891011121314
22232425262728
293031    
       
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৪-২০২০ || এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি
IT & Technical Support: BiswaJit