বুধবার, ০৮ জুলাই ২০২০, ১২:২৪ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ খবর :
আমফানের ক্ষতিপূরণের টাকা পাইয়ে দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে এক গৃহবধূকে তৃণমূল নেতার ধর্ষণ তৃণমূলের সংগঠন ভেঙে ১৫০০ কর্মী আর আট সভাপতি যোগ দিলেন বিজেপিতে সৌর শক্তির মাধ্যমে ট্রেন চালানোর প্রস্তুতি ভারতের করোনায় আক্রান্ত ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জায়ের বলসোনারোও ভোলায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু কালাম আজাদের যোগদান দাকোপে ছাত্রলীগের বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত Environmentally destructive investment patterns and activities must be avoided শার্শায় পুলিশের অভিযানে ২কেজি গাঁজাসহ ২ নারী মাদক ব্যাবসায়ী আটক করোনায় কেড়ে নিলো আরেক সম্মুখযোদ্ধা এসআই মীর ফারুকের প্রাণ প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে ফেনী জেলার সিভিল সার্জনের মৃত্যু

দেশের স্বাস্থ্যব্যবস্থা একেবারে ভেঙে পড়েছে, সরকারের কোনো রোডম্যাপ নেই -মির্জা ফখরুল

সরকারের কোনো রোডম্যাপ নেই

দেশের স্বাস্থ্যব্যবস্থা একেবারে ভেঙে পড়েছে। করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সরকারের কোনো পরিকল্পনা বা রোডম্যাপ নেই বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

আজ রোববার দুপুরে রাজধানীর উত্তরার বাসা থেকে অনলাইনে জাতীয়তাবাদী হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসক দল আয়োজিত ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মির্জা ফখরুল এই মন্তব্য করেন।

বিএনপির মহাসচিব বলেন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর যে একটা গাইডলাইন দেবে, সেই গাইডলাইনও তারা দিতে পারেনি। গোটা দেশে কোভিড-১৯ মোকাবিলার জন্য যে একটা রোডম্যাপ, একটা প্রতিরোধ পরিকল্পনা, তার সবটাই অনুপস্থিত এখানে।

তিনি বলেন, গোটা হেলথ সিস্টেম একেবারে ভেঙে পড়েছে। একেবারেই লেজেগোবরে অবস্থা হয়ে গেছে। সরকার স্বাস্থ্য খাতকে চরম অবহেলা করার জন্য, কোভিড-১৯-এর পর থেকে সঠিক সিদ্ধান্ত না নেওয়ার কারণে, ভ্রান্ত নীতির কারণে আজকে দেশে সবচেয়ে করুণ অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে।

কোভিড-১৯ রোগের চিকিৎসার হাসপাতালগুলোয় শয্যা খালি থাকাকে ‘অ্যালার্মিং’ বলে মন্তব্য করেন বিএনপির মহাসচিব। তিনি বলেন, হাসপাতালগুলোয় যেসব শয্যা চিহ্নিত করা হয়েছিল কোভিড-১৯ রোগীদের জন্য, সেই বেডগুলো খালি পড়ে থাকছে। কারণ, মানুষ হাসপাতালে যেতে চাইছে না। হাসপাতালের যে ব্যবস্থা, সেই ব্যবস্থায় কেউ আস্থা আনতে পারছে না। বেশির ভাগ মানুষ ঘরের মধ্যে চিকিৎসা নিচ্ছে, ঘরের মধ্যে তারা প্রাণ দিচ্ছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আপনারা দেখেছেন, কয়েক দিন আগে চীনা বিশেষজ্ঞরা এসেছিলেন। তাঁরা এসে ঠিক একই কথা বলেছেন যে বাংলাদেশে সবকিছু এলোমেলো।’

বিএনপির মহাসচিব বলেন, এখানে কারও কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। সরকারের তরফ থেকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর আছে। তারা একেক সময় একেক রকম কথা বলছে।

করোনা মোকাবিলায় সরকারের দেওয়া প্যাকেজ প্রণোদনার প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল বলেন, সেটা ছিল মূলত ব্যাংকঋণ। এই মুহূর্তে সরকারের বড় যে বিষয়টা গুরুত্ব দেওয়া উচিত ছিল, সেটা হলো মানবিক দিক। এখানে যে মানুষগুলো আজ কর্মহীন হয়ে পড়ছে বা কাজ পাচ্ছে না, তাদের ন্যূনতম বেঁচে থাকার জন্য যে প্রয়োজন, সেই প্রয়োজনের টাকাও সরকার তাদের কাছে পৌঁছাতে পারেনি।

বিএনপির পক্ষ থেকে স্বল্প, মধ্য ও দীর্ঘমেয়াদি প্যাকেজ প্রস্তাবের কথা উল্লেখ করে তাতে সরকার কোনো সাড়া না দেওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন মির্জা ফখরুল।

বাজেটে স্বাস্থ্য খাতের বরাদ্দের সমালোচনা করেন মির্জা ফখরুল। তিনি বলেন, ‘বাজেটে স্বাস্থ্য খাতে বরাদ্দ সবচেয়ে কম। কী দুর্ভাগ্য এই জাতির। আজকে রাস্তায় মানুষ মারা যাচ্ছে। টেস্ট করতে পারছে না। কোনো টেস্ট হচ্ছে না। এরপরও ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র যে কিট উদ্ভাবন করল, সেই কিটকে তারা (সরকার) নাকচ করে দিয়েছে। পত্রপত্রিকায় দেখছি, সিন্ডিকেট কাজ করছে এগুলো কেনার জন্য। এই চরম দুঃসময়ে আজকে দুনীতিতে ছেয়ে গেছে স্বাস্থ্য বিভাগ।’

করোনা মোকাবিলায় এগিয়ে আসার জন্য বিএনপি মহাসচিব জাতীয়তাবাদী হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসক দলকে ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, হোমিওপ্যাথিক নিঃসন্দেহে একটি কার্যকরী চিকিৎসাব্যবস্থা। ইংল্যান্ডের রানি এলিজাবেথ দীর্ঘদিন ধরে বেঁচে আছেন। তিনি হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসাসেবা নেন।

শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

দি নিউজ এর বিশেষ প্রকাশনা

পুরাতন সংবাদ পডুন

SatSunMonTueWedThuFri
    123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031
       
   1234
       
282930    
       
      1
       
     12
       
2930     
       
    123
25262728   
       
      1
9101112131415
30      
  12345
6789101112
272829    
       
   1234
2627282930  
       
1234567
891011121314
22232425262728
293031    
       
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৪-২০২০ || এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি
IT & Technical Support: BiswaJit
error: Content is protected !!