সরকারিভাবে সৌদিআরবে এক হাজার লোক পাঠাতে যশোরে চলছে চাকরি মেলা

    নিউজ ডেস্ক
    October 4, 2021 4:03 pm
    Link Copied!

    স্টাফ রিপোর্টার, যশোর : দেশের জনগোষ্ঠেীকে জনশক্তিতে রুপান্তরিত করতে যশোর অঞ্চলের এক হাজার জনকে সৌদিআরবে কাজের সুযোগ করে দিচ্ছে সরকার। এ উপলক্ষে আজ যশোর সরকারি কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে চলছে চাকরি মেলা। দিনভর সাক্ষাতকার গ্রহণ শেষে আজই বিদেশগামীদের নির্বাচিত করা হবে। রিক্রুটিং এজেন্সি ম্যাক্স ম্যানেজমেন্ট এন্ড সার্ভিসেসের উদ্যোগে এ মেলার আয়োজন করা হয়েছে।
    সকাল ৯টা থেকে শুরু হওয়ায় এ চাকরি মেলায় যশোর জেলার আট উপজেলার প্রশিক্ষত এবং অপ্রশিক্ষত যুবকরা অংশ নিচ্ছে। সৌদিআরবে থাকা খাওয়ার সুবিধা এবং ওভারটাইমের সুযোগসহ ৭শ’ রিয়েল বেতনে ক্লিনার পদে কাজ পাবেন নির্বাচিত যুবকরা। মেলা শেষে আজ বিকেল ৫টায় জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর মহাপরিচালক সাক্ষাতকারে নির্বাচিতদের হাতে ইয়েস কার্ড তুলে দেবেন।
    যশোর কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের অধ্যক্ষ সাজ্জাদ হোসেন ভুইঁয়া জানিয়েছেন, আজকে নির্বাচিতরা দালালমুক্তভাবে সরকার নির্ধারিত এক লাখ ৬৫ হাজার টাকা খরচ দিয়ে বিদেশে যেতে পারবেন। পাসপোর্ট ও টিকা নেয়া থাকলে আগামী এক মাসের মধ্যে তারা সৌদিআরবে যাবেন।
    এদিকে কেবলমাত্র সাক্ষতকারের মাধ্যমে অল্প খরচে বিদেশ যাওয়ার সুযোগ পেয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন চাকরি মেলায় আসা যুবকরা।
    যশোর শহরের রেলগেট এলাকা থেকে আসা সোলাইমান হোসেন বলেন, আমি চায়ের দোকান চালাই। সরকারিভাবে বিদেশে লোকপাঠানোর খবর শুনে আজ এখানে এসেছি। স্যাররা ইন্টারভিউ নিয়ে আমাকে ইয়েস কার্ড দিয়েছে। আমি খুব খুশি।
    চৌগাছা উপজেলা থেকে আসা হাবিবুর রহমান বলেন, আমি আগেও বিদেশ খেটেছি। করোনার কারণে দেশে ফিরে আসি। সরকারিভাবে সৌদি যাবার সুযোগ নিতে আজকে ইন্টারভিউ দিয়েছি। আমি ইয়েস কার্ড পেয়েছি। আশা করছি দ্রুতই যেতে পারবো।
    শার্শা উপজেলা থেকে আসা ইমরান হোসেন বলেন, আমি অনার্স পড়ছি। সংসারে অভাব অনটনের কারণে বিদেশে যেতে চাইছিলাম। এর মধ্যে সরকারিভাবে সৌদিআরব যাওয়ার নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেখে এসেছি। ইয়েস কার্ড পেয়েছি। আশাকরি দ্রুত বিদেশ যেয়ে সংসারের হাল ধরতে পারবো।
    মণিরামপুর উপজেলা থেকে আসা আব্দুর রহিম বলেন, আমি লেদমিস্ত্রি। যে আয় হয় তা দিয়ে সংসার চালিয়ে ছেলে মেয়ের লেখাপড়ার খরচ টানা কষ্ট হয়ে যায়। শুনলাম সরকার কম টাকায় সৌদিআরবে লোক পাঠাবে। আমার পাসপোর্ট আছে। এজন্য আজ এ চাকরি মেলায় এসেছি। অল্পকিছু প্রশ্ন করে আমাকে ইয়েস কার্ড দিয়েছে। আমি ভাবতেও পারেনি এতসহজে কম টাকায় বিদেশে যেতে পারবো। সবঠিকঠাক থাকলে সংসারে স্বচ্ছলতা আনতে পারবো বলে আশা করছি।
    খুলনা থেকে আগত বিল্লাল হোসেন বলেন, আমি বিএ পড়ছি। আর্থিক টানাপোড়েনর কারেণ বিদেশ যেতে চাইছি। জানতাম আজ যশোর জেলার লোকজন নেয়া হবে। তারপরও প্রয়োজনের কারণে এসেছি। এখানকার স্যাররা আমার সাক্ষাতকার নিয়ে আমাকে ইয়েস কার্ড দিয়েছে। আমি খুব খুশি।