13yercelebration
ঢাকা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বৃষ্টি থাকবে আরও ২ দিন সমুদ্রে ৩ নম্বর সঙ্কেত বহাল

admin
September 20, 2015 11:31 pm
Link Copied!

স্টাফ রিপোর্টারঃ মধ্য বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপের কারণে শনিবার সমুদ্রবন্দরগুলোতে জারি করা ৩ নম্বর সতর্ক সঙ্কেত রবিবারও বহাল আছে। আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, লঘুচাপের প্রভাবে মৌসুমি বায়ু সক্রিয় থাকায় শনিবার থেকে সারাদেশে বৃষ্টি হচ্ছে।

রবিবার সকাল ১০টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা, খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের কোথাও কোথাও ভারী থেকে অতিভারী বর্ষণ হতে পারে। এ জন্য চট্টগ্রাম বিভাগের পাহাড়ী এলাকায় কোথাও কোথাও ভূমিধসের আশঙ্কার কথা জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর। মৌসুমি বায়ুর কারণে বৃষ্টি আরও দু’দিন থাকতে পারে বলেও পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া বিভাগ। আগামী শুক্রবার মুসলমানদের দ্বিতীয় বৃহত্তম ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল আজহা পালিত হবে। বৃষ্টি চলতে থাকলে দুর্ভোগে পড়বেন ঈদে ঘরে ফেরা মানুষ।

আবহাওয়া অধিদফতরের আহাওয়াবিদ মো. আব্দুর রহমান রবিবার সকালে বলেন, ‘চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সঙ্কেত বহাল রয়েছে। ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সঙ্কেত মানে হল- বন্দর ও বন্দরে নোঙর করা জাহাজগুলোর দুর্যোগকবলিত হওয়ার আশঙ্কা। বন্দরে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে এবং ঘূর্ণি বাতাসের একটানা গতিবেগ ঘণ্টায় ৪০ থেকে ৫০ কিলোমিটার হতে পারে। মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় একটি লঘুচাপ অবস্থান করছে। এর প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় বায়ুচাপের তারতম্যের আধিক্য বিরাজ করছে। এতে উত্তর বঙ্গোপসাগর, বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্র বন্দরসমূহের উপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে বলেও জানান আব্দুর রহমান। উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি এসে সাবধানে চলাচল করতে বলেছে আবহাওয়া অধিদফতর। তবে অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরগুলোকে ১ নম্বর সতর্ক সঙ্কেত দেখিয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া বিভাগ। বাংলা সনের আষাঢ় ও শ্রাবণ বর্ষাকাল হিসেবে পরিচিত। তবে বর্ষার রেশ থাকে এর পরেও বেশ কিছুদিন। রবিবার আশ্বিনের ৫ তারিখ।

আবহাওয়া অধিদফতর আরও জানিয়েছে, মহারাষ্ট্র ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত স্থল নিম্নচাপটি দুর্বল ও সুস্পষ্ট লঘুচাপে পরিণত হয়ে মৌসুমি বায়ুর অক্ষের সঙ্গে মিলিত হয়েছে। মৌসুমি বায়ুর অক্ষ গুজরাট, মধ্যপ্রদেশ, উড়িষ্যা, লঘুচাপের কেন্দ্রস্থল এবং গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের মধ্যাঞ্চল হয়ে উত্তর-পূর্ব দিকে আসাম পর্যন্ত বিস্তৃত। আবহাওয়াবিদ আবদুর রহমান আরও বলেন, ‘মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের দক্ষিণ ও মধ্যাঞ্চলে সক্রিয় রয়েছে। এর প্রভাবে আরও দুই দিন বৃষ্টি হতে পারে। আবহাওয়া অধিদফতরের বৃষ্টি পরিমাপক কেন্দ্র থেকে জানা গেছে, শনিবার প্রায় সারাদেশেই বৃষ্টি হয়েছে। সর্বোচ্চ বৃষ্টি হয়েছে নোয়াখালীর মাইজদীকোর্টে ১১৯ মিলিমিটার।

রবিবার ঢাকায় সকাল ৬টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ১৮ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। এ ছাড়া রবিবার যশোর, সীতাকুন্ড, মংলা, রাজশাহী, ময়মনসিংহ, খুলনা, সন্দ্বীপ, কুতুবদিয়া, রংপুর, সিলেট, বরিশাল, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার ও ঈশ্বরদীতে সকাল থেকে বৃষ্টি হচ্ছে। দীর্ঘমেয়াদী পূর্বাভাস দিতে আবহাওয়া অধিদফতরের গঠিত বিশেষজ্ঞ কমিটি জানিয়েছিল, সেপ্টেম্বর মাসে বঙ্গোপসাগরে এক থেকে দুটি মৌসুমি নিম্নচাপ সৃষ্টি হতে পারে। আগস্ট মাসে স্বাভাবিকের চেয়ে ৭ শতাংশ বেশি বৃষ্টিপাত হলেও চলতি মাসে স্বাভাবিক বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দিয়েছে কমিটি।

http://www.anandalokfoundation.com/