শুক্রবার, ২২ নভেম্বর ২০১৯, ০৫:৪৮ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ খবর :
নবীগঞ্জের পল্লীতে পরকিয়া প্রেমিকের হাত ধরে ২ সন্তানের জননী নাজমা পলায়ন ফরিদপুরে চাঞ্চল্যকর ইজি বাইক চালক হত্যা মামলায় ৩ আসামী গ্রেফতার স্বপ্না মন্ডলকে পিটিয়ে হত্যা করলো স্বামী ও শাশুড়ি রাণীনগরে কৃষকদের মাঝে সার ও বীজ বিতরণ করলেন ইসরাফিল আলম এমপি মাদকের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে: খাদ্যমন্ত্রী কুড়িগ্রামে মাসব্যাপী প্রশিক্ষণের পর ৩৫ দু:স্থকে সেলাই মেশিন বিতরণ সন্তানরা আবার রাস্তায় নামলে পিঠের চামড়া থাকবে না: ডিএমপি কমিশনার দাম বাড়িয়ে মানুষকে কষ্ট দেয়া ইসলামে সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ দেশ ও মানুষের কল্যাণে সবাইকে প্রতিদিন কমপক্ষে একটি করে ভাল কাজ করতে হবে -এমপি বাবু কুড়িগ্রামে ইঊনিয়ন আওয়ামীলীগে রাজাকার পুত্রের প্রার্থীতার বিরুদ্ধে মানববন্ধন

জীবন ও মৃত্যুর বিজ্ঞানভিত্তিক যুক্তিপূর্ণ ব্যখ্যা

জীবন ও মৃত্যুর বিজ্ঞানভিত্তিক যুক্তিপূর্ণ ব্যখ্যা

প্রথমে দেখা যাক-জীবন, মৃত্যু কিভাবে হয়, তার বিজ্ঞান ভিত্তিক যুক্তিপূর্ণ ব্যাখ্যা কি।

জীবন ও মৃত্যুঃ

এই জগৎটা কতগুলি তরঙ্গের সমষ্টি মাত্র। আর এই তরঙ্গ বিভিন্ন তারঙ্গিক দৈর্ঘ্য (wave length) নিয়ে মুখ্যতঃ তিনটি রূপে আপেক্ষিক জগতে প্রবাহিত হয়ে চলেছে। এই তিন ধরণের তরঙ্গ হ’ল- জড় তরঙ্গ (Physical wave), মানস তরঙ্গ (Psychic wave) ও আধ্যাত্মিক তরঙ্গ (Spiritual wave)।

এখন জীবদেহে মানস তরঙ্গের সাথে সমান্তরলতা বজায় রেখে শরীর তরঙ্গ যখন চলতে থাকে সুসামঞ্জস্যপূর্ণ ভাবে, তাকে বলে জীবন (Life)। শারীর তরঙ্গের সাথে মানস তরঙ্গের সমান্তরলতার যখনই বিচ্ছেদ ঘটে তাকে বলে মৃত্যু (Death)। এই মৃত্যুর কারণও তিন রকমের হতে পারে,-

১) শরীর সংক্রান্ত কারণঃ

অকস্মাৎ কোন দুর্ঘটনা বা আঘাত, বৃদ্ধত্ব বা  রোগগত কারণে যদি কারো শরীর তরঙ্গ মানস তরঙ্গের সাথে সমান্তরলতা রক্ষা করতে না পারে তাহলে তার  ‘দৈহিক মৃত্যু’ ঘটে। এ মৃত্যু সাময়িক, কারণ মৃত ব্যক্তির সংস্কার তখনও অভূক্ত রয়ে গেছে। তাই তাকে অভুক্ত সংস্কার ভোগের জন্যে সংস্কার অনুসারে পুণরায় জন্ম নিতে হবে।

২) মন সংক্রান্ত কারণঃ

হঠাৎ কোন অত্যধিক দুঃখদায়ক বা আনন্দদায়ক সংবাদ মানস তরঙ্গে অস্বাভাবিকতা সৃষ্টি করলে ও তার মানস তরঙ্গ শরীর তরঙ্গের সাথে সমান্তরলতা রক্ষা করতে না পারলে ‘দৈহিক মৃত্যু’ ঘটে। হৃদপিণ্ড আক্রান্ত হয়ে  মৃত্যু অনেক সময় এইরূপ কারণেই হয়ে থাকে। তাই দেখা যায় অত্যধিক দুঃখজনিত (যেমন, প্রিয়জনের মৃত্যু) সংবাদ বা আনন্দজনিত  (যেমন, লটারীতে বড় ধরণের জয়) সংবাদ মানুষকে ধীরে ধীরে মনের সঙ্গে সহ্য করিয়ে পরিবেশন করা হয় বা করতে উপদেশ দেওয়া হয়। এই মৃত্যুর পরিণাম হয় দৈহিক কারণে মৃত্যুর মত। মৃত ব্যষ্টিকে পুণরায় সংস্কার অনুসারে জন্ম নিতে হয়।

৩) আধ্যাত্মিক কারণঃ

নিরন্তর সাধনা অভ্যাসের ফলে এক সময়ে মন এত সূক্ষ্ম অর্থাৎ মানস তরঙ্গ এত দীর্ঘ্য তরঙ্গ দৈর্ঘ্য সম্পন্ন হয়ে যায় যে শরীর তরঙ্গ মানস তরঙ্গের সাথে সমান্তরলতা রক্ষা করে চলতে পারে না। সেই অবস্থায় মানস তরঙ্গ, অনন্ত তরঙ্গ দৈর্ঘ্য সম্পন্ন আধ্যাত্মিক তরঙ্গের সাথে এক হয়ে মিশে যায়। একেই বলে ‘সমাধি’। সাধকের সংস্কার ক্ষয় হলে এই সমাধি স্থায়ী হয় ও সাধক লাভ করে মুক্তি বা মোক্ষ। সে অবস্থায় তাঁর যে দৈহিক মৃত্যু তাই হ’ল আধ্যাত্মিক কারণে মৃত্যু বা মহামৃত্যু। মহামৃত্যুর পরে মানুষের আর পুনর্জন্ম হয় না।কারণ তখন তাঁর সমস্ত সংস্কার ক্ষয় হয়ে গেছে। তাই এই মৃত্যু হলে মানুষ আর সুখ-দুঃখ, জন্ম-মৃত্যুর আওতায় আসে না।

শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2019 News Time Media Ltd.
IT & Technical Support: BiswaJit