মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ০৮:০৯ অপরাহ্ন

সর্বশেষ খবর :
লাইট এণ্ড সাউন্ড শো এবং বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণের থ্রিডি হলোগ্রাম অন্তর্ভুক্তির পরামর্শ সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রীর রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্পের কাজ আরেক ধাপ এগিয়ে গেল ডিজিটাল না হলে করোনার সময়ে বাংলাদেশ পৃথিবী থেকে আলাদা হয়ে যেত -নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খুচরা পর্যায়ে প্রতি কেজি আলুর দাম ৩৫ টাকা পুনর্নির্ধারণ করা হয়েছে ভবিষ্যতে কৃষিই হবে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের বড় খাত -মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী ধর্ষকদের বিরুদ্ধে তীব্র সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে -প্রতিমন্ত্রী ইন্দিরা নিষ্ঠার সাথে দেশ সেবার আহ্বান জানালেন ফায়ার সার্ভিসের মহাপরিচালক ২০২৫ সালের মধ্যে শেখ কামাল আইটি ইনকিউবেশন সেন্টার -পলক বস্ত্র ও পাটখাতে বাংলাদেশের সাথে বাণিজ্যের উন্নয়ন ঘটাতে চায় ভারত -ভারতীয় হাইকমিশনার বিদেশ গমনেচ্ছুদের কোভিড-১৯ মুক্ত সনদ প্রদানে ১০টি প্রতিষ্ঠান মনোনীত

কলকাতায় পিস হিসেবে ইলিশ বিক্রি নিয়ে কেন এত ট্রল?

কলকাতায় পিস হিসেবে ইলিশ

বাংলাদেশে এ বছর বিপুল পরিমাণে ইলিশ ধরা পড়েছে। তাই ভারতে ১৯৭ টন ইলিশ রপ্তানি হয়েছে। যেদিন ইলিশ রপ্তানি শুরু হয় বাংলাদেশ, সেদিন থেকেই ভারতের পেঁয়াজ রপ্তানি নিষেধাজ্ঞা হয়। এর ফলে সোশ্যাল মিডিয়ায় নানারকম ট্রল শুরু হয়। যার মাঝে অন্যতম হলো, কলকাতার বাজারে পিস হিসেবে ইলিশ বিক্রি করা নিয়ে।

বাংলাদেশের শহর বা গ্রামের বাজারে সাধারণত আস্ত মাছই কেজি হিসেবে বিক্রি করা হয়। খুব বড় মাছ, ১০-১৫ কেজি ওজনের হলে কেটে বিক্রি করা হয়। তবে মাছ কেটে পিস হিসেবে বিক্রির চল বাংলাদেশে খুব একটা নেই। কিন্তু ভারতে আপনি এই সুবিধা পাবেন। যে যার সামর্থ্য অনুযায়ী পিস হিসেবে মাছ কিনতে পারে। শুধু ভারতে নয়, বিশ্বের আরও অনেক দেশে এই ব্যবস্থা আছে। এই বিষয়টি অনেকের চোখে কৃপণতা হিসেবে প্রতীয়মান হয়েছে। এ নিয়ে চলছে হাসাহাসি।

অনেকেই মনগড়া কিছু পোস্ট দিচ্ছেন; সেটা অবশ্যই ফান করে। যেমন, ‘৬০০ টাকায় তিন ভাগে একটি ইলিশ মাছ কিনতে গিয়ে সংঘর্ষ লেগেছে কলকাতায়। লেজ,মাথা আর পেটের অংশের ভাগাভাগি নিয়ে এ সংঘর্ষ বাঁধে। আহত একজন অভিযোগ করেন তিনি ভাগে ৭০ গ্রাম কম পেয়েও দুটো ঘুষি খেয়েছেন।’ এসব ঘটনার সত্যতা না থাকলেও অসংখ্য ফেসবুক ব্যবহারকারী শেয়ার করে মজা লুটছেন। ভারত পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করায় বাংলাদেশে পেঁয়াজের দাম বেড়েছে। এটাই মূলতঃ ট্রোলিংয়ের অন্যতম কারণ।

তবে এতশত ট্রোলিংয়ের মাঝে বিপরীত চিত্রও দেখা যাচ্ছে। অনেকে বাংলাদেশে মাছ বিক্রির প্রক্রিয়া নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন। তাদের বক্তব্য, ৭০০ গ্রাম ওজনের একটা ইলিশ কিনতে বাংলাদেশ প্রায় ৫০০ টাকা লাগে। মধ্যবিত্ত শ্রেণী সাধারণত এই ওজনের মাছ কেনে। আর এক কেজি কিংবা এর বেশি ওজনের ইলিশ কেনে বিত্তবানেরা। এসব অন্যদের ধরাছোঁয়ার বাইরে। উচ্চবিত্ত-মধ্যবিত্ত ইলিশ পেলেও জাতীয় মাছের স্বাদ থেকে শ্রমজীবী মানুষ একেবারেই বঞ্চিত

এত টাকা দিয়ে ইলিশ কেনার সাধ্য তাদের নেই। শ্রমজীবীদর ইলিশের স্বাদ দেওয়ার জন্য তারা বাংলাদেশেও পিস হিসেবে ইলিশ বিক্রির দাবি জানাচ্ছেন। গত কয়েক বছরে সরকারের নানা উদ্যোগের কারণে বাংলাদেশে ইলিশের উৎপাদন অনেক বেড়েছে। যে কারণে বাজারে দামও কম। সেই ‘কম দাম’ কিন্তু শ্রমজীবী মানুষের নাগালে নেই। অবৈধভাবে বিক্রি করা ঝাটকা ইলিশের স্বাদ নিতেও তাদের দুবার ভাবতে হবে।

SHARE THIS:

শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

দ্যা নিউজ এর বিশেষ প্রকাশনা

পুরাতন সংবাদ পডুন

SatSunMonTueWedThuFri
     12
17181920212223
24252627282930
31      
   1234
       
282930    
       
      1
       
     12
       
2930     
       
    123
25262728   
       
      1
9101112131415
30      
  12345
6789101112
272829    
       
   1234
2627282930  
       
1234567
891011121314
22232425262728
293031    
       
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৪-২০২০ || এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি
IT & Technical Support: BiswaJit