শুক্রবার, ২৯ মে ২০২০, ০৯:২৬ অপরাহ্ন

সর্বশেষ খবর :
মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ খাতের উন্নয়নে বাংলাদেশকে সহায়তা দিতে আগ্রহী মিশর করোনার ভয় আর আতঙ্ক নিয়েই ১ জুন খুলছে উপাসনালয় এবং ৮ জুন থেকে পশ্চিমবঙ্গের সব অফিস চীন ভারত যুদ্ধে, ভারতের পক্ষে দাঁড়ানোর ইঙ্গিত রাশিয়ার করোনাভাইরাসে শত বছর আগের মহামন্দার পরিস্থিতি ফিরিয়ে আনতে পারে -জাতিসংঘ মহাসচিব লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশি হত্যাকাণ্ডের তদন্ত শুরু করেছে দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় পঞ্চগড়ে করোনায় আরো ১ জনের মৃত্যু মানব সেবায় নিয়োজিত নবগ্রাম জনকল্যাণ ট্রাস্ট সেবাশ্রম বগুড়ায় মা কে সাথে নিয়ে বাবাকে হত্যা, ১ বছর পর গলিত লাশ উদ্ধার ছেলে বউয়ের নিষ্ঠুর অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে প্যাসেঞ্জার টার্মিনালে মা ফায়ার সার্ভিসের ৯৭ জন করোনায় আক্রান্ত, সুস্থ ১০ জন

বিশ্ব মা দিবসে মাকে নিয়ে স্মৃতিচারণ

বিশ্ব মা দিবস

রাই-কিশোরীঃ  যদিও মাকে ভালোবাসা-শ্রদ্ধা জানানোর জন্য কোন দিনক্ষণের প্রয়োজন হয় না- তবুও মাকে গভীর মমতায় স্মরণ করার দিন আজ। সবচেয়ে পবিত্র, মধুর ও ছোট্ট একটা শব্দ ‘মা’। মায়ের ভালোবাসা পেতে প্রয়োজন হয় না ভালোবাসি বলা। সুখে-দুঃখে প্রতিটি সময় মায়া স্নেহ ভালোবাসায় যিনি জড়িয়ে রাখেন, তিনিই মা। আজ বিশ্ব মা দিবস। বিশ্ব মা দিবসে মাকে নিয়ে স্মৃতিচারণ।

প্রতি বছর মে মাসের দ্বিতীয় রোববার বিশ্ব মা দিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে। শুধু মানুষ হিসেবে মাই সন্তানকে ভালবাসে এমন নয়। প্রতিটা প্রাণীর মধ্যে মা তার সন্তানকে সকল আপদ-বিপদ, ঝড়-ঝাপটা থেকে আগলে সমস্ত স্নেহ মমতা দিয়ে ভালবাসে।

বাঙালিদের কাছে প্রতিটি দিনই মা দিবস। আজ সকাল থেকেই অনেক সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারকারী যার যার মাকে ভালোবাসা জানাচ্ছেন। মায়ের ছবি দিয়ে নিজের ভালোবাসা ও অভিব্যক্তি প্রকাশ করছেন। কিন্তু অনেকেই হয়তো জানেন না যে, কীভাবে এলো এই বিশ্ব মা দিবস!

জানা যায়, যুক্তরাষ্ট্রের আনা জার্ভিস ও তার মেয়ে আনা মারিয়া রিভস জার্ভিসের উদ্যোগে প্রথম মা দিবস পালিত হয়। আনা জার্ভিস মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বাল্টিমোর ও ওহাইওর মাঝামাঝি ওয়েবস্টার জংশন এলাকার বাসিন্দা ছিলেন। তার মা অ্যান মেরি রিভস জার্ভিস সারা জীবন অনাথদের সেবায় জীবন ব্যয় করেছেন। ১৯০৫ সালে মারা যান মেরি।

অনাথদের জন্য মেরির এই নিঃস্বার্থ উৎসর্গিত জীবনের কথা অজানাই থেকে যায়। লোকচক্ষুর অগোচরে কাজ করা মেরিকে সম্মান দিতে চাইলেন মেয়ে আনা জার্ভিস। তাই নতুন এক উদ্যোগ নেন তিনি।

অ্যান মেরি রিভস জার্ভিসের মতো দেশজুড়ে ছড়িয়ে থাকা সব মাকে স্বীকৃতি দিতে আনা জার্ভিস প্রচার শুরু করেন। তার সাত বছরের চেষ্টায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি পায় মা দিবস। ১৯১১ সাল থেকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিটি রাজ্যে মা দিবস পালনের ঘোষণা দেয়া হয়।

১৯১৪ সালের ৮ মে মার্কিন কংগ্রেস মে মাসের দ্বিতীয় রোববারকে মা দিবস হিসেবে ঘোষণা করে। তবে মা দিবসের প্রবক্তা আনা জার্ভিস দিবসটির বাণিজ্যিকীকরণের বিরোধিতা করে আসছিলেন তিনি।

তিনি বলেছিলেন, ‘মাকে কার্ড দিয়ে শুভেচ্ছা জানানোর মানে নিজ হাতে তার জন্য দুই কলম লেখার সময় না হওয়া। চকলেট উপহার দেয়ার অর্থ হলো- তা নিজেই খেয়ে ফেলা।’ এসব না করে এই দিনটিতে মায়ের জন্য এমন কিছু করতে অনুরোধ করেন তিনি যেন তা অর্থবহ হয়ে থাকে।

যাদের এই দিবসে মা নেই তারা কি করবেন? আসলে মায়েদের কোন বিশেষ দিবস হয় না, মাকে মনে করতে, অনুভব করতে কোন দিবসের প্রয়োজন হয়না ঠিকই। তবে যেহেতু এই দিনে সবাই মাকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন পোস্ট দেয়, তাদের নিয়ে স্মৃতিচারণ করে তাই যাদের মা নেই তাদের ও মন খারাপ হয়। তাই যেহেতু সে এই পৃথিবীতে নেই তাই তার জন্য স্রস্টার কাছে প্রার্থনা করা উচিত যেন তাকে পরপারে ভালো রাখেন।

শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

দি নিউজ এর বিশেষ প্রকাশনা

পুরাতন সংবাদ পডুন

SatSunMonTueWedThuFri
   1234
       
282930    
       
      1
       
     12
       
2930     
       
    123
25262728   
       
      1
9101112131415
30      
  12345
6789101112
272829    
       
   1234
2627282930  
       
1234567
891011121314
22232425262728
293031    
       
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৪-২০২০ || এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি
IT & Technical Support: BiswaJit
error: Content is protected !!