ঢাকা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

আবারও বেপরোয়া এমপি লিটন

admin
October 2, 2015 10:09 pm
Link Copied!

শেখ মামুনুর রশিদ, রংপুর অফিস: গাইবান্ধা-১ সুন্দরগঞ্জ আসনের সরকার দলীয় এমপি আবারও বেপরোয়া হয়েছেন। সংসদ সদস্য মঞ্জুরুল ইসলাম লিটনের এলোপাতারি গুলিতে সৌরভ নামে চতুর্থ শ্রেনির ছাত্র গুরুতর আহত হয়েছেন। তাকে প্রথমে সুন্দরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শুক্রবার সকাল পৌনে ৬টার দিকে সুন্দরগঞ্জ পৌর শহরের ব্র্যাক মোড়ের গোপালচরণ এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা জানান, এমপি লিটন গাড়িতে করে বামনডাঙ্গা থেকে সুন্দরগঞ্জ আসছিলেন। পথিমধ্যে উপজেলার ব্র্যাক মোড়ের পশ্চিমে গোপালচরণ এলাকায় পৌঁছালে তার গাড়ির সামনে দাড়িয়ে থাকা কয়েক জন শিশুকে দেখে দাড়িয়ে পড়ে এতে ভয় পেয়ে দৌড়ে পালাতে চাইলে তাকে লক্ষ্য করে এলোপাতারি গুলি ছুড়তে থাকলে সৌরভের দুই পা গুলিবৃদ্ধ হয়। সৌরভের বাড়ি সুন্দরগঞ্জ উপজেলার দহবন্দ ইউনিয়নের গোপালচরণ গ্রামে। তার বাবার নাম সাজু মিয়া। সে গোপালচরণ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র। প্রতিদিনের মতো এদিনও সৌরভ রাস্তায় বেয়াম করছিলেন। তবে স্থানীয়দের মধ্যে আরও জানান, এমপি লিটন ঘটনাস্থলে হঠাৎ আছিয়া বেগম (২২) নামে এক মহিলাকে তার গাড়িতে উঠতে জোরাজুরি করছিলেন। কিন্তু ওই মহিলা তার আচরণে ভীত সন্ত্রস্ত হয়ে দৌঁড়ে পালিয়ে যায় । এতে ক্ষীপ্ত হয়ে তিনি মহিলাকে লক্ষ্য করে পরপর দুই রাউন্ড গুলি ছোঁড়েন। কিন্তু তা লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়ে রাস্তায় জগিংরত সৌরভের দুই পায়ে গিয়ে লাগে। আশে পাশের লোকজন ছুটে এলে সংসদ সদস্য গাড়ি নিয়ে দ্রুত সরে পড়েন। পরে শিশুটিকে উদ্ধার করে সুন্দরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। তার শারিরীক অবস্থার অবনতি হলে তাকে দ্রুত রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সৌরভের চাচা সাজা মিয়ার জানায়, প্রতিদিন তিনি সৌরভকে নিয়ে রাস্তায় হাঁটাহাটি করে ব্যায়াম করেন। শুক্রবার ভোরেও তিনি সৌরভসহ কয়েকজনকে  নিয়ে রাস্তায় হাঁটছিলেন। কিন্তু এমপি লিটন হঠাৎ করে এসে কেন ওই ঘটনা ঘটালেন তা তার বোধগম্য নয়। এদিকে আহত শিশুটিকে রংপুর মেডিকেল এ নিয়ে যাওয়ায় পথে সংসদ সদস্যের নিজ এলাকা বামনডাঙ্গায় তার লোকজন গাড়িটি দীর্ঘক্ষণ আটক করে শিশুটিকে ছিনতাইয়ের চেষ্টা করেন । পরে খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে শিশুটিকে রংপুর পাঠানোর ব্যবস্থা করে। সুন্দরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত (ওসি- তদন্ত) জিন্নাত আলী গুলিতে শিশু আহতের বিষয়টি নিশ্চিত করলেও কিভাবে বা কে গুলি করেছে সে বিষয়ে কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি। তিনি জানান, খবর পেয়ে তিনি ঘটনাস্থলে গিয়েছিলেন। পুলিশের পক্ষ থেকে ঘটনাটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

সুন্দরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) আবদুল হাই মিলটন জানান, শিশুটিকে বহনকারী গাড়ি আটক করার কথা শুনে তিনি ঘটনাস্থলে যান। তবে শিশুর পায়ে গুলি লেগেছে কিভাবে এ বিষয়ে তিনিও নিশ্চিত নন। ঘটনার পরপর গাইবান্ধা জেলা প্রশাসক মো. আব্দুস সামাদ এবং পুলিশ সুপার মো. আশরাফুল ইসলাম ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেছেন। তবে জেলা প্রশাসক জানালেন, জড়িত যেই হন না ককেন তদন্ত সাপেক্ষ ব্যবস্থা নেয়া হবে ।

এদিকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের দায়ীত্বরত চিকিৎসক জানিয়েছেন, অপারেশন করে শিশুটির দুই পায়ের গুলি বের করা হয়েছে । শিশুটির দুটি পায়েই ঠিক হাটুর নিচে গুলিবিদ্ধ হয়েছে বলে জানান এই চিকিৎসক। ঔ ঘটনার পরপরই সাংসদ মঞ্জুরুল ইসলাম লিটনের নেতৃত্বে পুলিশের উপস্থিতে সর্বানন্দ ইউনিয়নের উত্তর সাহাবাজ গ্রামের হাবিজার রহমানের বসতবাড়িতে প্রবেশ করে অন্তত ১০ রাউণ্ড ফাকা গুলি ছুড়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে জোর পূর্বক তার বসতবাড়িসহ একাত্তর শতাংশ জমি পার্শবর্তী এক সেনা সসদস্যকে দখল দেয়ার অভিযোগ উঠেছে।

http://www.anandalokfoundation.com/