13yercelebration
ঢাকা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

সোনারগাঁওয়ে তিন মুসুল্লীকে কুপিয়ে জখম

admin
July 11, 2016 8:32 pm
Link Copied!

নারায়নগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সোনারগাঁওয়ে মসজিদের মুসুল্লীদের ওপর হামলা চালিয়েছে প্রতিপক্ষের লোকজন। এসময় হামলাকারীরা এক যুবলীগ নেতার দু’পায়ের রগ কেটে দেওয়াসহ অপর ২ জনকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে জখম করেছে।

গতকাল রোববার রাত পৌনে ৯ টার দিকে বাধা উপেক্ষা করে মসজিদে নামাজ পড়তে যাওয়াকে কেন্দ্র করে উপজেলার পিরোজপুর পশ্চিমপাড়া জামে মসজিদ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আহতদের মধ্যে যুবলীগ নেতা হান্নানকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, মাজহারুল ও বাবুকে উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় গতকাল সোমবার বিকেলে সোনারগাঁও থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের পিরোজপুর পশ্চিমপাড়া জামে মসজিদের পেশ ইমাম বাদ দেওয়া নিয়ে মসজিদ কমিটি সভাপতি আওয়ামীলীগ নেতা ফিরোজ্জামান মোল্লা ও সাধারন সম্পাদক বিএনপি নেতা শফিউল্লাহ বাচ্চুর মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। এ নিয়ে বিএনপি নেতা বাচ্চুর বড় ভাই নেয়ামত উল্লাহ গত কয়েকদিন ধরে স্থানীয় মুসল্লিদের ওই মসজিদে নামাজ পড়তে বাধা প্রধান করেন। এদিকে নেয়ামত উল্লাহর বাধাকে উপেক্ষা করে রোববার রাতে এশার নামাজ আদায় করতে মুসুল্লীরা মসজিদে যায়।

এসময় নেয়ামতউল্লাহ ক্ষিপ্ত হয়ে তার নেতৃত্বে হুমায়ন, আক্তার, জাহাঙ্গীর, মান্নান, রব, আলমগীর ও মোক্তারসহ ১৫-২০ জনের একটি দল দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে মুসুল্লীদের ওপর হামলা চালায়। পরে অনেক মুসুল্লীরা ছুটাছুটি করে মসজিদের ভেতর থেকে পালিয়ে যায়। পরে হামলাকারীরা মসজিদের ভেতরে থাকা যুবলীগ নেতা মো: হান্নান, মাজহারুল ও বাবুকে টেনে হেছড়ে মসজিদের বাহিরে বের করে এলোপাতারীভাবে পিটিয়ে ও কুপিয়ে জখম করে। একপর্যায়ে হামলাকারীরা যুবলীগ নেতা হান্নানের দু’পায়ের রগ কেটে দেয়। পরে এলাকাবাসী সংগঠিত হয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়।

এ ঘটনায় আহত মাজহারুল ইসলাম বাদী হয়ে ৯ জনের নাম উল্লেখ করে ১২ জনকে আসামী করে গতকাল সোমবার বিকেলে সোনারগাঁও থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় এক মুসুল্লী জানান, জিহাদী বয়ান করাকে কেন্দ্র করে মসজিদের ইমাম বাধ দেওয়ার ঘটনায় দুটি পক্ষ তৈরী হয়। এ ঘটনায় একটি পক্ষ ক্ষিপ্ত হয়ে মসজিদে নামাজ পড়তে বাধা দেয়। বাধা উপেক্ষা করায় এ হামলা চালানো হয়।

আহত মাজহারুল ইসলাম জানান, হামলাকারীরা স্থানীয় হেফাজত মামলার আসামী। তারা বিভিন্ন সময় এলাকায় সন্ত্রাসী কর্মকান্ড পরিচালনা করে থাকে।

মসজিদ কমিটির সভাপতি ও পিরোজপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ফিরোজ্জামান মোল্লা জানান, মাদকাসক্ত নেয়ামতের বাধাকে উপেক্ষা মুসুল্লীরা মসজিদে নামাজ পড়তে যাওয়ায় এ হামলা চালিয়েছে।

মসজিদ কমিটি সাধারন সম্পাদক ও বিএনপি নেতা শফিউল্লাহ বাচ্চু অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ঘটনার সময় তিনি ঢাকায় ছিলেন। তবে মসজিদে কোন হামলার ঘটনা ঘটেনি। হাতাহাতি হয়েছে বলে তিনি দাবী করেন।

সোনারগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাহ মোঃ মঞ্জুর কাদের পিপিএম জানান, মসজিদে হামলার খবর শুনে ঘটনাস্থলে পুলিশ যাওয়ার পর পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। বর্তমানে পরিস্থিত শান্ত রয়েছে । এ ঘটনায় গতকাল সোমবার থানায় একটি মামলা নেয়া হয়েছে। অপরাধীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

http://www.anandalokfoundation.com/