13yercelebration
ঢাকা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ঠাকুরগাঁওয়ে ডিবি’র আতঙ্কে রয়েছে মাদক ব্যবসায়ীরা

admin
October 25, 2015 4:36 pm
Link Copied!

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি। ঠাকুরগাঁও জেলায় মাদকবিরোধী অভিযানে সফল ডিবি পুলিশ। ডিবি পুলিশের মাদকবিরোধী অভিযানে ‘মাদক জোন’ বলে পরিচিত এলাকাগুলো এখন মাদক শূন্য বলা চলে। এ অবস্থায় জেলার মাদক ব্যবসায়ীরাও রয়েছে আতংকে ।

ঠাকুরগাঁও জেলায় নতুন পুলিশ সুপার ফারহাত আহমেদ আশার পর থেকেই শহরে মাদক কমে গেছেই বললেই চলে। তার নির্দেশনা ও তত্বাবধানে ঠাকুরগাঁও জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) জেলায় গত এক মাসে একাধিক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে। এছাড়াও পুলিশ সুপারের নেতৃত্বে জেলায় প্রতিদিন বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে।

ডিবি পুলিশের তথ্য মতে, গত এক মাসে বিভিন্ন অভিযানে ২১ জন আসামীকে আটক করে বিজ্ঞ আদালতে দেওয়া হয়েছে এবং এসব মাদক ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে ১৭১ বেতল ভারতীয় ফেন্সিডিল, ১৭ বোতল বিদেশী মদ, ২১টি নেশাজাতীয় ইনজেকশন, নেশাজাতীয় ট্যাবলেট, ৪৪৬ পিছ ইয়াবা ট্যাবলেট, ১ কেজি ৭০০ গ্রাম গাঁজা, চোরাইমদ, হেরোইন সহ বিভিন্ন মাদকদ্র্য উদ্ধার কার হয়েছে।

উল্লেখ্য গত ১২/১০/২০১৫ ইং তারিখে  ৫০০ গ্রাম গাঁজা সহ বাবুল হোসেন নামের একজনকে আটক করেছে ডিবি পুলিশ। এই ব্যবসায়ীকে আটক করার ফলে বিভিন্ন অনলাইন পত্রিকায় ডিবি পুলিশের নামে নানা রকমের মন্তব্য করেছে অনেকে। অথচ আসামী বাবুলের বিরুদ্ধে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তরের ৯নং জি.আর ২৪৪/১৫  বিজ্ঞ আদালতে বিচারাধীন। এছাড়াও  তার মোবাইল কোর্টে ১ বছরের সাজা প্রাপ্ত হয়েছিলো। তাকে গ্রেফতারের ফলে এলাকাবাসি অনেক সন্তোষ প্রকাশ করেছে।

হাজীপাড়া পাড়া মহল্লার কামরুল হাসান জানান, এক সময় জেলায় মাদক ব্যবসায়ীদের সংখ্যা অনেক বৃদ্ধি পেয়েছিল এতে আমরা আমাদের সন্তানদের নিয়ে খুব দুঃশ্চিন্তায় ছিলাম। মন্দির পাড়া নিবাসি জয় মহন্ত বলেন, আগে যেখানে সেখানে দিনদুপুরে মাদক ব্যবসায়ীদের মাদকদ্রব্য বিক্রি করতে দেখা যেতো। এতে যুব সমাজ ধ্বংসের দিকে ঝুকে পড়েছিল। বর্তমানে পুলিশের তৎপরতায় জেলায় মাদক ব্যবসা অনেকাংশে কমে গেছে।

এই ব্যাপারে ঠাকুরগাঁও জেলার এসপি সার্কেল এ.কে আজাদ বলেন, দীর্ঘদিন থেকে মাদক ব্যবসায়ীদের দমন করতে আমাদের পুলিশের বিশেষ একটি টিম (ডিবি) দিনরাত  অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে । আশা করি এই জেলায় মাদক জিরো টলারেন্সে আসবে।

এই ব্যাপারে ডিবি পুলিশের ওসি রেজাউল করিম জানান, বর্তমান পুলিশ সুপার যোগদান করার পর থেকে মাদক ব্যবসায়ীরা আতংকে রয়েছে। তিনি যোগদান করার পর থেকে জেলায় প্রতিদিন বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে।

এ ব্যাপারে পুলিশ সুপার ফারহাত আহমেদ বলেন, মাদক ব্যবসা বন্ধে পুলিশ সর্বদা কাজ করে যাচ্ছে। মাদক ব্যবসায়ীরা যে দলের হোক না কেন কোন ছাড় দেয়া হবে না।

http://www.anandalokfoundation.com/