13yercelebration
ঢাকা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

জুমার নামাজের সময় কাবুলের মসজিদে বোমা বিস্ফোরণে নিহত ৪, আহত ১০

ডেস্ক
September 23, 2022 7:41 pm
Link Copied!

কাবুলের ওয়াজির আকবর খানে একটি মসজিদে জুমার নামাজের সময় বোমা বিস্ফোরণে অন্তত চারজন নিহত ও আহত হয়েছেন আরও ১০ জন।  ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা যায়।

আজ শুক্রবার আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের গুরুত্বপূর্ণ এলাকা ওয়াজির আকবর খানের একটি মসজিদে জুমার নামাজের সময় এমন বোমা বিস্ফোরণ ঘটে।

জানা যায়,  জুমার নামাজ শেষে মুসল্লিরা যখন মসজিদ থেকে বেরিয়ে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। বিস্ফোরণে হতাহতের সংখ্যা এখনও জানা যায়নি, কিন্তু শুক্রবার ওই মসজিদটিতে যারা জুমার নামাজ পড়তে গিয়েছিলেন তারা সবাই বেসামরিক। ঘটনার পর তালেবান সরকারের নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা সেই এলাকাটি ঘিরে ফেলেন এবং যান চলাচল বন্ধ করে দেন।

কাবুল পুলিশের মুখপাত্র খালিদ জাদরান বলেন, নামাজের পর মুসল্লিরা মসজিদ থেকে বেরিয়ে আসার সময় বিস্ফোরণ ঘটে। হতাহতদের সঠিক সংখ্যা এখনো স্পষ্ট নয়। তারা সবাই বেসামরিক নাগরিক।

স্থানীয় একটি হাসপাতাল জানিয়েছে, বিস্ফোরণের পর তাদের কাছে ১৪ জনকে নেওয়া হয়, যাদের মধ্যে চারজন পৌঁছানোর আগেই মারা গেছেন।

আফগান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আব্দুল নাফি টাকোর বলেছেন, মসজিদের কাছে প্রধান সড়কে বিস্ফোরণটি ঘটে। এর কারণ তদন্ত করা হচ্ছে।

এদিকে, আফগান সংবাদমাধ্যম টোলো নিউজের খবরে বলা হয়েছে, নিরাপত্তা বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে এবং রাস্তা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, বিস্ফোরণটি ঘটেছে একটি ম্যাগনেটিক বোমার কারণে।

এখন পর্যন্ত কোনো ব্যক্তি ও গোষ্ঠী হামলার দায় স্বীকার করেনি। তবে ধারণা করা হচ্ছে, আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসীগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের (আইএস) আফগানিস্তান শাখা আইএস-খোরাসান (আইএস-কে) এই হামলার জন্য দায়ী।

কাবুল পুলিশের মুখপাত্র খালিদ জাদরান বলেন, নামাজের পর মানুষ যখন মসজিদ থেকে বেরিয়ে আসছিল তখন একটি বিস্ফোরণ ঘটে। হতাহতরা সবাই বেসামরিক নাগরিক, সঠিক সংখ্যা এখনও স্পষ্ট নয়।

ওয়াজির আকবর খান এলাকাটি কাবুলের ‘গ্রিন জোন’ বা অভিজাত এলাকা হিসেবে পরিচিত। ২০২১ সালে তালেবান বাহিনী আফগানিস্তানের ক্ষমতা পুনর্দখলের আগ পর্যন্ত এই এলাকায় অনেক দেশের দূতাবাসের পাশপাশি ন্যাটোর একটি দপ্তরও ছিল। এখন অবশ্য ওই এলাকা পুরোপুরি তালেবান নিয়ন্ত্রিত।

http://www.anandalokfoundation.com/