13yercelebration
ঢাকা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ইজরায়েলের উপর ইরানের ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা, ঠেকিয়ে দিয়েছে আমেরিকা ও ব্রিটেন

Link Copied!

বাংলা নববর্ষের দিন ইজরায়েলের উপর ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে ইরান। তবে ইরানের ড্রোনগুলো মাঝ আকাশেই ধ্বংস করে দিয়েছে আমেরিকা এবং এই কাজে সহযোগিতা করেছে তাদের মিত্র ব্রিটেন। ফলে ইসরায়েলের ক্ষয়ক্ষতি হয়নি বললেই চলে, শুধু একজন মেয়েশিশু সামান্য আহত হয়েছে।

এই হামলার বিষয়ে আমেরিকা আগে থেকেই সতর্ক করে দিয়েছিল ইসরায়েলকে। যদিও ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর সঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইজানের সম্পর্ক ইদানিং ভালো যাচ্ছে না।

জাতির উদ্দেশ্যে দেয়া ভাষণে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু বলেছেন, “ইরানের সরাসরি হামলার জন্য সাম্প্রতিক বছর ও সপ্তাহগুলো ধরে ইসরায়েল প্রস্তুতি নিয়েছে। আমরা যে কোন পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য প্রস্তুত। ইসরায়েল রাষ্ট্র শক্তিশালী। আইডিএফ শক্তিশালী। জনগণ শক্তিশালী।”

বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু একই সঙ্গে বন্ধু আমেরিকা ও ব্রিটেনকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন পাশে থাকার জন্য। তিনি আরও বলেছেন, “আমার নীতি পরিষ্কার। যেই আমাদের ক্ষতি করবে, আমরা তাদের ক্ষতি করবো। যে কোন হুমকির মুখে আমরা আমাদের রক্ষা করবো।”

ইসরায়েলের অনুরোধে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ আজ জরুরি বৈঠক করবে। আমেরিকার সময় বিকেল চারটার দিকে এ বৈঠক হবে। ইরাক, জর্ডান, লেবানন ও ইসরায়েল সাময়িকভাবে তাদের আকাশসীমা বন্ধ করে রেখেছে। কয়েকটি বিমান সংস্থা ওই অঞ্চলে ফ্লাইট চলাচল স্থগিত করেছে।

আমেরিকার প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন জানিয়েছেন, ইরানের জঘন্য হামলার সমন্বিত কূটনৈতিক জবাব দিতে ― রবিবার পৃথিবীর ধনী ও উন্নত রাষ্ট্রগুলোর এলিট ক্লাব G -7 নেতাদের সাথে আলোচনা করবেন। উল্লেখ্য G -7 ভুক্ত রাষ্ট্রগুলো হচ্ছে আমেরিকা, জাপান, জার্মানি, ব্রিটেন, ফ্রান্স, ইতালি ও কানাডা।

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক ইরানের হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়ে, ইসরায়েলের নিরাপত্তা অক্ষুণ্ণ রাখতে পাশে থাকার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন। হামলার নিন্দা করে দেয়া বিবৃতিতে জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্টনিও গুতেরেস সব পক্ষকে সর্বোচ্চ সংযম প্রদর্শনের আহবান জানিয়েছেন।

পৃথিবীর অপর সুপার পাওয়ার চীন, উভয়পক্ষকে শান্ত থাকতে বললেও – এই হামলার নিন্দা জানায়নি। সাম্প্রতিক কালে মধ্যপ্রাচ্যের উপর চীনের প্রভাব যথেষ্ট বেড়ে গেছে। ইরান ও সৌদি আরবের মধ্যকার উত্তেজনা প্রশমনে মধ্যস্থতা করছে চীন।

ইরানের উপর ইজরায়েল বা আমেরিকা পাল্টা হামলা চালাবে কিনা, সেটা এখনো পরিষ্কার নয়। তবে ইউক্রেনের মাটিতে রাশিয়ার চলমান আগ্রাসনের মধ্যে – মধ্যপ্রাচ্যের এই উত্তেজনাকর পরিস্থিতি, বিশ্ব অর্থনীতির উপর প্রভাব ফেলতে পারে।

http://www.anandalokfoundation.com/