ঢাকা

সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলা প্রশাসনে ৫ নারী কর্মকর্তার সাফল্য

Link Copied!

সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলা প্রশাসনে ৫ নারী কর্মকর্তার সাফল্য। দীর্ঘ দিন পরে কলারোয়া উপজেলা প্রশাসনে ৫নারী কর্মকর্তার কর্মদক্ষতায় সাফল্য অর্জন করেছেন। ওই ৫কর্মকর্তা নিরালসভাবে জনসাধারনে সহযোগিতা ও কাজকর্ম করে এলাকাবাসীর মনে সফল কর্মকর্তা হিসাবে আস্তা অর্জন করেছেন।

সফল কর্মকর্তাদের মধ্যে রয়েছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুলী বিশ্বাস। তিনি কলারোয়াতে ২০২২ সালের ৮মে তিনি কলারোয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দায়িত্ব নেন। কর্মকর্তার মধ্যে ব্যতিক্রম জনবান্ধব, পরিশ্রমী কলারোয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুলী বিশ্বাস। তার সততা ও কর্মদক্ষতায় পাল্টে গেছে কলারোয়া উপজেলা পরিষদের প্রশাসনিক কার্যক্রম ও সার্বিক চিত্র। সরকারি-বেসরকারি প্রতিটি দপ্তরের কর্মকান্ডে ফিরে এসেছে গতিশীলতা ও স্বচ্ছতা। কমেছে জনভোগান্তি আর বৃদ্ধি পেয়েছে জনসেবার মান। কলারোয়া উপজেলায় যোগদান করে অল্প দিনেই তাঁর সততা ও কর্মদক্ষতায় পাল্টে গেছে উপজেলা পরিষদের প্রশাসনিক কার্যক্রম।

কলারোয়া উপজেলাকে একটি উন্নত আধুনিক জনপদ হিসেবে গড়ে তুলতে নিরালসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন তিনি। জনবান্ধব এই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কর্মকান্ডে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন উপজেলার সকল জনপ্রতিনিধি, গণমাধ্যমকর্মী ও সমাজের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ। তিনি কলারোয়া উপজেলা প্রশাসনকে নিজের মতো করে ঢেলে সাজান। তাঁর সততা ও কর্মদক্ষতায় উপজেলা পরিষদের নিয়ন্ত্রণাধীন প্রতিটি
সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকান্ডে স্বচ্ছতা ও গতিশীলতা ফিরে আসতে শুরু করেছে। কমে যায় জনভোগান্তি আর বৃদ্ধি পায় জনসেবার মান।

উপজেলার যেকোনো অবৈধ ও অন্যায় কাজের বিরুদ্ধে তিনি সবসময় সোচ্চার। তিনি কোনো অভিযোগ পেলে তার সত্যতা সম্পর্কে নিশ্চিত হয়ে তৎক্ষণাৎ ব্যবস্থা নেন। তাছাড়া সুবিধাবঞ্চিত মানুষের সেবা, জনগণকে সচেতন করে তোলা, সর্বমহলে ব্যাপক প্রশংসিত হয়েছেন। ভূমিহীন ও গৃহহীনদের জন্য সরকারিভাবে ঘর নির্মাণ এবং বর্তমান সরকারের বিভিন্ন প্রকল্প বা সরকারি দান-অনুদান সরেজমিন পরিদর্শন করে তা শতভাগ বাস্তবায়ন করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

ইউএনও রুলী বিশ্বাস এর এসব সাফল্যের বিষয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে কলারোয়া পৌরপ্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক জুলফিকার আলী বলেন- সরকারের একজন উচ্চপদস্থ দায়িত্বশীল প্রশাসনিক কর্মকর্তা এবং মানবসেবক হিসেবে ইউএনও স্যার অসাধারণ একজন মানুষ। সরকারের অর্পিত প্রতিটি দায়িত্ব পেশাদারিত্বের সাথে তিনি সঠিক ভাবে পালন করে যাচ্ছেন। তার ভালোবাসা এবং সততায় কলারোয়ার
আপামর জনসাধারণ মুগ্ধ।

ইউএনওর কাজের প্রসংশা করতে গিয়ে উপজেলা আ.লীগের সভাপতি ও সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফিরোজ আহম্মেদ স্বপন বলেন, ইউএনও সাহেব যেভাবে মানুষের সাথে মিশে গেছে সত্যিই অভাক হওয়ার মতো। তিনি সাধারণ মানুষের অন্তরে স্থান করে নিয়েছেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুলী বিশ্বাস বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত ভিশন বাস্তবায়ন ও কলারোয়া একটি আধুনিক উন্নত উপজেলা হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছি। এটি আমার নৈতিক দায়িত্ব। স্থানীয় সংসদ সদস্য স্যারের সহযোগিতা, আমাদের জেলা প্রশাসক স্যার, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক এবং সমাজের বিশিষ্টজনেরা সব সময় আমার কাজে সহযোগিতা করছেন প্রকৃতপক্ষে ভালো কাজ করলে সবাই সহযোগিতা করেন। সর্বোপরি মানুষের জীবনযাত্রার মান উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছি।

অন্য চার কর্মকর্তা হলেন-উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) তাহমিনা সুলতানা নীলা, উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা নুরুন নাহার আক্তার, উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তার এছমত আরা বেগম, কলারোয়া উপজেলা পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক এর সিনিয়র উপজেলা কর্মকর্তা (শাখা ব্যবস্থাপক) সিরিন সুলতানা। এই ৫নারী কর্মকতার সহযোগিতায় চলছে উপজেলা প্রশাসনের স্ব স্ব দপ্তারিক জনসেবার উন্নয়ন কাজ।

http://www.anandalokfoundation.com/