13yercelebration
ঢাকা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

সরকারের সাফল্যে বিএনপি ঈর্ষান্বিত

admin
October 2, 2015 8:36 am
Link Copied!

স্টাফ রিপোর্টারঃ আ.লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য, স্বাস্থ্যমন্ত্রী  মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, সরকারের সাফল্যে বিএনপি ঈর্ষান্বিত। বাঙালি কোন বড় ধরনের অর্জন করলেই বিভ্রান্তিমূলক কথা বলা বিএনপির চরিত্র।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে স্থানীয় সংসদ সদস্য ও নেতাদের সঙ্গে  বৈঠক  শেষে তিনি এ কথা বলেন।নাসিম বলেন, ৩ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী  শেখ হাসিনাকে দেয়া গণসংবর্ধনা একটি ঐতিহাসিক ঘটনা। ধর্ম,  গোত্র, দল, মত নির্বিশেষে সর্বস্তরের মানুষকে ওই দিন দুপুর ১২টার মধ্যে নির্ধারিত স্থানে সমবেত হবার আহ্বানও জানান তিনি।নাসিম জানান,  শেখ হাসিনা জলবায়ু পরির্তনজনিত ক্ষতি মোকাবেলায় সাফল্যের স্বীকৃতিস্বরূপ জাতিসংঘ  থেকে পুরস্কৃত হয়ে ৩ অক্টোবর  বেলা  দেড়টায়  দেশে ফিরবেন। ওই দিন বিমানবন্দর  থেকে গণভবন পর্যন্ত রাস্তার দু’পাশে দাঁড়িয়ে আমরা প্রধানমন্ত্রীকে গণসংবর্ধনা  দেব।গণসংবর্ধনায় স্থানীয়  নেতারা  খোলা জিপে (গাড়ি) থাকবেন যাতে করে সুশৃংখলভাবে প্রধানমন্ত্রীকে সংবর্ধনা দেয়া যায়।

মির্জা ফখরুল ইসলামের বক্তব্যের প্রেক্ষিতে নাসিম বলেন, জাতিসংঘের ৭০তম অধিবেশনে বিশ্ব নেতারা  শেখ হাসিনার প্রতিটি ক্ষেত্রে এগিয়ে যাওয়ার বিষয়ে প্রশংসা করেছেন। তার সফল  নেতৃত্বে জঙ্গিবাদ বন্ধ হয়েছে, দারিদ্র্য নিরসন হয়েছে।শেখ হাসিনার সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সবাইকে শরীক হবার আহবান জানিয়েছেন মোহাম্মদ নাসিমতিনি বলেন, এই অর্জন কোন দলের একার নয়। প্রধানমন্ত্রীর এই অর্জন সমগ্র জাতির। তাই আমি দল, মত, জাতি, বর্ণ নির্বিশেষে সবাইকে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে শরীক হতে আহবান জানাচ্ছি।জাতিসংঘের পরিবেশ বিষয়ক সর্বোচ্চ পুরষ্কার ‘চ্যাম্পিয়ন অব দ্য আর্থ’ এবং ‘আইসিটি টেকসই উন্নয়ন পুরস্কার’ লাভ করায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে গণসংবর্ধনার দেবার প্রস্তুত উপলক্ষে এই যৌথ সভার আয়োজন করা হয়। আগামী ৩ অক্টোবর বেলা ১টা ৩০ মিনিটে শেখ হাসিনাকে এই সংবর্ধনা দেওয়া হবে।

আওয়ামী লীগের সাথে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র, ঢাকা মহানগরের অন্তর্গত আওয়ামী লীগ দলীয় জাতীয় সংসদ সদস্যরা এবং গাজীপুর জেলা, গাজীপুর মহানগর, সাভার, আশুলিয়া, কেরানীগঞ্জ ও রূপগঞ্জ আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকগণ এবং ঐ সকল এলাকার স্থানীয় জাতীয় সংসদ সদস্যদের সাথে এই যৌথসভা অনুষ্ঠিত হয়।বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এক বক্তব্যের জবাবে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, যখন বাঙ্গালী জাতি কিছু অর্জন করে, তখন এই দলটি সে ভাল কাজের প্রসংশা না করে জতিকে বিভ্রান্ত সৃষ্টির চেষ্টা করে। এরা আসলে ভাল কাজের প্রসংশা করতে জানে না।

এক প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য বলেন, প্রধানমন্ত্রীকে দেওয়া সংবর্ধনার কারনে যাতে সাধারণ মানুষকে দুর্ভোগে পরতে না হয়, সে জন্য আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল হানিফের নেতৃত্বে একটি কমিটি করা হয়েছে। এই কমিটির সকল কিছু তদারকি করবেন। এর আগে মোহাম্মদ নাসিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ ও এডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীর বিক্রম, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, সম্পাদকমন্ডলীর সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাক, এডভোকেট আফজাল হোসেন, অসীম কুমার উকিল, মৃণাল কান্তি দাস, কার্যনির্বাহী সদস্য সুজিত রায় নন্দী প্রমুখ।

http://www.anandalokfoundation.com/