13yercelebration
ঢাকা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

যশোরে শীতের শুরুতে খেজুর গাছ থেকে রস আহরণের ধুম পড়েছে

admin
November 30, 2017 11:53 am
Link Copied!

যশোর থেকে ই.আর.ইমনঃ  বাংলার প্রকৃতি থেকে ইতিমধ্যেই আশ্বিন মাস গত হয়ে চলছে কার্তিক মাস। তবে এবার আশ্বিনের শেষ দিক থেকেই যশোরসহ আশপাশের অঞ্চল জুড়ে শীতের আবহ বিরাজ করছে। খেজুর রসের জন্য বিখ্যাত যশোরের গাছিরা রস আহরণে ব্যস্ত সময় পার করছে।

যশোরর খাজুরা, মনোহরপুর, সুলতানপুর,তালবড়ীয়া, পালবাড়ী,কেশবপুর, মনিরামপুরসহ বিভিন্ন অঞ্চল ঘুরে দেখা গেছে, শীতের আগমনী বার্তা পেয়ে খেজুর রস সংগ্রহের জন্য বস্ত গাছিরা। তারা খেজুর গাছ পরিস্কার করতে শুরু করেছে। খেজুরের গাছ তৈরির কাজ পুরোপুরি শেষ না হলেও কিছু এলাকায় চলছে রস সংগ্রহের পালা। ফলে গ্রামবাংলার ঐতিহ্যের প্রতীক খেজুর গাছকে ঘিরে গ্রামীণ জনপদে শুরু হয়েছে উৎসবমুখর পরিবেশ। দেখা যায়, প্রত্যন্ত অঞ্চলের ছোটবড় বিভিন্ন খেজুর গাছ ঝুঁকি নিয়ে গাছিরা কাটার কাজ শেষ করেছে। কোমরে মোটা রশি বেঁধে গাছে ঝুলে ঝুলে রস সংগ্রহের জন্য ব্যস্ত হয়ে পড়েছে তারা। পেশাদার গাছিদের তেমন কোন সমস্যা না হলেও রস সংগ্রহের জন্য স্থানীয় এক শ্রেণীর উৎসুক মানুষও পিছিয়ে নেই। তারা গাছে ওঠা-নামা করছে রস সংগ্রহের জন্য।

জেলার গ্রামের মাঠে পথের ধারে রয়েছে প্রচুর খেজুর গাছ। খেজুর রস সংগ্রহ করে কিছুদিনের মধ্যে শুরু হবে আমন ধান ঘরে তোলার পালা। তখন নতুন ধানের পিঠা, পুলি ও পায়েস তৈরির ধুম পড়ে যাবে গ্রামে গ্রামে। তাছাড়া খেজুরের গুড় দিয়ে মুড়ির মোয়া, চিড়ার মোয়া ও মুড়ি খাওয়ার হিড়িক পড়ে যাবে। সদর উপজেলার সুলতানপুর গ্রামের গাছি মমিন, জাহিরুল, কাজেম জানান, গাছ কাটার কাজ কষ্টের হলেও রস সংগ্রহে মজা রয়েছে। আমরা খেজুরেরস থেকে গুড় তৈরি করে সেই গুড় বিক্রি করে পরিবার-পরিজন নিয়ে মোটামুটি ভালই থাকি। তারা জানান, শীতের তীব্রতা বাড়লে খেজুর রস আরও বেশি মিষ্টি হবে ও রস বেশি পাওয়া যাবে এবং গুড়ও তৈরি হবে বেশী পরিমান।

এ ব্যাপারে যশোর বন বিভাগের একজন কর্মকর্তা জানান, ‘সারা দেশের মধ্যে যশোরের খেজুর রসের আলাদা সুনাম রয়েছে। এজন্য বন বিভাগ থেকে অন্যান্য গাছের পাশাপাশি খেজুর গাছের চারা রোপন করা হয়।’ বড় বাজারের গুড় ব্যবসায়ী মোকলেসুর রহমান জানান, ‘আর কিছুদিন পরই পুরোদমে খেজুরের রস ও গুড় পাওয়া যাবে।শীতের পিঠা তৈরীর জন্য খেজুর রসের বিকল্প নেই।’

http://www.anandalokfoundation.com/