13yercelebration
ঢাকা
শিরোনাম

পাকিস্তানে অস্ত্র সরবরাহকারী চারটি প্রতিষ্ঠানকে নিষিদ্ধ করেছে আমেরিকা

আজ ২১ এপ্রিল রবিবার রাশিফল ও গ্রহদোষ দূর করার উপায়

আজ ২১ এপ্রিল (৮ বৈশাখ) রবিবারের দিনপঞ্জি ও ইতিহাসের এইদিনে

সন্ত্রাসী অপরাধে গ্রেপ্তারদেরও নিজেদের কর্মী দাবী করছে বিএনপি -পররাষ্ট্রমন্ত্রী

মন্দিরে আগুন ও দুই সহোদর নিহতের ঘটনায় অপরাধী যেই হোক কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না -ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রী

শান্তিচুক্তির পর থেকে পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলের সার্বিক উন্নয়নে অসামান্য পরিবর্তন ঘটেছে -জাতিসংঘে পার্বত্য সচিব

সাংবাদিকতার জন্য চমৎকার পরিবেশ তৈরি এবং তথ্য প্রবাহ অবারিত করতে চাই -তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী

আজকের সর্বশেষ সবখবর

বেনাপোল চেকপোষ্টসহ বিভিন্ন জায়গায় বিজিবি কর্তৃক পাসপোর্টযাত্রীরা পদে পদে হয়রানির শিকার

admin
September 20, 2016 6:49 pm
Link Copied!

বেনাপোল প্রতিনিধি: বেনাপোল চেকপোষ্ট সহ বিভিন্ন জায়গায় খোলা আকাশের নীচে রাস্তায় দাঁড়িয়ে সম্মানিত পাসপোর্টযাত্রীরা বিজিবি কর্তৃক পদে পদে হয়রানি হচ্ছে বলে একাধিক  অভিযোগ করেছে পাসেপার্টযাত্রীরা। ভারত ভ্রমন শেষে দেশে ফিরে কাষ্টমস গেট পার হওয়ার পর চলে তাদের পর হয়রানির পালা। রোদ বৃষ্টিতে দাঁড়িয়ে রাস্তার পর তল্লাশি আবার কোন কোন সময় পাশে ক্যাম্পে নিয়ে তাদের সাথে খারাপ আচারন করার মত ঘটনা ঘটছে বলেও একাধিক সুত্র দাবি করছে।

ভারত থেকে আসা পাসপোর্ট যাত্রী নীলা পারভীন জানায় তারা পরিবার সহ ভারত থেকে ফেরার পথে বেনাপোল কাষ্টমসে তাদের আনিত কিছু মালামাল দেখানোর পর গেট পার হলে চলে আবার বিজিবির তল্লাশি। রাস্তায় দাঁড়িয়ে তাদের সমস্থ ব্যাগ খুলে একটি একটি করে কেনাকাটা পন্য বের করে বিজিবিকে দেখাতে হয়েছে। তিনি আরো জানান, সুদুর কলকাতা থেকে এসে তাদের নিজ দেশে এসে পড়তে হচ্ছে হয়রানির শিকারে। ঢাকার  আলমগীর হোসেন জানান, কাষ্টমস পার হয়ে বিজিবিকে ব্যাগ খুলে দেখানোর পর আবার তাদের ৬ কিলোমিটার দুরে বিজিবির চেকপোষ্ট  আমড়াখালি নামক স্থানে যেয়ে দেখাতে হচ্ছে একই ভাবে ব্যাগ। তিনি জানান আমি একজন ইমপোর্টার ব্যবসায়িক কাজে আমার ভারতে যেতে হয় মাঝে মধ্যে কিন্তু বিজিবি কর্তৃক আমাদের পদে পদে হয়রানি হতে হয়। তিনি আরো জানান, আমড়াখালি পার হওয়ার পর আবার নতুনহাট, খাজুরা নামক স্থানে আমাদের বিজিবি তল্লাশি করে। ব্যাগ খুলতে খুলতে একেবারে নাজেহাল হয়ে যেতে হয়।

ঢাকার মুন্সীগঞ্জ এলাকার মনির হোসেন বলেন, সরকারের প্রশাশন তল্লাশি করুক এটা আমারা চাই। কিন্তু পদে পদে এক এক জায়গায় একই সংস্থার লোক তল্লাশি করছে এটা কোন ধরনে তল্লাশি। বিজিবির যদি চেক করার প্রয়োজন হয় তা হলে কাষ্টমসের সাথে একই জায়গায় তল্লাশি করলে ভালো হয়।

আমরা ও হয়রানির হাত থেকে রেহাই পাই। কিন্তু এটা না করে বিজিবি সারা ব্যাগের সুতা পর্যান্ত টেনে বের করে কখনো কাউকে বলে আপনার মাল গোছান কখনো কাউকে মালামাল চিজের স্লিপ ধরিয়ে দেয়।

বেনাপোল চেকপোষ্টের গেট পার হলে যে ভাবে বিজিবি কর্তৃক সম্মানিত পাসেপোর্টযাত্রীদের ডাকা হয় আবার কখনো তাড়িয়ে ধরে তল্লাশি করা হয় তা দেখে মনে হয় আমরা কোন সভ্য সমাজে বাস করি মন্তব্য করলেন চায়না খাতুন নামে এক পাসেেপার্টযাত্রী।

পাসেপার্টযাত্রীদের অভিযোগ ৫০০ টাকা ট্যাক্স দিয়ে বৈধ পথে যদি এ ভাবে হয়রানি হতে হয় তাহলে অবৈধ পথে যাতায়াত ভাল।

প্রতিদিন রাস্তায় দাঁড়িয়ে বিজিবির বেনাপোল চেকপোষ্টে পাসেপোর্টযাত্রী হয়রানি উপলদ্ধি করে উৎসুক জনতা। আর সচেতন মানুষ পসেপোর্টযাত্রীদের হয়রানি করায় তাদের ধিক্কার দেন। এ ছাড়া বেনাপোল ২২ নং গোডাউনের সামনে বড়আঁচড়ার মোড়ে সাদা পোশাকে মাঝে মধ্যে অটো ঠেকিয়ে বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশদের চেক করতে দেখা যায়। পাসেপোর্ট যাত্রী মিনু খাতুন জানান, আমার নিকট থেকে বেনাপোল পোর্ট থানার পরিচয়ে সাদাপোশাকের পুলিশ জোর করে সম্প্রতি ২২ নং গোডাউনের সামনে থেকে ২০০ টাকা উৎকোচ নিয়েছে।

http://www.anandalokfoundation.com/