ঢাকা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

জাতীয় পার্টি যশোর জেলা দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন

admin
September 12, 2015 8:08 pm
Link Copied!

যশোর প্রতিনিধিঃ পাঁচ বছর পর জাতীয় পার্টি যশোর শাখার দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন ১৩ সেপ্টেম্বর রোববার। সম্মেলনকে ঘিরে চলছে উৎসবমুখর পরিবেশ। শহরের মোড়ে মোড়ে কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতাদের ছবি সম্বিলিত তোরণ, ব্যানার ও ছোট-বড় প্যানা বোর্ডে সাজানো হয়েছে। সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উদ্ধোধন করবেন সংগঠনের চেয়ারম্যান সাবেক রাস্ট্রপতি হুসাইন মোহাম্মদ এরশাদ।

সম্মেলনকে সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে ইতোমধ্যে গঠন করা হয়েছে প্রস্তুতি কমিটি। কমিটিতে শরিফুল ইসলাম সরু চৌধুরীকে আহবায়ক ও মিনহাজুল আরেফিনকে সদস্য সচিব করে ৭১ সদস্য রয়েছে। সম্মেলন ঘিরে যশোর সদরসহ ৮টি উপজেলার দলের নেতাকর্মীদের মাঝে চলছে উৎসব আমেজ। এরমধ্যে শার্শা ও বাঘারপাড়া বাদে বাকি সকল উপজেলা কমিটি নতুন করে গঠন শেষ হয়েছে।

সম্মেলনে সভাপতি পদে প্রার্থী হিসেবে নাম শোনা যাচ্ছে যশোর জেলা জাতীয় পার্টিও সাবেক সভাপতি শরিফুল ইসলাম সরু চৌধুরী। তবে তার প্রতিদ্বন্দী কাউকে পাওয়া যায়নি। এ ব্যাপারে তিনি বলেছেন, সভাপতি পদে অন্য কোন প্রার্থী নেই। তিনি যদি নির্বাচিত হন তাহলে সংগঠনিক কাজের মাধ্যমে দল ও দেশের মানুষের মঙ্গলে কাজ করবেন। তদবির বা সুপারিশ নয় যোগ্যতার ভিত্তিতে সভাপতি পদে নির্বাচিত হওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

সাধারন সম্পাদক পদে প্রার্থী হিসেবে নাম শোনা যাচ্ছে জেলা জাতীয় পাটির সাবেক কমিটির সহসভাপতি এড. জহিরুল হক জহিরের। তিনি বলেন, দীর্ঘদিন ধরে জেপি’র সাথে আছি। বিভিন্ন সময়ে এ দলের নানা পদে দায়িত্বে ছিলাম। ২০০৮ সালে তিনি জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। এবারের কমিটিতে তিনি সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিত হয়ে দলকে আরও সুসংগঠিত করতে চান। পাশাপাশি এলাকার মানুষের জন্য জনবান্ধবমূলক কাজ করবেন বলে মন্তব্য করেন।

সাধারণ সম্পাদক পদে সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য সচিব ও যশোর সদর উপজেলার সভাপতি মিনহাজুল আরেফিনের নাম প্রার্থী হিসেবে শোনা যাচ্ছে। তিনি বলেন, তৃর্ণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের সমর্থনে দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত হতে চাই। কারণ জাতীয় পার্টি অনেকটা ঝিমিয়ে পড়া পড়েছে। দলের কাজকর্মে গতি ফিরিয়ে আনতে সকলকে সাথে নিয়ে কাজ করতে তিনি প্রার্থী হয়েছেন। তিনি নির্বাচত হলে এ অঞ্চলে জাতীয় পাটির জৌলুস ফিরিয়ে আনতে কাজ করবেন বলে জানান তিনি।

জেলা কমিটির সাবেক ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক তরুণ নেতা এড. আমির হোসেনও সাধারণ সম্পাদক পদে লড়ার ইচ্ছা পোষন করেছেন।

এ ব্যাপারে এড. আমির হোসেন বলেন, সরু চৌধুরী যোগ্য নেতৃত্ব চায় না। যার কারণে তিনি যোগ্য নেতৃত্বকে দূরে রেখে নিজের কজ্বায় দল পরিচালনা করতে চান।

সম্মেলনে ৮ উপজেলার বিভিন্ন পর্যায়ের ৭শ’ ৪০ জন কাউন্সিলর ভোট বা সমর্থন প্রদান করবে। পাশাপাশি সম্মেলনকে ঘিরে সাত থেকে আট হাজার নেতাকর্মীর উপস্থিতি ঘটবে বলে সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি সূত্রে জানা গেছে।

সম্মেলন সম্পর্কে যশোর সদর উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি আজিজুর রহমান বলেছেন, সম্মেলন উৎসবমূখর করতে নানা পরিকল্পনা চলছে। তিনি বলেন, প্রার্থী হিসেবে সভাপতি সরু চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক পদে মিনহাজুল আরেফিন নেতৃত্বে আসার সম্ভাবনা রয়েছে।

জেলা জাতীয় পার্টির সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাজিব হাসান বলেছেন, তিনি যশোরের বাইরে অবস্থান করায় সাধারণ সম্পাদক পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন। তবে এবারের সম্মেলন ভালমতই হবে। নতুন নেতৃত্ব স্থান পাবে এটাই আশা তার।

নেতাকর্মীরা জানিয়েছেন, ২০১০ সালের ২৩ নভেম্বর সর্বশেষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। দীর্ঘ ৫ বছর পর আবারও সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর যশোর জেলা কমিটির এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে ১শ’ ১০ সদস্য বিশিষ্ট মেয়াদ উত্তীর্ণ কমিটি বিলুপ্ত করে ২০১৪ সালের ২৬ ডিসেম্বর পার্টির সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি গঠন করা হয়।

এ দিকে, ১৩ সেপ্টেম্বর রোববার সকাল ১০টায় শহরের যশোর জিলা স্কুল মিলনায়তনে আয়োজিত  সম্মেলনে প্রধান অতিথি থাকবেন জাতীয় পাটির চেয়ারম্যান হুসাইন মোহাম্মদ এরশাদ। প্রধান বক্তা থাকবেন জাতীয় পাটির কেন্দ্রীয় মহাসচিব জিয়া উদ্দিন আহমেদ বাবলু এমপি। বিশেষ অথিথি থাকবেন সংগঠনের প্রেসিডিয়াম সদস্য ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, সুশীল শুভ রায়, আলহাজ্ব তাজ রহমান, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব এড.রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া। এতে সভাপতিত্ব করবেন শরিফুল ইসলাম সরু চৌধুরী

http://www.anandalokfoundation.com/