ঢাকা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

কমিশনকে ৩২ না হলেও ১৬টি দাঁত দিন

admin
August 16, 2015 10:18 pm
Link Copied!

স্টাফ রিপোর্টারঃ জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের ক্ষমতা বৃদ্ধি এবং স্বাধীনতা নিশ্চিত করার দাবি জানিয়ে কমিশনের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বলেছেন, ‘সরকারের কাছে অনুরোধ করছি যেন কমিশনকে ৩২টি না হলেও অন্তত ১৬টি দাঁত দেন। তাহলে কমিশন আরো ভালোভাবে কাজ করতে পারবে। মাঝে মাঝে কামড় দিতেও সুবিধা হবে।

রোববার দুপুরে সিরডাপ আন্তর্জাতিক কনফারেন্স সেন্টারে আয়োজিত কমিশনের দ্বিতীয় পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনার (২০১৫-২০১৬) ওপর এক পরামর্শ সভায় তিনি এ দাবি জানান। তিনি বলেন, ‘জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের মতো একটি প্রতিষ্ঠান শুধু বানালেই হবে না। এর ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে হবে। স্বাধীনতা নিশ্চিত করতে হবে। মিজানুর রহমান বলেন, ‘অনেকে বলেন, মানবাধিকার কমিশন নখদন্তহীন। এটি কোনো কাজে আসে না। তাই সরকারের উচিৎ এ প্রতিষ্ঠানকে আরো বেশি স্বাধীনতা দিয়ে ক্ষমতাশালী করা। ফেলানি হত্যার ন্যায় বিচার নিশ্চিত করার ব্যাপারে মিজানুর রহমান ভারতের মানবাধিকার কমিশনের হস্তক্ষেপ কামনা করে বলেন, ‘১৩ বছরের ফেলানিকে অন্যায়ভাবে ভারতের সীমান্তরক্ষীরা গুলি করে হত্যা করে। দুইবার বিচার চেয়েও তার বাবা ন্যায় বিচার পাননি।

এ ব্যাপারে ভারতের জাতীয় মানবাধিকার কমিশন কাজ করবে বলে আমি আশা প্রকাশ করি। মিজানুর রহমান সীমান্ত হত্যা বন্ধের জন্য ভারতীয় মানবাধিকার কমিশনের সুদৃষ্টিও কামনা করেন। জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সদস্য মাহফুজা খানম বলেন, ‘অনেক সীমাবদ্ধতার ভিতর দিয়ে আমরা দীর্ঘ ৫ বছর যাবৎ কাজ করেছি। আমাদের অর্থ অল্প, প্রশাসনিক লোকবল খুবই কম। শুধু কেন্দ্র নয় প্রতিটি বিভাগে মানবাধিকার কমিশনের একটি করে অফিস হওয়া উচিৎ। তিনি বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বাংলাদেশ পেতে হলে কমিশনকে আরো শক্তিশালী করতে হবে।

ড. মিজানুর রহমানের সভাপতিত্ব সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন, মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি, নেপালের জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সদস্য বিচারপতি প্রকাশ চন্দ্র শর্মা, ভারতের জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সদস্য বিচারপতি শ্রী ধর্মা মরগেসন, সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা রাশেদা কে চৌধুরী, জাতীয় মানবাধিকার কমিশন সদস্য ও কথা সাহিত্যিক সেলিনা হোসেন, দৈনিক ভোরের কাগজের সম্পাদক শ্যমল দত্ত প্রমুখ।

http://www.anandalokfoundation.com/