13yercelebration
ঢাকা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

‘বিএনপি-জামায়াত পাকিস্তানের এজেন্ট হিসেবে কাজ করেছে’

admin
January 5, 2018 11:16 pm
Link Copied!

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেছেন, বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া মামলায় শাস্তি থেকে বাঁচার জন্য দেশে বিশৃঙ্খলা তৈরি করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে চান। শুক্রবার সকালে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বাংলাদেশ ইউনাইটেড পার্টির উদ্যোগে আয়োজিত গণতন্ত্র রক্ষা, সন্ত্রাস ও জঙ্গি দমনে আলেম-ওলামা সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

হানিফ বলেন, ‘জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়া আদালতের কাঠগড়ায় রয়েছেন। এতিমের টাকা চুরি করায় এ মামলায় তার শাস্তি হবেই। আর তাই দেশে বিশৃঙ্খল পরিবেশ তৈরি করে সরকার পরিবর্তন হলেই কেবলমাত্র এ শাস্তি থেকে তিনি রেহাই পেতে পারেন। কিন্তু খালেদা জিয়ার সে আশা কখনো পূরণ হবেনা। দেশপ্রেমিক জনগণ যে কোনো মূল্যে বেগম জিয়ার ষড়যন্ত্র রুখে দেবে।’

তিনি বলেন, দেশে এমন একটি বিশৃঙ্খল পরিবেশ তৈরি করার জন্যই বিএনপি সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ করতে চেয়েছিল। হানিফ বলেন, জামায়াত গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারেনি বলেই বিএনপি নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করে নির্বাচনকে বানচাল করার ষড়যন্ত্র করেছিল।

আদালতের রায়ে জামায়াতের নিবন্ধন বাতিল হয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিএনপি ও জামায়াতের জন্ম হয়েছে পাকিস্তান থেকে। আর সেজন্যই দেশে যখন যুদ্ধাপরাধের মামলার রায় কার্যকর হয়েছিল তখন পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদে নিন্দা প্রস্তাব পাশ হয়েছিল।

হানিফ বলেন, বিএনপি জামায়াত বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় শত্রু। আর তাই তারা দেশের অগ্রগতি সহ্য করতে পারে না। তারা পাকিস্তানের এজেন্ট হিসেবে কাজ করছে। আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সংবিধান অনুযায়ী অনুষ্ঠিত হবে— উল্লেখ করে তিনি বলেন, কারো জন্য নির্বাচন যেমন বাধাগ্রস্থ হবে না তেমনি কারো জন্য নির্বাচন থেমেও থাকবে না।

নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করা না করা গণতান্ত্রিক অধিকার বলে উল্লেখ করে হানিফ আরো বলেন, বিএনপি-জামায়াতের যে কোনো ষড়যন্ত্রকে প্রতিহত করে দেশের গণতন্ত্রের বিজয়কে সুসংহত করতে সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।

ইউনাইটেড ইসলামিক পাটির সভাপতি মাওলানা ইসমাইল হোসাইনের সভাপতিত্বে সমাবেশে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ ও সিরাজুল ইসলাম মোল্লা এমপি।

http://www.anandalokfoundation.com/