13yercelebration
ঢাকা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বাংলাদেশ-ভারত যৌথ প্রশিক্ষণ এক্সারসাইজ সম্প্রীতি-১০ উদ্বোধন

Link Copied!

বাংলাদেশ এবং ভারতীয় সেনাবাহিনীর অংশগ্রহণে যৌথ প্রশিক্ষণ এক্সারসাইজ সম্প্রীতি-১০ এর উদ্বোধন হয়েছে। সোমবার (৬ জুন) যশোর সেনানিবাসে এ উদ্বোধন অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

জেনারেল অফিসার কমান্ডিং (জিওসি) ৫৫ পদাতিক ডিভিশন ও এরিয়া কমান্ডার যশোর এরিয়া মেজর জেনারেল মো. নূরুল আনোয়ার প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে প্রশিক্ষণের উদ্বোধন করেন। এ সময় ভারতীয় সেনাবাহিনীর ব্রিগেডিয়ার জেনারেল রূপেশ শেহগালের নেতৃত্বে ভারতীয় সেনাবাহিনীর অফিসার, জেসিও ও অন্যান্য পদবীর সেনাসদস্য এবং যশোর এরিয়ায় কর্মরত অফিসার, জেসিও ও অন্যান্য পদবীর সৈনিকরা উপস্থিত ছিলেন।

আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) পক্ষ থেকে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

আইএসপিআর এর পক্ষ থেকে বলা হয়, এক্সারসাইজ সম্প্রীতি-১০ বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে একটি গুরুত্বপূর্ণ দ্বিপাক্ষিক সামরিক সহযোগিতা ও উন্নয়নের প্রচেষ্টা। ২০১০ সাল থেকে এই অনুশীলনটি উভয় দেশ দ্বিপাক্ষিকভাবে আয়োজন করে আসছে। এই যৌথ অনুশীলনের প্রাথমিক উদ্দেশ্য হচ্ছে বাংলাদেশ ও ভারতের সেনাবাহিনীর মধ্যে বিদ্যমান ইতিবাচক সম্পর্ককে আরও সুদৃঢ় করা।

অনুশীলন সম্প্রীতির মাধ্যমে দুই দেশের সেনাবাহিনীর আন্তঃকার্যকারিতা, সন্ত্রাস দমন, মানবিক সহায়তা, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা এবং জাতিসংঘের অধীনে বেসামরিক নাগরিকদেরকে সুরক্ষা সহায়তা (ইউএনপিওসি) কার্যক্রমকে শক্তিশালী ও প্রসার করবে বলে আশা করা যায়।

আরও বলা হয়, অনুশীলনটি কমান্ড পোস্ট এক্সারসাইজ (সিপিএক্স) এবং ফিল্ড ট্রেনিং এক্সারসাইজ (এফটিক্স) হিসেবে অনুষ্ঠিত হবে। উভয় দেশ থেকে ২০ জন করে অফিসার কমান্ড পোস্ট এক্সারসাইজে (সিপিএক্স) এবং ১২ জন অফিসার, ৯ জন জুনিয়র কমিশন্ড অফিসার এবং ১২৯ জন অন্যান্য পদবির সৈনিক দ্বারা গঠিত ফিল্ড ট্রেনিং কোম্পানি এক্সারসাইজে (এফটিক্স) অংশগ্রহণ করছে।

অপারেশনাল কার্যক্রম ছাড়াও এই সময়ে কয়েকটি ক্রীড়া ও সামাজিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে। দুই সপ্তাহব্যাপী এই অনুশীলনটি আগামী ১৬ জুন সমাপ্ত হবে।

http://www.anandalokfoundation.com/