13yercelebration
ঢাকা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

নাঃগঞ্জ প্রেসক্লাবে শান্তি ও সহ অবস্থান বিষয়ক গোলটেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত

admin
November 18, 2016 5:35 pm
Link Copied!

বিশেষ প্রতিবেদকঃ  বাংলাদেশ মাইনোরিটি ওয়াচের উদ্যোগে সকল সম্প্রদায়ের মানুষের শান্তি ও সহ অবস্থান বিষয়ক এক গোলটেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ ১৮নভেন্বর নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাব মিলনায়তনে মানুষের শান্তি ও সহ অবস্থান বিষয়ক এ গোলটেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে।

উক্ত অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ মাইনোরিটি ওয়াচের সভাপতি এ্যাড.রবীন্দ্র ঘোষের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নাঃগঞ্জ জেলা পরিষদ প্রশাসক ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জেলা সভাপতি আব্দুল হাই, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনালের প্রসিকিউটর ব্যারিষ্টার তাপস কে. বল, নাঃগঞ্জ প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদক নাসিফ আশরাফ, বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোটের নির্বাহী সভাপতি এড.দীনবন্ধু রায়, প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর ও বি.ডি.এম.ডব্লিওর জেনারেল সেক্রেটারী মানিক চন্দ্র সরকার, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক রিপন দে, প্যানেল আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আমরা নাঃগঞ্জ বাসীর সভাপতি আলহাজ্ব নুরুদ্দীন আহমেদ, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ নাঃগঞ্জ জেলা প্রেসিডিয়াম সদস্য পিন্টু পিওরিফিকেশন, মহানগর প্রেসিডিয়াম সদস্য তাপস বড়ুয়া।

মনোনিত বক্তাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোটের সভাপতি সুভাষ সাহা, নাঃগঞ্জ জেলা পূজা উদযাপন পরিষদ মহানগর সাধারণ সম্পাদক শিপন সরকার (শিখন) হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ মহানগর সভাপতি লিটন কুমার পাল, জাগো হিন্দু পরিষদের জেলা সাধারণ সম্পাদক সুজন দাস, প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর টি.কে.পান্ডে সহ বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আগত অতিথিবৃন্দ। উক্ত অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন বাংলাদেশ সেন্টার ফর হিউম্যান রাইটস এন্ড ডেভলপমেন্ট এর নির্বাহী পরিচালক মাহবুল হক । প্রধান অতিথি বলেন মহান মুক্তিযোদ্ধের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে এদেশ স্বাধীন হয়েছে। এদেশ হিন্দু মুসলিম বৌদ্ধ খ্রিষ্টান সকলের। এখানে সকল ধর্মের মানুষ সহঅবস্থান করবে এটাই স্বাভাবিক। তার পরেও কিছু অবাঞ্চিত ঘটনা ঘটছে তা রোধে সরকার সজাগ দৃষ্টি রাখছে। তার প্রমাণ বাংলাদেশে জঙ্গিবাদী গোষ্ঠীকে সরকার কঠোর হস্তে দমন করে চলছে।

আমি মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর কাছে আপনাদের গোলটেবিল বৈঠকের যে দাবী ওঠে এসেছে তা তুলে ধরব। উপস্থিত অন্যান্য বক্তারা বলেন চলমান জাতিগত ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের উপর হামলা, নির্যাতন, জোরপূর্বক জমি দখল, মন্দির ও প্রতিমা ভাংচুর, বাড়িঘরে অগ্নি সংযোগ, লুটপাট, দেশত্যাগে বাধ্য করা সহ উল্লেখযোগ্য বাউফলে মা-মেয়েকে ধর্ষণ, বাগেরহাটে গৃহবধুকে হাত-পা বেধে ধর্ষণ, দিনাজপুরে শিশু পূজাকে পাশবিক নির্যাতন ও ধর্ষণ, গোবিন্দগঞ্জে সাঁওতাল পল্লিতে পুলিশী হামলা এবং চারজনের মৃত্যু, ঝালকঠিতে কালী মন্দিরে পূজা অর্চনা অবস্থায় হামলা,ফেসবুকের মাধ্যমে হিন্দু দেবীকে কটাক্ষ করে পোষ্ট, নাসিরনগরে বাড়িঘর, মঠ মন্দির ভাংচুর ও অগ্নি সংযোগসহ বিভিন্ন ঘটনায় অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি না হওয়ায় এবং অনেকেই আইনের আওতায় না আসায় দেশব্যাপী নির্যাতন নিপিড়নের ঘটনা ঘটে চলেছে।

এ অবস্থার একটি বিহীত হওয়া দরকার। শান্তি ও সহ অবস্থান এর লক্ষে সরকারের পাশাপাশি হিন্দু, মুসলিম, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান সহ সকল সম্প্রদায় একসঙ্গে কাজ করতে হবে। প্রয়োজনে নতুন কিছু আইন সংযুক্ত করে কঠোর শাস্তির বিধান রেখে আইন প্রনয়ণের দাবী জানান এবং সকল সম্প্রদায়ের সমন্বয়ে জোট গঠন করে সহ অবস্থান বাস্তবায়নের জন্য কাজ করার আহ্বান জানান।

http://www.anandalokfoundation.com/