13yercelebration
ঢাকা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

দুর্নীতি দূর করতে স্বাস্থ্যখাতের সব জায়গায় শুদ্ধি অভিযান চালানো হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

admin
January 16, 2019 6:55 pm
Link Copied!

দুর্নীতি দূর করতে স্বাস্থ্যখাতের সব জায়গায় শুদ্ধি অভিযান চালানো হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক। গতকাল বুধবার সচিবালয়ে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের ‘আগামী ১০০ দিনের কর্মসূচি’ ঘোষণাকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এ কথা বলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালকে বিশ্বের অন্যতম আধুনিক হাসপাতালে রূপান্তর করার কাজ হাতে নেয়া হয়েছে। ৫ হাজার শয্যার এই হাসপাতাল নির্মাণ এবং দেশের প্রতিটি বিভাগীয় শহরে ১০০ শয্যার একটি ক্যান্সার হাসপাতাল এবং জেলা হাসপাতাল ও মেডিকেল কলেজগুলোতে ১০ শয্যার একটি কিডনী ইউনিট স্থাপনের জন্য ইতোমধ্যে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে মাঠ পর্যায়ে কার্যক্রম তদারকির প্রক্রিয়া চালু করা হচ্ছে। বিশেষ করে যন্ত্রপাতি রক্ষণাবেক্ষণ, জনবল উপস্থিতি এবং পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখার বিষয়গুলো কঠোর নজরদারির আওতায় আনা হচ্ছে। এলক্ষ্যে মনিটরিং নেটওয়ার্ক তৈরি করা হবে। মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাগণ মাঠ পর্যায়ের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও বিভিন্ন কার্যক্রম সরেজমিন পরিদর্শন করবেন। স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ এবং স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব বিভাগীয় পর্যায়ে প্রতিষ্ঠান ও কার্যক্রমসমূহ সরেজমিনে পরির্দশন করবেন।

তিনি বলেন, স্বাস্থ্যসেবার বিভিন্ন কার্যক্রম সম্পর্কে যথাযথ প্রচার কার্যক্রম গ্রহণ করা হবে। সব হাসপাতালে সহজে দৃশ্যমান সাইন বোর্ডসহ নিওন সাইনবোর্ড স্থাপন করা হবে। প্রতিটি হাসপাতালে প্রদেয় সেবা এবং বিভিন্ন ইউজার ফির তালিকা যথাযথ স্থানে প্রদর্শনের নির্দেশ দেয়া হবে। হাসপাতালে সেবা গ্রহণের ক্ষেত্রে সেবা গ্রহীতারা যেসব সমস্যায় পড়বেন তা নিরসনে সেবা গ্রহীতাদের পরামর্শ নেয়ার জন্য মন্ত্রীর নির্দেশক্রমে ইতোমধ্যে মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে একটি অভিযোগ কর্নার তৈরি করা হয়েছে। ‘একশ দিনের কর্মসূচি’ ঘোষণাকালে জাহিদ মালেক ল্যাপটপের সাহায্যে এই কর্নারটি সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করেন।

একশ’ দিনের কর্মসূচির আওতায় ১২টি কর্মপরিকল্পনা ঘোষণা করে দ্রুত সেগুলো বাস্তবায়নের উদ্যোগ নিতে মন্ত্রী সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মোঃ মুরাদ হাসান, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব মো. আসাদুল ইসলাম, স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব জি এম সালেহ উদ্দিন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ, ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোস্তাফিজুর রহমান প্রমুখ।

http://www.anandalokfoundation.com/