ঢাকা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

আফগানিস্তানে তীব্র শীতে ৭৮ জন মানুষ এবং ৭৭ হাজারের বেশি গবাদি পশু নিহত

Link Copied!

আফগানিস্তানের ৩৪টি প্রদেশের আটটিতেই ঠাণ্ডায় মানুষের মৃত্যু রেকর্ড করা হয়েছে। ১৫ বছরের মধ্যে আফগানিস্তানে এবারই সবচেয়ে বেশি শীত পড়েছে। তাপমাত্রা পৌঁছেছে মাইনাস ৩৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। চরম অর্থনৈতিক সংকটে জর্জরিত আফগানিস্তানে এই শীত আরও দুর্ভোগ হয়ে এসেছে। আফগানিস্তানের তালেবান সরকারের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সফিউল্লাহ রাহিমি বলেছেন, তীব্র শীতের কারণে ৭৮ জন নিহতের পাশাপাশি অন্তত ৭৭ হাজারের বেশি গবাদি পশু শীতে জমে গিয়ে প্রাণ হারিয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে ২ কোটি ১২ লাখ মানুষের জন্য জরুরি ভিত্তিতে খাদ্য ও শীতবস্ত্র সহায়তা দরকার বলে জানিয়েছে তালেবান সরকার।

আফগানিস্তানের আবহাওয়া দপ্তরের প্রধান মোহাম্মদ নাসিম মুরাদি জানান, সাম্প্রতিক বছরগুলোতে এই শীত সবচেয়ে বেশি শীতল। এই চলমান শৈত্যপ্রবাহ আরও এক সপ্তাহ বা তারও বেশি সময় ধরে চলতে পারে। সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচারিত ছবি ও ভিডিওগুলোতে আফগানিস্তানের মধ্য ও উত্তর প্রদেশে ভারী তুষারপাত দেখা যায়। অনেক রাস্তা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। স্থানীয় স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, হঠাৎ করে দেশের তাপমাত্রা কমে যাওয়ায় হাসপাতালে রোগীর সংখ্যা বাড়ছে।
কার্বন মনোক্সাইড বিষক্রিয়ার কারণে সম্প্রতি হেরাত প্রদেশে অন্তত ১৪০ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। হেরাত আঞ্চলিক হাসপাতালের প্রধান আহমেদ ফারহাদ আফজালি জানান, ২৪ ঘন্টার মধ্যে ১৩০ থেকে ১৪০ জনকে জরুরি বিভাগে আনা হয়েছিল।

হেরাতের বাসিন্দারা জানিয়েছেন, তারা ঘর গরম করার একমাত্র উপায় হিসেবে কয়লা জ্বালিয়ে গ্যাস ব্যবহার করছে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, গ্যাসের অসতর্ক ব্যবহার মানুষের মারাত্মক ক্ষতি করে। জানা গেছে, ঘর গরম করার জন্য কয়লা ব্যবহার করা হলে এ ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা বেশি। কার্বন মনোক্সাইড গ্যাস নিঃশ্বাসের মাধ্যমে মানুষের বিষক্রিয়া হতে পারে। অত্যধিক কার্বন মনোক্সাইড খাওয়ার ফলে চেতনা হ্রাস, অ্যারিথমিয়া, খিঁচুনি, এমনকি মৃত্যুও হতে পারে।

http://www.anandalokfoundation.com/