ঢাকা

শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মানববন্ধনে আওয়ামীলীগের হামলা

admin
August 14, 2015 11:05 pm
Link Copied!

নাটোর প্রতিনিধিঃ নাটোরের বড়াইগ্রামে মহিলা হাফেজিয়া মাদরাসার দুই শিক্ষককে এক শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে মিথ্যা অভিযোগে ভ্রাম্যমান আদালতে এক বছর করে কারাদন্ড ও ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা করার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে মাদরাসার শিক্ষক, ছাত্রী ও তাদের নারী ও পুরুষ অভিভাবকরা। এ সময় তাদের উপর লাঠি নিয়ে হামলা চালায় স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।

প্রত্যক্ষদর্শী স্থানীয়রা জানায়, বড়াইগ্রাম উপজেলার আহম্মদপুর হযরত আয়েশা(রাঃ) মহিলা মাদরাসার এক শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ এনে তার অভিভাবক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাজে অভিযোগ করেন। এর প্রেক্ষিতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমিন বৃহস্পতিবার দুপুরে মাদরাসায় গিয়ে অভিযুক্ত ইসমাইল হোসেন ও মোবারক হোসেনকে তার কার্যালয়ে নিয়ে যান এবং মাদরাসাটি সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেন। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অফিসে ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে অভিযুক্ত দুই শিক্ষককে এক বছর করে কারাদন্ড ও ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরো সাড়ে তিন মাসের কারাদন্ড প্রদান করেন। এ ঘটনার প্রতিবাদে শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মাদরাসার সামনে মানববন্ধন করেছে মাদরাসার শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকসহ এলাকার কয়েকশ মহিলা ও ছাত্রী। এ সময় স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতা পোড়া জলিলের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ নেতা কর্মীরা মহিলা ও শিশুদের উপর লাঠি নিয়ে হামলা চালায়।

হামলাকারীরা প্রতিবাদকারী সাইফুল ইসলাম ও মাদরাসা শিক্ষক দেলোয়ার হোসেনকে ব্যাপক মারপিট করে এবং রোকনুজ্জামান রোকন নামে অপর এক মৌলভীকে মারতে মারতে পাশের পুকুরে ফেলে দেয়। এ সময় অনেক মহিলাকে লাঠি হাতে নিয়ে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে পাল্টা প্রতিরোধ গড়ে তোলার চেষ্টা করতে দেখা যায়। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি শান্ত করে। এ সময় মাদরাসার ভিতরে শত শত ছাত্রী ও তাদের মহিলারা অভিভাকরা হামলাকারীদের বিচার দাবী করে কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে। তারা জানান, যে ছাত্রীর অভিযোগে দুজন হাফেজ শিক্ষককে জেল জরিমানা করা হলো সেই ছাত্রী আরো ৬বছর আগে হাজী মোহাম্মদ আলী নামে অপর এক বৃদ্ধ ক্বারীর বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ এনেছিল এবং পরে ঐ বৃদ্ধ হাজীর মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। মাদরাসার কোন ছাত্রী এমন অভিযোগ না করলেও একই ছাত্রী বার বার একই অভিযোগ করায় বিষয়টি সাধারন মানুষের মনে প্রশ্নের সৃষ্টি করেছে।

http://www.anandalokfoundation.com/