13yercelebration
ঢাকা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

উত্তরা পাবলিক লাইব্রেরির উদ্যোগে ৬৫ কৃতি শিক্ষার্থীকে সংবর্ধনা

Link Copied!

‘ভালো ছাত্র হওয়ার পাশাপাশি ভালো মানুষ হওয়াও জরুরি’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে সদ্য এসএসসি উত্তীর্ণ ৬৫ কৃতি শিক্ষার্থীকে সংবর্ধনা প্রদান করেছে উত্তরা পাবলিক লাইব্রেরি।

আজ (মঙ্গলবার) বিকেলে উত্তরা ক্লাবের সিনেপ্লেক্স অডিটোরিয়ামে এক বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে শিক্ষার্থীদের এই সংবর্ধনা দেয়া হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, বিশেষ অতিথি সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি শবনম জাহান এবং সাবেক মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড চেয়ারম্যান প্রফেসর তাসলিমা বেগম। এসময় প্রধান অতিথি এসব শিক্ষার্থীদের হাতে সম্মাননা ক্রেস্ট ও সার্টিফিকেট তুলে দেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, এমপি বলেন, মানসম্মত শিক্ষা, আধুনিক জ্ঞান-বিজ্ঞান-প্রযুক্তি আয়ত্ব করা হবে আমাদের জাতির ভবিষ্যৎ সন্তানদের মূল কাজ। এরই লক্ষে আমরা শিক্ষানীতি প্রণয়ণ করেছিলাম এবং সেই ধারায় সন্তানরা মানুষ হচ্ছে।

আয়োজনে উপস্থিত শিক্ষক ও অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে নুরুল ইসলাম নাহিদ, এমপি বলেন, শিক্ষক এবং পরিবার এই দুই জায়গা থেকেই শিক্ষার্থীরা শিক্ষালাভ করে এবং অনুপ্রেরণা পায়। শিক্ষার্থীরা বেশিরভাগ সময়ই পরিবারের সঙ্গে থাকে। আর তাই পরিবারের অভিভাবকদের উচিত সন্তানরা যাতে ভালো মানুষ হয় সেই ভিত্তি গড়ে তুলতে হবে।

এসময় তিনি উত্তরা পাবলিক লাইব্রেরির উক্ত কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা আয়োজনের ভ্রƒয়সী প্রশংসা করে বলেন, উত্তরায় এরকম একটি লাইব্রেরি গড়ে উঠেছে এটি সত্যিই একটি ভালো কাজ। সমাজকে আলোকিত করতে চাইলে লাইব্রেরিমুখী হওয়াটা খুবই জরুরী।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি শবনম জাহান, বিশিষ্ট আইনজীবী, শিক্ষানুরাগী ও সমাজসেবক অ্যাডভোকেট মোঃ আবু হানিফ, ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজির সাবেক উপ-পরিচালক (অর্থ ও প্রশাসন) মাহবুবুল আলম, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজসেবক মো. মজিবুর রহমান প্রমুখ। এসময় বক্তারা উপস্থিত শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে পরামর্শমূলক বক্তব্য প্রদান করেন।

আশরাফুল আলম সবুজের সঞ্চালনা ও প্রফেসর ড. ইয়াসমিন আহমেদের সভাপতিত্বে এর আগে স্বাগত বক্তব্যে উত্তরা পাবলিক লাইব্রেরির প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি মোহাম্মদ তারেকউজ্জামান খান বলেন, আমরা শিক্ষার্থীদেরকে অনুপ্রাণিত করতে চাই তারা যেন ভবিষ্যতে সুনাগরিক হয় এবং দেশের জন্য ভালো কিছু করতে পারে। আমাদের এই ক্ষুদ্র প্রচেষ্টাই তাদের সামনের দিনগুলোকে আরো সমৃদ্ধ করবে বলে আমরা বিশ^াস করি।

এসময় তিনি উপস্থিত শিক্ষক, শিক্ষার্থী, অভিভাবকসহ অনুষ্ঠান পরিচালনায় সকল সহযোগী ও কলাকুশলীদের বিশেষ ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

http://www.anandalokfoundation.com/