আসন্ন নির্বাচনে ৬৬ জন বিচারিক ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন

    Rai Kishori
    September 15, 2021 11:05 pm
    Link Copied!

    আগামী ২০ সেপ্টেম্বর দেশের ছয়টি জেলার ১৬১ ইউপিতে এবং নয়টি পৌরসভায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। আসন্ন ইউপি ও পৌরসভা নির্বাচনে সংক্ষিপ্ত বিচারকাজ পরিচালনার জন্য ৬৬ জন বিচারিক ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। নিয়োগপ্রাপ্তরা ভোটের আগে-পরে পাঁচদিনের জন্য দায়িত্ব পালন করবেন।

    আজ বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) ইসির আইন শাখার উপ-সচিব আফরোজা শিউলির স্বাক্ষরে ইউপি ও পৌরসভার জন্য জারি করা দুটি পৃথক প্রজ্ঞাপন এ তথ্য জানা গেছে।

    সম্প্রতি আইন মন্ত্রণালয়কে ইউপির জন্য ৫৭ জন ও পৌরসভার জন্য নয় জন বিচারিক ম্যাজিস্ট্রেটকে মনোনয়ন দিয়ে সুপ্রিম কোর্টের সঙ্গে পরামর্শ ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশনা দিয়েছিল ইসি। তার পরিপ্রক্ষিতে আইন মন্ত্রণালয় মনোনয়নের ভিত্তিতে এ প্রজ্ঞাপন জারি করল ইসি। যেখানে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন ও পৌরসভাভিত্তিক নির্দিষ্ট ম্যাজিস্ট্রেটকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

    আগামী ২০ সেপ্টেম্বর দেশের ছয়টি জেলার ১৬১ ইউপিতে এবং নয়টি পৌরসভায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। ইউপিগুলোর নির্বাচন প্রথম ধাপের ইউপি নির্বাচনের (২১ জুন) সঙ্গে হওয়ার কথা ছিল। সে সময় পৌরসভাগুলোর ভোটও হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনা পরিস্থিতি অবনতি হওয়ায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সুপারিশে নির্বাচন স্থগিত করে ইসি।

    পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় গত ২ সেপ্টেম্বর নতুন করে ভোটের তারিখ দেয় সংস্থাটি। এর পরিপ্রেক্ষিতে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নিয়োগসহ বিচারিক ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদেরও নিয়োগ দিচ্ছে ইসি। ইতোমধ্যে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের মাঠে নিয়োগ করা হয়েছে। তারা নির্বাচনী আচরণ বিধি প্রতিপালন নিশ্চিত করার দায়িত্ব পালন করছেন।

    বিচারিক ম্যাজিস্ট্রেটরা ভোটের ফৌজদারি অপরাধসহ বিভিন্ন অপরাধের সংক্ষিপ্ত বিচারকাজ পরিচালনা করে থাকেন।

    আফরোজা শিউলি জানিয়েছেন, স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ ও পৌরসভা) নির্বাচন বিধিমালার অধীন নির্বাচনী অপরাধসমূহ ‘দ্য কোড অব ক্রিমিনাল প্রসিডিউর, ১৮৯৮ (অ্যাক্ট নম্বর পাঁচ)’ এর ১৯০ ধারার অধীনে আমলে নেওয়া ও তা সংক্ষিপ্ত পদ্ধতিতে বিচারের জন্য তাদের নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

    নির্বাচন অনুষ্ঠান উপলক্ষে নির্বাচনকালীন সংঘটিত অপরাধসমূহ আমলে নেওয়া ও সংক্ষিপ্ত পদ্ধতিতে বিচার সম্পন্নের নিমিত্তে ভোটগ্রহণের আগের দুই দিন, ভোটগ্রহণের দিন ও ভোটগ্রহণের পরের দুই দিন অর্থাৎ ১৮ সেপ্টেম্বর থেকে ২২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত মোট পাঁচ দিনের জন্য ৬৬ (সাতান্ন) জন জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করবেন।

    ইসির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, প্রতি তিন ইউপির জন্য একজন করে বিচারিক ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ থাকবে। তবে কোনো কোনো উপজেলায় প্রতি চার ইউপির জন্যও একজন করে বিচারিক ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োজিত থাকবেন। এছাড়া প্রতি পৌরসভার জন্য থাকবেন একজন করে বিচারিক ম্যাজিস্ট্রেট। এসব কর্মকর্তার ভোটের দায়িত্বকে বিচারিক দায়িত্ব হিসেবে গণ্য করা হবে।