রবিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৬:৫৩ অপরাহ্ন

সর্বশেষ খবর :
মৌলভীবাজারে শ্রীগীতা জয়ন্তী ও পার্থ সারথি পূজা শুরু রংপুরে দুই সন্তানসহ মহিলার লাশ উদ্ধার আদালতের নির্দেশে কমলগঞ্জে ৫ মাস পর কবর থেকে তরুণীর লাশ উত্তোলন কুড়িগ্রামে গ্রাম আদালত বিষয়ক রিফ্রেসার্স প্রশিক্ষণ প্রধানমন্ত্রীর নিকট থেকে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেল যারা ক্যাসিনো, অর্থপাচারের রাঘব বোয়ালদের নাম শীঘ্রই প্রকাশঃ দুদক চেয়ারম্যান নালিশী পার্টিতে পরিণত হয়ে দেশে-বিদেশে নালিশ করে বেড়াচ্ছে বিএনপি দেশের ৬৪টি জেলাতে সারের বাফার গোডাউন নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার ফুলবাড়ীতে যুবদল নেতাসহ ৫ জুয়াড়ী আটক ধানের ন্যায্যমুল্য নিশ্চিত করতে : রাজারহাটে লটারির মাধ্যমে নির্ধারিত হলো কৃষকের ভাগ্য

রাষ্ট্রপতি শাসনের পরই মহারাষ্ট্রে সরকার গড়ার বার্তা

বিজেপি সাংসদ নারায়ণ রান

বিজেপি সাংসদ নারায়ণ রানের দাবি, মহারাষ্ট্রে সরকার গড়বে বিজেপিই। তাঁদের সঙ্গে রয়েছে ম্যাজিক ফিগার। আবারও বিজেপিই ক্ষমতায় আসতে চলেছে মহারাষ্ট্রে।

মঙ্গলবার রাষ্ট্রপতি শাসন জারির পর বিজেপির পক্ষ থেকে এই দাবি বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণঁ। রাজ্যপালের সিদ্ধান্ত যে বিজেপিকে ফের অক্সিজেন দিয়েছে, তা-ই প্রমাণ করে সাংসদের মন্তব্য।

নারায়ণ রানে বলেন, বিজেপির সঙ্গে বর্তমানে ১৪৫ জন বিধায়ক রয়েছেন। ফলে তাঁদের ক্ষমতায় আসা কোনও সমস্যা হবে না। শিবসেনাকে ছাড়াই তাঁরা ক্ষমতা আসতে পারবে। বিজেপি সাংসদের কথায়, কংগ্রেস ও এনসিপি ভুল বোঝাচ্ছে শিবসেনাকে। সিবসেনা মূর্খের স্বর্গে বাস করছে। বিজেপির সঙ্গে ছেড়ে মস্ত ভুল করেছে শিবসেনা। তাঁদের এবার ভুগতে হবে।

এদিকে কংগ্রেস দাবি করেছে, কংগ্রেস ছাড়া স্থায়ী সরকার সম্ভব নয় মহারাষ্ট্রে। সেই লক্ষ্য নিয়েই এনসিপি ও শিবসেনার সঙ্গে আলোচনা চলছে। অর্থাৎ প্রাকান্তরে মহারাষ্ট্রে কংগ্রেস-এনসিপি-শিবসেনার জোট সরকার হতে পারে, এমনই সম্ভাবনার কথা জানিয়েছেন কংগ্রেসের প্রবীণ নেতা আহমেদ প্যাটেল।

রাষ্ট্রপতি শাসনের মধ্যেই মহারাষ্ট্র সরকার গঠনের জন্য আলোচনা চলবে বলে সম্মিলিতভাবে জানিয়ে দিল কংগ্রেস ও এনসিপি। মঙ্গলবার যৌথ সাংবাদিক বৈঠক করে শারদ পাওয়ার ও আহমেদ প্যাটেল রাষ্ট্রপতি শাসন জারির সমালোচনা করেন। কংগ্রেস ও এনসিপি উভয়েই জানায়, এনসিপিকে দেওয়া সময় এখনও অতিবাহিত হয়নি। তার মধ্যেই কী করে রাষ্ট্রপতি শসান জারি করা হল। তারপর কংগ্রেসকে আমন্ত্রণ জানানো উচিত ছিল রাজ্যপালের, তাও জানাননি রাজ্যপাল।

কংগ্রেসের অভিযোগ, আদালতের নির্দেশ মানেনি বিজেপি। আর রাজ্যপাল সংবিধান মানার আগে কেন্দ্রীয় সরকারের নির্দেশ পালন করতেই ব্যস্ত। বিজেপিকে সুবিধা পাইয়ে দিতেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। উল্লেখ্য, রাজ্যপাল ডাকার পর বিজেপি জানিয়েছিল, তারা সরকার গড়তে অপারগ। দুদিনের মধ্যেই পরিবর্তন হয়ে গেল চিত্র।

শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2019 News Time Media Ltd.
IT & Technical Support: BiswaJit