মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ০১:১১ অপরাহ্ন

কালীগঞ্জে ”হাম রুবেলা” টিকা ক্যাম্পেইনের উপর কর্ম পরিকল্পনা সভা

কালীগঞ্জে ”হাম রুবেলা” টিকা ক্যাম্পেইনের উপর কর্ম পরিকল্পনা সভা

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহ কালীগঞ্জে ”হাম রুবেলা” টিকা ক্যাম্পেইন ২০২০ এর অবহিতকরনে লক্ষে এ্যাডভোকেসী ও প্লানিং সভা অনুষ্টিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার ১৬ ডিদেম্বর বেলা ১২ টায় উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের কনফারেন্স রুমে এই

বিস্তারিত..

মোটরসাইকেল ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ নিহত-২ এলাকাবাসীর রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ 

মোটরসাইকেল ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ নিহত-২ এলাকাবাসীর রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ 

ডাসার প্রতিনিধি : মাদারীপুরের ডাসার থানাস্থ ঢাকা বরিশাল মহাসড়কে ভাঙ্গাব্রীজ  নামকস্থানে মোটরসাইকেল-ট্রাকের গতকাল রাতে মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে স্কুলছাত্রসহ দুইজন নিহত হয়েছে। এ নিহতের ঘটনা এলাকাবাসীর মাঝে ছরিয়ে পরলে

বিস্তারিত..

A joyous trip for the family of the journalists in Taraganj

A joyous trip for the family of the journalists in Taraganj

Deepak Roy, Taraganj (Rangpur) Correspondent: There is no alternative to travel to give some pleasure to the mind in working life.  If you want, you can dance and sing, cross

বিস্তারিত..

A joyous trip for the family of the journalists in Taraganj

তারাগঞ্জে সাংবাদিকদের স্বপরিবারে আনন্দ ভ্রমণ

দিপক রায়, তারাগঞ্জ (রংপুর) প্রতিনিধি : কর্র্মময় জীবনে মনকে কিছুটা আনন্দ দিতে ভ্রমনের কোন বিকল্প নেই। মন চাইলেই নেচে গেয়ে কিছুটা পথ পেরিয়ে খুঁশির জোয়ারে ভাসতে থাকা যায় দিগ দিগন্তে।

বিস্তারিত..

জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের স্মরণে বিজয় দিবস উদযাপন করলো ফায়ার সার্ভিস

জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের স্মরণে বিজয় দিবস উদযাপন করলো ফায়ার সার্ভিস  

মহান মুক্তিযুদ্ধে আত্মাহুতি দেয়া ও অংশগ্রহণ করা জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের শ্রদ্ধায়-স্মরণে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বিজয় দিবস উদযাপন করেছে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তর। ১৬ ডিসেম্বর সকালে ঢাকার মিরপুর ট্রেনিং

বিস্তারিত..

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য বাস্তবায়ন পরিষদ

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য বাস্তবায়ন পরিষদ

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নিকট প্রস্তাবিত ‘বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য’ যথাসময়েযথাস্থানে স্থাপন করাসহ তিন দফা দাবি জানিয়ে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য বাস্তবায়ন পরিষদের পক্ষ থেকে স্মারকলিপি। শ্রদ্ধাভাজন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, সম্প্রতিকালে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নিয়ে উত্তপ্ত বাংলাদেশের রাজনীতি। মুক্তিযুদ্ধের মহানায়ক, স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি বাঙ্গালীজাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি সম্মান প্রদর্শণ করার জন্য ,গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার ঢাকারদোলাইপাড় চত্বরে (যেখান থেকে ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়ে শুরু) বঙ্গবন্ধুর একটি আবক্ষ ভাস্কর্য স্থাপন করার পরিকল্পনা গ্রহণকরেছে। এরই মাঝে স্বাধীনতা বিরোধী গোষ্ঠী ঢাকার বিভিন্ন জায়গায় এই ভাস্কর্য নির্মাণের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। এদিকে ‘বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যবাস্তবায়ন পরিষদ’ সহ ভাস্কর্য বাস্তবায়নের দাবিতে আন্দোলনরত রয়েছে আওয়ামীলীগ ও এর অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনসমূহ।‘বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য বাস্তবায়ন পরিষদ’ যে কোন মূল্যে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য স্থাপন করার দৃঢ় প্রত্যয় ঘোষণা করেছে এবং মুজিববর্ষে, চলতি ডিসেম্বরে বিজয়ের মাসেই ‘বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য‘ স্থাপন করার দাবি জানিয়েছে। দোলাইপাড় চৌরাস্তার ভাস্কর্য ছাড়াও দেশেরপ্রতিটি জেলায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য স্থাপন করার জন্য দাবী জানিয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব ও খেলাফত মজলিশের নেতার কদর্য মন্তব্যের পর ভাস্কর্য ইস্যুতে সারাদেশে তোড়পাড় শুরুহয়। ঐ কদর্য বক্তব্যের সমর্থনে আরো কঠোর মন্তব্য করেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের নবনির্বাচিত আমির। আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক জনাব ওবায়দুল কাদের ভাস্কর্য নির্মাণ বিরোধিতাকারীদের ধর্মান্ধ মৌলবাদী বলে তাদের সমালোচনাকরেছেন। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরাও এ ব্যাপারে সক্রীয়ভাবে মাঠে রয়েছেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, ভাস্কর্য স্থাপন বিশ্বে বা বাংলাদেশে নতুন নয়। স্বাধীনতার পর এদেশে অনেক ভাস্কর্য স্থাপন করা হয়েছে। ভাস্কর্য বিরোধিতাকারীরাভাস্কর্য স্থাপনকে মূর্তি স্থাপনের সঙ্গে তুলনা করে এটাকে শিরক সংস্কৃতি বা বিজাতীয় সংস্কৃতি বলে আখ্যায়িত করেছে। ভাস্কর্য(Sculpture) এক ধরনের ত্রিমাত্রিক শিল্পকলা বিশেষ যা বাঙালির নিজস্ব সংস্কৃতির অংশ, বিজাতীয় নয়। দেশজ সংস্কৃতিতেযেসব কর্মকাণ্ড শিরক বা আল্লাহর সঙ্গে অংশীবাদিতার মিশ্রণ ছাড়াই পালিত হয়ে আসছে, সেটিকে হঠাৎ করে শিরক সংস্কৃতিবলা নোংরা রাজনীতি ছাড়া কিছুই নয়। ভাস্কর্য এবং মূর্তির মাঝে অনেক বড় পার্থক্য আছে। ভাস্কর্য হলো সুন্দরের প্রতীক, কিন্তু মূর্তি হলো চেতনার প্রতীক। সব মূর্তিইযেমন ভাস্কর্য নয়, তেমনি ভাস্কর্যকে মূর্তি বলা চলে না। অর্থাৎ ভাস্কর্য আর মূর্তি এক জিনিস নয়। কোন কর্মকান্ডে আমাদের মনের ভিতর কি নিয়ত করলাম সেটা গুরুত্বপূর্ণ। মহান আল্লাহ আমাদের নিয়ত বা চিন্তা বিবেচনা করেবিচার করবেন। একটি প্রতিকৃতিকে যখন কেহ সৌন্দর্যের কোনো কাজে বা ঐতিহাসিক নিদর্শন হিসেবে ব্যবহার করবে, তখন তাভাস্কর্য হিসাবে গণ্য হবে। কিন্তু একই প্রতিকৃতিকে কেউ যদি তার চেতনা ও বিশ্বাসের প্রতীক মনে করে পূজা দেয়, তখন তা মূর্তিপূজা হিসাবে গণ্য হবে। হযরত সোলায়মান(আ)এর জমানায় প্রতিকৃতিকে সৌন্দর্যের প্রতীক হিসাবে ব্যবহার করত। ফলেসোলায়মান(আ) নিজেই প্রতিকৃতি তৈরি করার জন্যে নির্দেশ দিয়েছিলেন। সুতরাং, কেবল বাহিরের কাঠামোগত কোনো প্রতিকৃতির মধ্যে নয়, বরং মানুষের চিন্তার মধ্যেই শিরক থাকে। মানুষের চিন্তা ওচেতনার অঙ্গনেই শিরকের অসংখ্য মূর্তি গড়ে উঠে। আমরা বাইরের প্রতিকৃতি নিয়ে খুব সোচ্চার হলেও, ভিতরের মূর্তিগুলোদেখতে পাই না। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, বাঙ্গালী জাতির পিতা, স্বাধীনতার মহানায়ক, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য স্থাপনেরউদ্দেশ্য ঐতিহাসিক, ধর্মীয় নয়। ত্রিশ লক্ষ শহীদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত স্বাধীন বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় তাঁর অবদানের কথাবিবেচনা করে এবং পরবর্তী প্রজন্ম থেকে প্রজন্ম স্বাধীনতার ইতিহাসকে প্রতিষ্ঠিত করার জন্য গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারবঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য স্থাপনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণের সঙ্গে মূর্তি পূজা করার কোনো সম্পর্ক নেই। পৃথিবীর সকল দেশেই জাতির পিতা বা জাতীয় নেতা বা জাতীয় তারকাদের ভাস্কর্য নির্মাণ করা হয়ে থাকে, তাঁদের সম্মান করা ওস্মরণীয় রাখার জন্য-পূজা করার জন্য নয়। এসকল ভাস্কর্য জাতিকে উদ্দিপ্ত করে, তাদের বীরত্বকে মনে করিয়ে দেয় যা মোটেওদোষের নয়। অসংখ্য ইসলামি দেশের এরকম উদাহরণ আছে। যেমন-পাকিস্তানের জাতির পিতা মোহাম্মদ আলী জিন্নাহর বিশালআকারের ভাস্কর্য আছে কিন্তু সেটি নিয়ে জনগণের কোনো মাথাব্যথা নেই। পাকিস্তানে রয়েছে আরোও অনেক ঐতিহাসিক ওরাজনৈতিক ব্যক্তিদের দৃষ্টিনন্দন ভাস্কর্য। যেমন—লাহোরে বাদশাহি মসজিদের পার্শ্বে মেরি মাতার ভাস্কর্য, পাঞ্জাবের জং শহরেররাস্তায় ঐতিহ্যবাহী ঘোড়সওয়ারের ভাস্কর্য, লাহোরে ন্যাশনাল কলেজ অব আর্টস প্রাঙ্গণের নানা রকম ভাস্কর্য। এককালের সারা মুসলিম জাহানের খলিফার দেশ তুরস্ক, সাংবিধানিকভাবে ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র হলেও বর্তমানে ক্ষমতায় রয়েছেইসলামী দল। তুরস্কের বিভিন্ন স্থানে আধুনিক তুরস্কের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রথম প্রেসিডেন্ট কামাল আতাতুর্কের রয়েছে অগণিত ভাস্কর্য।একেকটি দৃষ্টিনন্দন ভাস্কর্যে একেক রকমভাবে আতাতুর্ক এবং তুরস্কের ইতিহাস, ঐতিহ্য বিবৃত করা হয়েছে। এছাড়াও রয়েছেবর্তমান প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইপে এরদোয়ানের ভাস্কর্য, যিনি নিজে পবিত্র কোরআনের হাফেজ। তুরস্কের উল্লেখযোগ্য ভাস্কর্যহলো: মর্মর সাগর তীরে পোতাশ্রয়ে মর্মর ভাস্কর্য, আঙ্কারাতে ইন্ডিপেনডেন্স টাওয়ারের পাদদেশে তুরস্কের জাতীয় সংস্কৃতির ধারকতিন নারী ভাস্কর্য ও আন্তালিয়ায় এডুকেশন অ্যাক্টিভিস্ট তুরকান সায়লানের ভাস্কর্য। মালয়েশিয়ার সবচেয়ে বিখ্যাত ভাস্কর্য হলো দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে শহীদ হওয়া বীরদের স্মরণে ১৫ মিটার উচ্চতার ভাস্কর্যটি যা দ্বারাপ্রতীকীভাবে সাতজন বীরের প্রতিমূর্তির মাধ্যমে তাঁদের বিশ্বস্ততা, আত্মত্যাগ আর বন্ধুত্বের বিষয়টি বোঝানো হয়েছে।মালয়েশিয়ার রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম। মালয়েশিয়ার ভাস্কর্য শিল্প সনাতন ও আধুনিক ধারার এক স্বতন্ত্র মেলবন্ধন। প্রচন্ড-রক্ষণশীল মুসলিম দেশ সৌদি আরবের বাণিজ্যিক রাজধানী জেদ্দা নগরীতে আছে উটের দৃষ্টিনন্দন ভাস্কর্য। রাজধানীজেদ্দার উল্লেখযোগ্য ভাস্কর্যের মধ্যে রয়েছে নগরীতে মুষ্টিবদ্ধ হাত, হাংরি হর্স, মানব চোখ, মরুর বুকে উটের ভাস্কর্য। অষ্টম শতকের সমরনায়ক আবু মুসলিম খোরাসানির ভাস্কর্যের গায়ে আফগানিস্থানের জঙ্গিরাও হাত দেয়নি। গজনীতে এখনোস্বমহিমায় দাঁড়িয়ে সেই ভাস্কর্য। তাজিকিস্থানের রাজধানী দুশানবেতে মুসলিম দার্শনিক ও পন্ডিত ইবনে সিনার একটি বিশালভাস্কর্য আছে। মুসলিমপ্রধান ওই দেশের কোনো নাগরিক তো ভাস্কর্যটির গায়ে আঁচড়ও দেন না। ইরান, মিসর, ইরাকের জাদুঘরেঅসংখ্য ভাস্কর্যতো রয়েছেই, সেসব দেশে উন্মুক্ত স্থানে রয়েছে অনেক ভাস্কর্য। ইরানে আছে একটি বিশাল স্বাধীনতাস্তম্ভ, যার নাম‘আজাদী’। এ স্থাপত্যটির ডিজাইনার হোসেন আমানত একজন মুসলমান। মাশহাদ নগরীতে ভাস্কর্য সংবলিত নাদির শাহ-রসমাধিসৌধটি পর্যটকদের কাছে খুবই আকর্ষণীয়। পিরামিডের জন্য দুনিয়াজোড়া খ্যাতি মিসরের। পাথরের তৈরি ভাস্কর্যসংবলিত গিজা পিরামিড সারা দুনিয়ার পর্যটকদের অতি প্রিয়। কায়রো বিশ্ববিদ্যালয়ে আছে মাহমুদ মোখতারের বিখ্যাত ভাস্কর্য‘মিসরের রেনেসাঁ’। পারস্যের কবি শেখ সাদী, যার ‘নাত’-‘বালাগাল উলা বি কামালিহি কাশাফাদ্দুজা বি জামালিহি’ এদেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানেরামিলাদে সব সময় পাঠ করে থাকেন,তার মাজারের সামনেই তাঁর একটি মর্মর পাথরের ভাস্কর্য আছে। ইসলামি রাষ্ট্র ইরানেঅবস্থিত কবি ওমর খৈয়াম ও মহাকবি ফেরদৌসির ভাস্কর্য নিয়ে কারো সমস্যা নেই। তেহরানে অজস্র মানুষের প্রতিকৃতি সম্বলিত‘ভাস্কর্য’ নিয়ে কোনো সমস্যা নেই। সমস্যা নেই সিরিয়ার ন্যাশনাল মিউজিয়ামের ‘ভাস্কর্য’ নিয়েও। ইরাকের বাগদাদবিমানবন্দরের সামনে ডানার ভাস্কর্যটি সবার নজর কাড়ে। বাগদাদের পাশে আল-মনসুর শহরে মনসুরের একটি বিশালভাস্কর্যসহ আছে অনেক সাধারণ সৈনিকের ভাস্কর্য। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, বাংলাদেশে ১৯৫২ সালের ভাষা শহীদদের স্মরণে নির্মিত শহীদ মিনার, একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের স্মরণে নির্মিতজাতীয় স্মৃতিসৌধ, শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মরণে নির্মিত শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধ এবং সাতজন বীরশ্রেষ্ঠের নামে স্থাপিত স্মৃতিভাস্কর্যের সামনে গিয়ে যখন বাংলাদেশের ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সকল শ্রেণি-পেশার মানুষ অন্তর থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন, তখনতারা কেউই সেখানে ইবাদতের নিয়তে বা প্রার্থনার নিয়তে যান না। সেখানে জাতীয় ইতিহাস, ঐতিহ্য ও শহীদদের ত্যাগের প্রতিসম্মান প্রদর্শন করা হয় মাত্র। কোন মানুষকে যদি প্রশ্ন করা হয়, বর্তমানে বাংলাদেশসহ বিশ্বের প্রধান সমস্যা কী? একবাক্যে সবাই বলবেন-মহামারি করোনা।সারা বিশ্ব যখন করোনা মোকাবেলায় হিমশিম খাচ্ছে বাংলাদেশে তখন স্বাধীনতা বিরোধী একদল চিহ্নিত লোক বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যস্থাপনে বিরোধীতা করছে যা মূলত ধর্মীয় নয়-রাজনৈতিক। দেশে যখন কোন রাজনৈতিক ইস্যু নেই, তখন কেউ হয়তো এদেরলেলিয়ে দিয়েছে সরকারের বিরুদ্ধে। ভাস্কর্য স্থাপনে বিরোধী স্বাধীনতা বিরোধী গোষ্ঠী রাজনৈতিক উদ্দেশ্য হাসিল করার জন্যধর্মের নামে অপব্যাখ্যা দিয়ে এদেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের উত্তেজিত করার ব্যর্থ চেষ্টা করছে। বাংলাদেশের সচেতন মানুষতাদের দুজনকেই ভালভাবে চিনেন ও তাদের রাজনৈতিক চরিত্র জানেন। লক্ষ্যণীয়, বিএনপি-জামাত জোট সরকারের আমলে সারা দেশে জিয়াউর রহমানের অসংখ্য ভাস্কর্য নির্মাণ করা হয়েছিল। তখনধর্মের অপব্যাখ্যাকারীরা ভাস্কর্যের বিরুদ্ধে কোন কথা বলেননি। উনারা যখন খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে ২০ দলীয় জোটের অন্তর্ভুক্তছিলেন তখন জিয়ার ভাস্কর্য নিয়ে টু শব্দটি করেননি। অথচ তারা আজকে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের বিরোধিতা করছেন যাদূরভিসন্ধিমূলক। বিশিষ্ট ইসলামি চিন্তাবিদ আল্লামা আহমদ শফী সাহেবের অরাজনৈজিক ইসলামী সংগঠন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশেরনতুন আমির ও যুগ্ম মহাসচিব, এই দুইজন দায়িত্ব গ্রহণের সঙ্গে সঙ্গেই ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করেছেন। ভাস্কর্য তৈরি নিয়ে এমনআপত্তিকর, বিভ্রান্তি ও উস্কানিমূলক কথাবার্তা বলছেন যার ফলে জনমনে একধরনের উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা তৈরি হচ্ছে। এরাহেফাজতের আমির এবং যুগ্মমহাসচিব হলেও তাদের ভিন্ন ভিন্ন রাজনৈতিক পরিচয় রয়েছে। বাংলাদেশের স্বাধীনতা বিরোধীরাজনৈতিক ধারক, বাহক এবং পৃষ্ঠপোষক। এরা হেফাজতে ইসলাম নামের আড়ালে স্বাধীনতা বিরোধী জামায়াত-শিবিরের স্বার্থরক্ষা করছে। ২০১৩ সালের ৫ মে মতিঝিলের ঘটনার পরবর্তিতে তাদের প্রত্যেকের কর্মকাণ্ড বিশ্লেষণ করলে এটা সবার কাছেপরিষ্কার

বিস্তারিত..

স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন কমিটিকে বঙ্গবন্ধু গবেষণা পরিষদের অভিনন্দন

স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন কমিটিকে বঙ্গবন্ধু গবেষণা পরিষদের অভিনন্দন

বঙ্গবন্ধু গবেষণা পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি লায়ন মোঃ গনি মিয়া বাবুল ও সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ নুরুল ইসলাম তালুকদার। বৃহস্পতিবার (১৭ ডিসেম্বর) এক বিবৃতিতে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক

বিস্তারিত..

আল্লামা শফিকে হত্যার অভিযোগে মামুনুল হকসহ ৩৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা

আল্লামা শফিকে হত্যার অভিযোগে মামুনুল হকসহ ৩৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা

আল্লামা আহমদ শফিকে পরিকল্পিতভাবে হত্যার অভিযোগে মামুনুল হকসহ ৩৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। এই মামলায় পিবিআইকে তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ১৬ ডিসেম্বর একটি আলোচনা ও মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে

বিস্তারিত..

দীর্ঘ ৫৫ বছর প্রতীক্ষার পর শুরু হলো বন্ধ থাকা রেলপথ সেবা

দীর্ঘ ৫৫ বছর প্রতীক্ষার পর শুরু হলো বন্ধ থাকা রেলপথ সেবা

বাংলাদেশের চিলাহাটি ও ভারতের হলদিবাড়ির মধ্যে দীর্ঘ ৫৫ বছর প্রতীক্ষার পর শুরু হলো বন্ধ থাকা রেলপথ সেবা। বৃহস্পতিবার ১৭ ডিসেম্বর সকাল সাড়ে ১১টার দিকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ

বিস্তারিত..

বাংলাদেশ-ভারতের সমঝোতা স্মারক

যে ৭ সমঝোতা স্মারক সই বাংলাদেশ-ভারতের

বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে সাতটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার (১৭ ডিসেম্বর) সকাল ৯টার দিকে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় সমঝোতা স্মারক সই হয়। দেশটির পক্ষে ঢাকায় নিযুক্ত হাইকমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী চুক্তিগুলোতে

বিস্তারিত..

চীনা নভোযান চাঁদ থেকে পাথর-মাটি আনলো

চীনা নভোযান চাঁদ থেকে পাথর-মাটি আনলো

বৃহস্পতিবার নিরাপদে পৃথিবীতে ফিরে এসেছে চীনের মহাকাশযান।চাঁদ থেকে দুই কিলোগ্রাম পাথর ও মাটি নিয়ে এসেছে সঙ্গে।ফলে আবার চাঁদের মাটি ও পাথর এলো ৪৪ বছর পর।  ক্যাপসুলটি পরিকল্পনামাফিক ভাবেই পৃথিবীতে অবতরণ

বিস্তারিত..

ট্রাক খাদে পরে চালকের মৃত্যু-টাঙ্গাইলে

ট্রাক খাদে পরে চালকের মৃত্যু-টাঙ্গাইলে

সবজি বোঝাই ট্রাক খাদে পরে চালকের মৃত্যু হয়েছে ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে ।আরো দুজন এ দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন । ১৭ ডিসেম্বর ভোর ৫টায় উপজেলার বাওইখোলা নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতের

বিস্তারিত..

করোনায় আরও ১০ হাজার প্রাণহানি

বিশ্ব করোনায় সর্বোচ্চ মৃত্যু দেখল ১১ মাসে

মহামারি করোনা ভাইরাস বিশ্বজুড়ে আবারও ভয়ংকর হতে শুরু করছে। বর্তমানে বিশ্বজুড়ে সাত কোটি ৪৫ লাখ এ ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে । এ মহামারিতে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ১৬

বিস্তারিত..

‘বদি’খ্যাত অভিনেতা আব্দুল কাদের ক্যান্সারে আক্রান্ত

‘বদি’খ্যাত অভিনেতা আব্দুল কাদের ক্যান্সারে আক্রান্ত

কালজয়ী ‘কোথাও কেউ নেই’ ধারাবাহিকের অন্যতম চরিত্র ‘বদি’খ্যাত অভিনেতা আব্দুল কাদের মরণব্যাধী ক্যান্সারে আক্রান্ত ।এই জনপ্রিয় অভিনয়শিল্পী দীর্ঘদিন ধরে জটিল অগ্ন্যাশয় ক্যান্সারে ভুগছেন।এই গুণী অভিনেতা বর্তমানে গুরুতর অবস্থায় ভারতের চেন্নাইয়ের

বিস্তারিত..

মূল ইস্যু কোভিড ১৯ মোকাবেলা

মূল ইস্যু কোভিড ১৯ মোকাবেলা

দ্বিপক্ষীয় সহযোগিতা আরও বাড়াতে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে ভার্চুয়াল বৈঠকে বসছেন। আজ ১৭ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার কোভিড-১৯ মহামারী মোকাবেলায় সহযোগিতা বৃদ্ধির বিষয়টি আলোচনায় প্রাধান্য পাবে।

বিস্তারিত..

বিজয় দিবস পালন এবং বঙ্গবন্ধু সেন্টার উদ্বোধন-দক্ষিণ আফ্রিকায়

বিজয় দিবস পালন এবং বঙ্গবন্ধু সেন্টার উদ্বোধন-দক্ষিণ আফ্রিকায়

মহান বিজয় দিবস ১৬ ডিসেম্বর দক্ষিণ আফ্রিকার প্রিটোরিয়াস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসে যথাযথ মর্যাদায় পালিত হয়েছে।জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু সেন্টারের উদ্বোধন করা হয়। দক্ষিণ আফ্রিকাস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশনার

বিস্তারিত..

বিজয় দিবস কাতারে বাংলাদেশ দূতাবাসে উদযাপন

বিজয় দিবস কাতারে বাংলাদেশ দূতাবাসে উদযাপন

করোনার স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনা ও, যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান বিজয় দিবস উদযাপন করা হয়েছে কাতার বাংলাদেশ দূতাবাসে। ১৬ ডিসেম্বর বুধবার স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ৯টায় কাতারস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসে জাতীয়

বিস্তারিত..

পার্সিয়ানরা নেইমারকে ছাড়াই লরিয়েন্তকে হারিয়েছে

পার্সিয়ানরা নেইমারকে ছাড়াই লরিয়েন্তকে হারিয়েছে

পিএসজি রাতের ম্যাচে পার্ক দ্য প্রিন্সেসে লরিয়েন্তকে আতিথ্য দেয় ।পারসিয়ানদের অনেকটা হালকাভাবে নিয়েছিলো নেইমার বিহীন অতিথিরা, যার ফল দিতে হয়েছে ম্যাচ জুড়ে। থমাস টাচেল. নেইমারকে না পেলেও আক্রমণাত্মক কৌশল থেকে

বিস্তারিত..

বার্সেলোনা

জয়ের দেখা পেলো অবশেষে বার্সেলোনা

বার্সেলোনার লিওনেল মেসির শত চেষ্টাতেও, লা লিগায় ফর্মটা পক্ষে নেই।রোনাল্ড কোম্যান খেলোয়াড় বসিয়ে কৌশল বদলে,কোনভাবেই পয়েন্ট ঘরে তুলতে পারছেননা । এ অবস্থায় নিজেদের মাঠে সোসিয়েদাদকে আতিথ্য দেয়ার আগে, বেশ অস্বস্তিতে

বিস্তারিত..

https://thenewse.com/wp-content/uploads/Horoscope.jpg

দিনের শুরুতে দেখেনিন আপনার আজকের রাশিফল ১৭ ডিসেম্বর

প্রত্যেকটি রাশির নিজস্ব আলাদা আলাদা বৈশিষ্ট্য থাকায় রাশিফলও আলাদা হয়ে থাকে। সেইমত চললে আপনার জীবনের সকল বাধার বিষয়ে আপনি অবগত হবেন। বাধাগুলোকে পাশ কাটিয়ে ভালো গুলোকে বেছে নিন। তবেই জীবনে

বিস্তারিত..

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৪-২০২১ | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি
IT & Technical Support: BiswaJit