ঢাকা

বাজেট বাড়বে-আশাবাদী ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী

Link Copied!

জুন মাস আসলেই দেশজুড়ে শুরু হয় বাজেট নিয়ে আলোচনা। ক্রীড়াঙ্গনেও এনিয়ে আগ্রহের কমতি নেই। গত বছর করোনার জন্য যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের বাজেট কমেছিল। তবে এই বছর ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের বাজেট বাড়বে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল এমপি।

এই সপ্তাহেই জাতীয় সংসদে বাজেট পেশ করবেন অর্থমন্ত্রী। সেই বাজেটে ক্রীড়া খাতে বরাদ্দ সম্পর্কে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল বলেন, আমরা ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে অর্থ মন্ত্রণালয়ে একটা প্রস্তাবনা দিয়েছি। আশা করছি ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের বাজেট গত বছরের চেয়ে বাড়বে।

ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের বাজেট বাড়লে সেটা ক্রীড়ার নানা খাতে ব্যবহার করার কথা জানিয়েছেন ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী,‘আমাদের অবকাঠামোখাতে অনেক কাজ হচ্ছে। সেই খাতে কিছু ব্যয় হবে, ক্রীড়া  প্রশিক্ষণ ও উন্নয়ন খাতেও বিশেষ জোর দেয়া হবে।’

দেশের প্রায় সব খেলায় ক্রীড়া সামগ্রী বিদেশ থেকে আনতে হয়। বিদেশি ক্রীড়া সামগ্রী আনতে আমদানি শুল্ক দিতে হয় অনেক ফেডারেশনকে। ক্রীড়া খাতে আমদানি শুল্ক প্রত্যাহারে মন্ত্রণালয় আন্তরিকভাবে কাজ করছে, ‘কিছুদিন আগে টেবিল টেনিস ফেডারেশনের টেবিল আমরা বিনা শুল্কে ছাড় করিয়েছি। এ রকম আরো অনেক ফেডারেশনকে সহায়তা করার চেষ্টা করি। আমদানি পণ্যের ক্ষেত্রে শুল্কের হারের বিষয়টি কত থাকবে এটা বাজেট পেশের আগ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।’

বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন ফুটবল উন্নয়নের জন্য সাড়ে চারশ কোটি টাকা বরাদ্দ চেয়েছে। এই বিষয়টি বাজেট পেশে থাকছে না বলে জানান মন্ত্রী, ফেডারেশন আমাদের প্রস্তাবনা দিয়েছে। সেটি আমরা অর্থ মন্ত্রণালয়ে ইআরডিতে পাঠিয়েছি। তারা যাচাই-বাছাই করবে এরপর আবার সভায় উঠবে। ফুটবল ফেডারেশনের বিষয়টি এখনই উঠবে না। সংশোধিত বাজেটের আলোচনায় পরবর্তীতে এই বিষয়টি উঠতে পারে।

http://www.anandalokfoundation.com/