13yercelebration
ঢাকা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

পৌর মেয়রের বিরুদ্ধে কয়েক কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

Link Copied!

পৌরসভার নামে নদী ও খাল দখল, পৌর বাস টার্মিনাল, যাত্রী ছাউনি, পাবলিক টয়লেটসহ সড়ক ও জনপদের জমি দখল করে অবৈধভাবে পৌরসভার নামে বিভিন্ন স্থাপনা নির্মাণ করে শপিং মল, দোকান ঘর লিজ এবং অধিক মূল্যে ভাড়া দিয়ে কয়েক কোটি টাকা হাতি নেওয়া হয়েছে।

আর এ অভিযোগ উঠেছে বরিশালের বাকেরগঞ্জ পৌরসভার মেয়র লোকমান হোসেন ডাকুয়ার বিরুদ্ধে। সচেতন এলাকাবাসীর মধ্যে এ নিয়ে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হলেও পৌর মেয়রের ভয়ে প্রকাশ্যে কেউ কথা বলতে সাহস পাচ্ছেন না। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বাকেরগঞ্জ বাসস্ট্যান্ড ব্রীজ সংলগ্ন শ্রীমন্ত নদীতে হকার্স মার্কেট নির্মান করেছেন পৌর মেয়র লোকমান হোসেন ডাকুয়া।

ওই মার্কেটের চা দোকানী পৌরসভার ৪নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা জহিরুল ইসলাম জানান, নির্মিত ওই হকার্স মার্কেটে ৪১টি দোকান রয়েছে। তিনি একটি ছোট দোকান ৮৩ হাজার টাকা অগ্রিম প্রদানের পর মাসিক ১৫শ’ টাকা ভাড়ায় নিয়েছেন। অপর চায়ের দোকানী সমির বলেন, আড়াই লাখ টাকা অগ্রিম দিয়ে আমি এই মার্কেটে দুটি দোকান নিয়েছি। প্রতি মাসে দুই দোকানে ভাড়া দেই আট হাজার টাকা। এভাবেই সব দোকানী অগ্রিম টাকা দিয়ে দোকান ভাড়া নিয়েছেন।

সূত্রমতে, পৌরসভার ফান্ডে টাকা জমা দেওয়ার নামে অগ্রিম বাবদ মেয়র লোকমান হোসেন প্রায় ৫০ লাখ টাকা নিয়েছেন ওইসব দোকানঘর ভাড়া দিয়ে। পাশাপাশি প্রতিমাসে ওই মার্কেটের দোকানগুলো থেকে লাখ লাখ টাকা ভাড়া উত্তোলন করা হচ্ছে। বাস টার্মিনালের রেস্টুরেন্ট মালিক বাবুল মুন্সি অভিযোগ করে বলেন, আমার কাছ থেকে ২ লাখ ৭০ হাজার টাকা অগ্রিম নেওয়া হলেও এখন পর্যন্ত কোন কাগজপত্র দেওয়া হয়নি।

সরেজমিনে দেখা গেছে, উপজেলা শহরের প্রাণকেন্দ্র থেকে বয়ে যাওয়া তুলাতলী নদী হয়ে পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ডের সদর রোড হয়ে শহরের মধ্যদিয়ে বয়ে যাওয়া শ্রীমন্ত নদীর সাথে সংযোগ হয়েছে জেলখানার খাল। ওই খালের ওপর পৌরসভার তত্ত্বাবধানে একটি মসজিদ গড়ে উঠলেও সেই মসজিদের নাম ব্যবহার করে মেয়র লোকমান হোসেন শপিং মল মার্কেট নির্মাণ করে দখল করে নিয়েছেন খালটির দুইপাশ। সেখানে পাঁচ থেকে শুরু করে ১০ লাখ টাকা অগ্রিম নিয়ে দোকান ঘর ভাড়া দেওয়া হয়েছে। এছাড়া বাকেরগঞ্জ বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন সড়ক ও জনপদের জমি দখল করে পৌর বাস টার্মিনাল নির্মাণ করেছেন পৌরসভার মেয়র লোকমান হোসেন ডাকুয়া।

সেই বাস টার্মিনানের দ্বিতীয় তলায় লোকমান হোসেন ডাকুয়া নিজ মালিকানায় গড়ে তুলেছেন এলএফজি চাইনিজ রেস্টুরেন্ট।
সূত্রমতে, ওই বাস টার্মিনালের যাত্রী ছাউনিতে দোকান ঘর করে পাঁচ লাখ টাকা অগ্রিম নিয়ে শংকর সাহার কাছে ভাড়া দিয়েছেন পৌর মেয়র। এছাড়া বাস টার্মিনালে অর্ধশতাধিক দোকান ঘর নির্মানের পর পাঁচ থেকে সাত লাখ টাকা অগ্রিম নিয়ে অধিক মূল্যে ভাড়া দেওয়া হয়েছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক ভাড়াটিয়া দোকান মালিকরা বলেন, তাদের কাছ থেকে অগ্রিম টাকা নেওয়া হলেও পৌর মেয়র অদ্যবর্ধি তাদের কাউকে কোন দলিল বা চুক্তিপত্র কিছুই দেননি। তারা আরও বলেন, শুধু বাস টার্মিনাল থেকেই দোকান ঘর ভাড়া দিয়ে অগ্রিম বাবদ মেয়র লোকমান হোসেন প্রায় ৫০ লাখ টাকা নিয়েছেন। এছাড়া পৌর সুপার মার্কেটে নকশা বহির্ভূতভাবে সিঁড়ির নিচে ও মার্কেটের বাহিরে একাধিক দোকান ঘর নির্মাণ করে লিজ দেয়ার নামে অগ্রিম বাবদ কয়েক লাখ টাকা নিয়েছেন পৌর মেয়র।
কয়েক কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ অস্বীকার করে বাকেরগঞ্জ পৌরসভার মেয়র লোকমান হোসেন ডাকুয়া বলেন, হকার্স মার্কেট নির্মাণে যে টাকা খরচ হয়েছে সেই হিসেবে দোকানদারদের কাছ থেকে টাকা নেওয়া হয়েছে। তিনি আরও বলেন, পানি উন্নয়ন বোর্ডের জমি যখন দরকার হবে তখন তাদের ফেরত দেওয়া হবে।

এ ব্যাপারে বাকেরগঞ্জ পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী শহিদুল ইসলাম বলেন, হকার্স মার্কেটের দোকান লিজ দেওয়া কিংবা অগ্রিম টাকা নেয়ার কোন বিধান নেই। যদি কেউ নিয়ে থাকেন সেটা সম্পূর্ণ অবৈধ। বরিশাল পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ খালেদ বিন অলীদ বলেন, সরেজমিনে গিয়ে শ্রীমন্ত নদী ও জেলখানার খালটির বর্তমান পরিস্থিতি দেখে দখলদারদের তালিকা করে উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সার্বিক বিষয়ে বাকেরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ সাইফুর রহমান বলেন, নদী ও জেলখাল পানি উন্নয়ন বোর্ডের আওতায়। তারা যদি জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে সহায়তা চায়, সেক্ষেত্রে আমরা অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে তাদের সহযোগিতা করবো।

http://www.anandalokfoundation.com/