মঙ্গলবার, ২১ জানুয়ারী ২০২০, ০৫:১২ অপরাহ্ন

সর্বশেষ খবর :
মুজিববর্ষ উপলক্ষে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর ভাষায় বঙ্গবন্ধুর ভাষণ অনুবাদ করা হবে -পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী মুজিববর্ষে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর ভাষায় বঙ্গবন্ধুর ভাষণ অনুবাদ করা হবে -মন্ত্রী বীর বাহাদুর সাবেক জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমত আরা সাদেক এর মৃত্যুতে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রীর শোক সংসদ সদস্য ও সাবেক জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমাত আরা সাদেকের মৃত্যুতে ভূমিমন্ত্রীর শোক বিএসএফ এর গুলিতে পঞ্চগড় সীমান্তে এক বাংলাদেশি নিহত শার্শা উপজেলার তথ্য কেন্দ্রের তথ্য আপারা এগিয়ে চলেছে দুরন্ত গতিতে আগৈলঝাড়ায় সাধারন মানুষের দুয়ারে স্বাস্থ্য সেবা পৌচ্ছে দিচ্ছে কমিউনিটি ক্লিনিক মুজিববর্ষ পালনের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বিশ্বব্যাপী সঞ্চারিত হবে -লায়ন গনি মিয়া আশাশুনিতে কার্প-গলদা মিশ্র চাষের ফলাফল প্রদর্শক মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত ঢাকার দুই সিটিতে ইভিএম ব্যবহার না করে ব্যালটে ভোট চায় বিএনপি

টাকা নেই তাই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি অনিশ্চিত ইমন দাসের

সাবজাল হোসেন,কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ): ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ পাওয়াই মেধাবী ইমনের পরিবার পড়েছে এক ধরনের বিপাকে। কারন তার বাবা ভক্তদাস সেলুনে কাজ করে বহু কষ্টে সংসার চালান। যে রোজগারে পবিরবারের সদস্যদের ঠিকমত খাবার জোগাড়ই হয় না। সেখানে ছেলেকে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিসহ ঢাকা শহরে রেখে লেখাপড়ার খরচ কিভাবে জোগাবেন এমন মহাচিন্তায় পড়েছেন তার হতদরিদ্র মা বাবা। ইমন দাসের বাড়ি ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ পৌর এলাকার নিশ্চিন্তপুর গ্রামে।

ইমন এ বছর শহরের সরকারী মাহতাব উদ্দীন ডির্গ্রী কলেজ থেকে এইচ এসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে জিপিএ ৫ পেয়েছে। এখন সে অনার্সে ভর্তির জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয় ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার সুযোগ পেয়েছে। কিন্ত বাড়ি থেকে ঢাকার মত ব্যয়বহুল শহরে থেকে কিভাবে খরচ যোগাবে তার পরিবার সে চিন্তায় পড়েছে।

সরেজমিনে মেধাবী ছাত্র ইমনের বাড়িতে গেলে দেখা যায়, মাত্র ২ শতক জমির মাটির ওপরে বাঁশের চাটাই দিয়ে ঘেরা টিনের ছাউনির ঝুপড়ি ঘরে তাদের বসবাস। এখান থেকে লেখাপড়া করেই এ পর্যন্ত তার শিক্ষাজীবনের সবকটি পরীক্ষায় মেধার স্বাক্ষর রেখেছে।

মেধাবী ইমন দাস জানায়, আমার বাবা মা খুব বেশি লেখাপড়া জানেন না। তারপর তারা আমাদের দু,ভাইয়ের লেখাপড়া শেখাতে যে কষ্ট করেন তা দেখে আমার নিজেরই কষ্ট লাগে।

বাবা ভক্ত দাস জানান, ৬ সদস্যের সংসারে মা ক্যনসারের রোগী। একমাত্র আমিই সংসারের উপার্জনশীল ব্যক্তি। নিজে সারাদিন কাজ করে যা রোজগার হয় তা দিয়ে সংসারই ঠিকমত চালাতে পারি না। এরমধ্যে শত অভাবের মাঝেও ইমন আর শিমন দুই ছেলেকে লেখাপড়া শিখাচ্ছি। ছোট ছেলে শিমন এস,এসসি পরীক্ষার্থী। আর ইমন জেএসএসসি, এসএসসি ও এইচ এসসি সকল পরীক্ষায় জিপিএ ৫ পেয়েছে। সে এবছর অনার্সের জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ বেশ কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ পেয়েছে। এখন ভর্তিসহ যাবতীয় খরচের টাকা জোগাড় করাটা আমার জন্য অসম্ভব হয়ে দাড়িয়েছে। ছেলে একটি ভালো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তির সুযোগ পাওয়ার পরও ভর্তির টাকা জোগাড় করতে না পারাটা একজন বাবা হয়ে কষ্টকর ব্যাপার আর হতে পারে না।

ইমনের মা উষা রানী দাস জানান, অভাবের সংসারে দু’ছেলের লেখাপড়ার খরচ যোগাতে সব সময় হিমশিম খেতে হয়। অনেক সময় সংসারের খাবার না কিনেও সন্তানদের লেখাপড়ার সামগ্রী কিনে থাকেন। কিন্ত এতোদিন একটা পর্যায়ে ছিল এখন কিভাবে ইমনের বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি ও খরচের টাকা জোগাড় করবেন সে কারনে তাদেরকে সব সময় চিন্তা করতে হচ্ছে। তিনি জানান, এতোদিন শিক্ষকেরা ও অনেক প্রতিবেশী ইমনকে ভালোবেসে সাহায্য করেছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির গল্প যখন করা হচ্ছে তখন আমাদের মুখের দিকে ফ্যালফেলিয়ে চেয়ে থাকছে। যোগাযোগের নম্বর ০১৭২৭৮৮৪০৭৩(বিকাশ), ০১৮৬৫৫০৫১৫৮।

ইমনের প্রতিবেশি আব্দুস সামাদ জানান, পিছিয়ে পড়া জনগোষ্টির ভক্ত দাসের ছেলে এক অদম্য মেধার অধিকারী। তার আচার আচরন অন্য শিক্ষার্থীর জন্য বেশ অনুকরনীয়। তিনি আরও বলেন,ভক্ত দাস আসলেও একজন দিন আনা দিন খাওয়া মানুষ। তারপরও তার ঘরে যে মেধাবী ছেলের জন্ম হয়েছে ঠিক যেন ভাঙা ঘরে চাঁদের আলো।

শেয়ার করুন..

0 responses to “টাকা নেই তাই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি অনিশ্চিত ইমন দাসের”

  1. Pritam says:

    তাকে সাহায্যের কোন লিঙ্ক দিন! তার পরিবারের! @editor or reporter

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

দি নিউজ এর বিশেষ প্রকাশনা

পুরাতন সংবাদ পডুন

SatSunMonTueWedThuFri
    123
18192021222324
25262728293031
       
   1234
       
282930    
       
      1
       
     12
       
2930     
       
    123
25262728   
       
      1
9101112131415
30      
  12345
6789101112
272829    
       
   1234
2627282930  
       
1234567
891011121314
22232425262728
293031    
       
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৯
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি
IT & Technical Support: BiswaJit