সোমবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০৮:৩০ অপরাহ্ন

সর্বশেষ খবর :
মাগুরায় ডিজিটাল বিদ্যালয়ের স্বীকৃতি পেল রাঘবদাউড় মাধ্যমিক বিদ্যালয় বীর মুক্তিযোদ্ধাদের টার্মিনাল চার্জ ও লঞ্চঘাটের প্রবেশ ফি মওকুফ দৌলতখানে দাখিল পরীক্ষার্থীকে গনধর্ষণের ঘটনায় মামলা দায়ের নাগেশ্বরীতে বাল্যবিবাহ নিরোধ বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত বৈচিত্রের মধ্যে ঐক্য সমন্বয়ে ভারত পৃথিবীতে সর্বশ্রেষ্ঠ -ট্রাম্প কেরাণীগঞ্জে বায়ুদূষণ বিরোধী অভিযানে ৭ টি ইটভাটা ধ্বংস এবং ৫০ লক্ষ টাকা জরিমানা আদায় পুলিশের কব্জায় অটোরিক্সা, ক্যান্সার আক্রান্ত মাকে বাঁচাতে শেষ আশ্রয়স্থল বিক্রি সন্তানের বগুড়ায় ৪৮৭ বোতল ফেন্সিডিলসহ ২ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার পঞ্চগড়ে প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক নিয়োগ প্রত্যাশীদের মানববন্ধন শার্শা গোগা সীমান্তে  মাদক সম্রাট তবিবার রহমান ইয়াবাসহ আটক

শরিয়ৎ আইনে ঋতুবতী হলেই বিয়ে করা যাবে ধর্মান্তরিত মেয়েকে -পাকিস্তান আদালত

জোর করে ধর্মান্তরিত মেয়েকে ঋতুমতী হলেই বিয়ে করা যাবে -পাকিস্তান আদালত

দি নিউজ ডেক্সঃ জোরপূর্বক ধর্মান্তরিত করে হুমাকে বিয়ে করা প্রসঙ্গে পাকিস্তানের হাইকোর্টের বিচারপতি শরিয়ৎ আইনকে উল্লেখ করে জানান, হুমা প্রাপ্তবয়স্ক কি না, তা আদৌ গুরুত্বপূর্ণ নয়। বরং ঋতুমতী বলেই আব্দুলের সঙ্গে তার বিবাহ বৈধ।

ঘটনার সূত্রপাত গত বছর। অভিযোগ, ২০১৯-এর গত ১০ অক্টোবর খ্রিস্টান পরিবারের মেয়ে ১৪ বছরের হুমা ইউনুসকে বাড়ি থেকে অপহরণ করেন বছর আঠাশের আব্দুল জব্বার। জোরপূর্বক ধর্মান্তরিত করে হুমাকে বিয়ে করেন তিনি। মেয়েকে ফিরে পেতে সেই থেকে আইনি লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন হুমার বাবা ইউনিস এবং মা নাগিনা মাসিহ্। তাঁদের দাবি, ২০০৫ সালের ২২ মে হুমার জন্ম। গির্জা এবং স্কুলের নথিপত্রেও তার প্রমাণ রয়েছে। সেই হিসাবে হুমার বয়স ১৪ বছর। সিন্ধ বাল্য বিবাহ প্রতিরোধ আইন অনুযায়ী, বিয়ের ন্যূনতম বয়স যেখানে ১৮ বেঁধে দেওয়া হয়েছে, সেখানে হুমা ও আব্দুলের বিবাহ আইনত বৈধ নয়।

কিন্তু, সোমবার এই মামলার শুনানি চলাকালীন তাঁদের যুক্তিকে আমল দেননি সিন্ধ হাইকোর্টের দুই বিচারপতি মহমম্দ ইকবাল কালহোরো এবং ইরশাদ আলি শাহ। তারা বলেন যেভাবেই হোক হুমা এখন ধর্মান্তরিত এছাড়াও শরিয়ৎ আইনকে উল্লেখ করে তাঁরা বলেন হুমা প্রাপ্তবয়স্ক কি না, তা আদৌ গুরুত্বপূর্ণ নয়। বরং ঋতুমতী বলেই আব্দুলের সঙ্গে তার বিবাহ বৈধ। তা নিয়ে আন্তর্জাতিক মহলে ফের এক বার মুখ পুড়ল ইমরান খান সরকারের।

সেই সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে অনলাইনে আন্তর্জাতিক মহলের সাহায্যও চেয়েছেন হুমার মা। তিনি বলেছেন, বিচার ব্যবস্থার উপর আস্থা রাখতে পারছি না। খ্রিস্টানদের এ দেশের নাগরিক হিসাবে মর্যাদা দিতে ব্যর্থ সরকার।

যদিও জোর করে ধর্মান্তরণ এবং বিয়ের ঘটনা পাকিস্তানে নতুন কিছু নয়। বিশেষ করে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষ প্রায়শই এর শিকার হন সেখানে বলেই অভিযোগ। গত এক মাসে এই সিন্ধ প্রদেশ থেকেই দু’দু’টি ঘটনা সামনে এসেছে, যেখানে দুই হিন্দু মেয়েকে ধর্মান্তরিত করে, জোরপূর্বক বিয়ে করা হয়েছে।

তথ্যসূত্রঃ আনন্দবাজার পত্রিকা

শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

দি নিউজ এর বিশেষ প্রকাশনা

পুরাতন সংবাদ পডুন

SatSunMonTueWedThuFri
22232425262728
29      
       
   1234
       
282930    
       
      1
       
     12
       
2930     
       
    123
25262728   
       
      1
9101112131415
30      
  12345
6789101112
272829    
       
   1234
2627282930  
       
1234567
891011121314
22232425262728
293031    
       
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৪-২০২০ ||
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি
IT & Technical Support: BiswaJit