১৬ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ২রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ৭:৪৯
সর্বশেষ খবর

ট্রাম্পের সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত শারীরিক সম্পর্কঃ মুখ খুললেন নিকি হ্যালি

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত শারীরিক সম্পর্ক থাকার গুঞ্জন অস্বীকার করেছেন জাতিসংঘে নিযুক্ত দেশটির রাষ্ট্রদূত নিকি হ্যালি। ট্রাম্প প্রশাসনে গুটিকয়েক উচ্চপদস্থ নারী কর্মকর্তার মধ্যে তিনি একজন। এর আগে সাউথ ক্যারোলাইনা অঙ্গরাজ্যের গভর্নর ছিলেন হ্যালি। মার্কিন রাজনীতি বিষয়ক সংবাদমাধ্যম পলিটিকোকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এই গুঞ্জন কেবল উড়িয়েই দেননি, একে ‘খুবই আপত্তিকর ও বিরক্তিকর’ বলেও আখ্যা দেন। অনেকটা যুক্তি দেওয়ার সুরে তিনি বলেন, তিনি কখনই প্রেসিডেন্টের সঙ্গে একাকী থাকেন না।

সাংবাদিক মাইকেল ওলফের ফায়ার অ্যান্ড ফিউরি বইটি প্রকাশের পর ডোনাল্ড ট্রাম্প ও নিকি হ্যালির মধ্যে শারীরিক সম্পর্ক থাকার গুজব অনলাইন ও ওয়াশিংটনে ছড়িয়ে পড়ে। ওলফ গত সপ্তাহে টেলিভিশন সাক্ষাৎকারে বলেছেন, তিনি ‘শতভাগ নিশ্চিত’ যে ট্রাম্প বর্তমানে কারও একজনের সঙ্গে বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে আছেন। ওলফের এই মন্তব্যের পর অনেকেই অনুমান করছেন, ট্রাম্পের কথিত এই প্রেমিকা হলেন হ্যালি। কিন্তু নিকি হ্যালি বলেছেন, এমন অনুমান একেবারেই সত্য নয়।

নিকি হ্যালিকে প্রেসিডেন্টের গোপন প্রেমিকা ভাবার কারণ হলো, ওলফ তার বইয়ে লিখেছেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প তার সরকারী বিমান এয়ার ফোর্স ওয়ানে তাকে সঙ্গে প্রচুর ব্যক্তিগত সময় অতিবাহিত করেছেন। এই প্রসঙ্গ উল্লেখ করে হ্যালি বলেন, ‘আক্ষরিক অর্থেই আমি এয়ার ফোর্স ওয়ানে চড়েছি মাত্র একবার। আর আমি যখন সেখানে ছিলাম আমার সঙ্গে একই কক্ষে অনেকেই ছিলেন।’

৪৬ বছর বয়সী হ্যালি ২০ বছর ধরে বিবাহিত জীবন যাপন করছেন। তার দুই সন্তানও আছে। তিনিই দক্ষিণ ক্যারোলাইনার প্রথম নারী গভর্নর। মার্কিন ইতিহাসে তিনি ভারতীয় বংশোদ্ভূত দ্বিতীয় আমেরিকান গভর্নর।
পলিটিকোর সঙ্গে সাক্ষাৎকারে, ট্রাম্পের সঙ্গে সম্পর্ক থাকার গুঞ্জব সম্পর্কে হ্যালি বলেন সফল নারীদের আক্রমণ করাটা নতুন কিছু নয়। ডনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসনে মন্ত্রী পদমর্যাদার নারী আছেন হ্যালি সহ চারজন।
গুঞ্জন রয়েছে ভবিষ্যতে রিপাবলিকান দল থেকে প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হতে পারেন হ্যালি। ২০১৬ সালের নির্বাচন শেষ হলে তিনি বলেন, তিনি ট্রাম্পের ভক্ত নন, তবে তাকেই নির্বাচনে ভোট দিয়েছেন। তিনি পলিটিকোকে আরও বলেন, ‘ওলফ বলেছেন, আমি নাকি প্রেসিডেন্টের সঙ্গে আমার রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ নিয়ে অনেক আলাপ করে বেড়াই। আমি কখনই আমার ভবিষ্যত নিয়ে প্রেসিডেন্টের সঙ্গে আলাপ করিনি।’ যুক্তি হিসেবে তিনি আরও বলেন, ‘আমি কখনই প্রেসিডেন্টের সঙ্গে একান্তে যাই না।’

গত বছরের ডিসেম্বরে হ্যালি বলেছিলেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের বিরুদ্ধে যেসব নারী যৌন নিপীড়নের অভিযোগ তুলেছেন, তাদের কথা শোনা দরকার। এই সাক্ষাৎকারে তাকে প্রশ্ন করা হয়, ওই মন্তব্যের কারণে ট্রাম্প তার ওপর ক্ষিপ্ত হয়েছিলেন কিনা। জবাবে হ্যালি বলেন, ট্রাম্পের সঙ্গে তার সম্পর্ক আগের মতোই আছে।
এই মাসে এ নিয়ে দুইবার প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের বিরুদ্ধে বিবাহ বহির্ভ’ত শারিরীক সম্পর্ক স্থাপনের অভিযোগ উঠলো। এ মাসের শুরুর দিকে, স্টর্মি ড্যানিয়েলস ছদ্মনামের একজন পর্নস্টারের দেওয়া ২০১১ সালের একটি সাক্ষাৎকার প্রকাশিত হয়। ওই পর্ন তারকা দাবি করেন, স্ত্রী মেলানিয়ার সন্তান জন্মদানের কিছুদিন পরই তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে জড়ান ট্রাম্প। তবে প্রেসিডেন্টের আইনজীবীরা ওই বক্তব্যকে মিথ্যা বলে উড়িয়ে দিয়েছেন।

শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.