সর্ব শেষ খবর
১৯শে জানুয়ারি, ২০১৮ ইং | ৬ই মাঘ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ | সন্ধ্যা ৭:২১
সামাজিক শক্তি

দু’টি দলের কাছে জনগণ জিম্মি, ক্ষুদিরামের মতো প্রতিবাদী লোকের প্রয়োজন

প্রাণতোষ তালুকদারঃ  বাংলাদেশে দু’টি দলের নিকট জনগণ জিম্মি।  ক্ষুদিরামের মতো প্রতিবাদী একজন লোকের প্রয়োজন। সামাজিক শক্তি সমূহের অংশীদারিত্বের শাসনব্যবস্থা ও রাষ্ট্রীয় কাঠামো এবং ৯টি প্রদেশ ও দুই কক্ষ বিশিষ্ট জাতীয় সংসদের প্রয়োজন।

অদ্য ১৩ জানুয়ারী ২০১৮ রোজ শনিবার, বিকাল ৪টার রাজধানী ঢাকার জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে সামাজিক শক্তির ৯ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী-২০১৮ উপলক্ষে আলোচনা সভার বক্তারা এমন বক্তব্য তুলে ধরেন।

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জেএসডি সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন বলেন, দুই দলের নিকট আর যেন জনগণ জিম্মি না থাকে তাই বাংলাদেশে তৃতীয় রাজনৈতিক দল গড়ে তুলতে হবে। সীমাহীন লুটপাটের রাজত্ব চলছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডাকসুর সাবেক ভিপি মাহমুদুর রহমান মান্না ক্ষমতাসীন সরকারকে বলেন, প্রহসন ও ভন্ডামি করে ক্ষমতায় বসে আছে এই সরকার। গায়ের জোরে চার বছর ক্ষমতায় আছেন।

মাহমুদুর রহমান মান্না আরও বলেন, শাসনের নামে ভন্ডামি চলছে, কর্মসংস্থা বলতে কিছুই নাই। ওরা জনগণের কথা ভাবে না। সমাজের কথা ভাবে না।

গণস্বাস্থ্যের হাসপাতালের কর্ণধার ডাঃ জাফরুল্লা চৌধুরী বলেছেন, এত উন্নয়ন মানুষ গুম হচ্ছে, চারশোর অধিক মানুষের ফাঁসি হয়েছে। যারা গুম হয়েছে তাদের বিচার নাই। তিনি বলেন ক্লাস ওয়ানের প্রশ্নপত্র ফাঁস হয় কি করে? তা হলো দুর্নীতি। সবকিছুই ঘুষের জন্য হয়েছে।

জাসদের নেতা আ.স.ম আঃ রব বলেছেন যে ঘুষ, চুরি, হত্যা, গুম; রাজনীতি ছাড়া একটা ধূলিকণাও নড়ে না। ১৬ কোটি মানুষের মধ্যে ৩% রাজনীতি করে।

তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী বলেছেন জনগণ ক্ষমতার মালিক; জনগণের তো প্রতিবাদ করার অধিকার নাই। জনগণের কোন ক্ষমতা নাই। এদেশের মালিকানা কার? এদেশের জনগণের মুখ বন্ধ করে দিয়েছে। পারমিশন ছাড়া কিছুই করতে পারবেন না।

তারা চান তৃতীয় কোন শক্তি দেশ পরিচালনা করুক। দুই দলের নিকট জনগণ যেন আর জিম্মি না হয়। ঘুষ, দুনীর্তি, লুঠপাট, মাদকের রাজনীতি চান না এবং সামনে সুষ্ঠু নির্বাচনেরও কথা উল্লেখ করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*