১৭ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং | ৩রা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১০:২৯
এবি ব্যাংকের কর্মকর্তার দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা

এবি ব্যাংকের আরও ৪ কর্মকর্তার দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা

বিশেষ প্রতিবেদকঃ  আরব বাংলাদেশ ব্যাংকের (এবি) আরও চার কর্মকর্তাকে দেশত্যাগের নিষেধাজ্ঞা জানিয়ে চিঠি দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

যে চার কর্মকর্তার দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে, তারা হলেন— ব্যাংকটির হেড অব করপোরেট মাহফুজ উল ইসলাম, হেড অব অফশোর ব্যাংকিং ইউনিট (ওবিইউ) মোহাম্মদ লোকমান, ব্যাংক কোম্পানি সেক্রেটারি মহাদেব সরকার সুমন ও প্রধান কার্যালয়ের কর্মকর্তা এমএন আজিম।

বৃহস্পতিবার (৪ জানুয়ারি) দুদক পরিচালক সৈয়দ ইকবাল হোসেনের সই করা এক চিঠিতে ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষকে এই নিষেধাজ্ঞার কথা জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এর আগে, গত ২৮ ডিসেম্বর প্রতিষ্ঠানটির সাবেক চেয়ারম্যান এম ওয়াহিদুল হক ও সাবেক দুই এমডিসহ মোট ১২ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার বিদেশ ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিল। বিদেশে ২০ মিলিয়ন ডলার পাচারের অভিযোগের সঙ্গে ওইসব কর্মকর্তাদের সংশ্লিষ্টতার প্রাথমিক তথ্য-প্রমাণ পাওয়ায় ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষের কাছে দুদক এ চিঠি দেয়। দুদক পরিচালক সৈয়দ ইকবাল এসব তথ্য  বাংলা ট্রিবউনকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে, ব্যাংকটির গ্রাহক ব্যবসায়ী সাইফুল হককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বৃহস্পতিবার হাজির হওয়ার কথা বলা হয়েছিল। তবে তিনি উপস্থিত হননি। দুদক জানিয়েছে, আগামী ৭ জানুয়ারি অভিযোগ অনুসন্ধানে এবি ব্যাংকের সাত পরিচালককে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। পরিচালকরা হলেন— শিশিররঞ্জন বোস, মো. মেজবাহুল হক, মো. ফাহিমুল হক, সৈয়দ আফজাল হাসান উদ্দিন, মোছা. রুনা জাকিয়া ও মো. আনোয়ার জামিল সিদ্দিকি।

এ ঘটনায় এরই মধ্যে ব্যাংকটির সাবেক চেয়ারম্যান এম ওয়াহিদুল হক, সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম ফজলার রহমান ও শামিম আহমেদ চৌধুরীসহ ৯ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।

অভিযোগের বিষয়ে দুদক সূত্রে জানা যায়, পিজিএফ নামের দুবাইভিত্তিক একটি কোম্পানির সঙ্গে চুক্তি করে ২০ মিলিয়ন ডলার ঋণ হিসেবে দেওয়ার কথা বলা হয়েছিল। তবে ওই কোম্পানির কোনও কর্মকর্তার নাম বা পরিচয় কাগজপত্রে দেখাতে পারেনি এবি ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। বরং ব্যাংক কর্তৃপক্ষ ওই টাকা ব্যক্তিগত হিসাবে স্থানান্তর করেছে। তিন কিস্তিতে ওই টাকা দুবাই যাওয়ার পর ব্যাংক হিসাব বন্ধ করে দেয় প্রতারকচক্র। এর পরের কোনও তথ্য এবি ব্যাংকের কাছে নেই।

গত ২১ ডিসেম্বর দেশের প্রথম বেসরকারি ব্যাংক এবি ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান এম ওয়াহিদুল হক, ভাইস চেয়ারম্যান সেলিম আহমেদ ও পরিচালক ব্যারিস্টার ফাহিমুল হক পদত্যাগ করেন। রাজধানীর লা মেরিডিয়ান হোটেলে ব্যাংকটির বার্ষিক সাধারণ সভায় (এজিএম) তারা পদত্যাগ করেন।

শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.