১৬ই জানুয়ারি, ২০১৮ ইং | ৩রা মাঘ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ | রাত ৯:২০
ওয়ারী সিটি কলোনীতে কীর্ত্তন

দয়াগঞ্জ শ্রীশ্রী শিব রাম মন্দির প্রাঙ্গণে ১৩তম বাৎসরিক মহোৎসব উদ্‌যাপিত

প্রানতোষ তালুকদারঃ বিশ্ব শান্তি কল্পে ১৩ম বাৎসরিক মহোৎসব দ্বাদশ প্রহর ব্যাপী শ্রীশ্রী তারকব্রহ্ম হরিনাম সংকীর্ত্তন, ধর্মীয় আলোচনা ও নামসুধার আয়োজন।

আজ শনিবার রাজধানী ঢাকার ওয়ারী থানাধীন রাজধানী মার্কেটের দক্ষিণ পাশে ওয়ারী সিটি কলোনীস্থিত শ্রীশ্রী শিব রাম মন্দির প্রাঙ্গণে মন্দির কমিটির পরিচালনায় ওয়ারী সমাজ কল্যাণ যুব সংঘের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হলো।

দ্বাদশ প্রহর ব্যাপী শ্রীশ্রী তারকব্রহ্ম হরিনাম সংকীর্ত্তন ও ধর্মীয় আলোচনা ও নামসুধা পরিবেশনায় ছিলেন শ্রীশ্রী শিব রাম সম্প্রদায় (ওয়ারী, ঢাকা), গৌর গোপাল সম্প্রদায় (গোপালগঞ্জ), শ্রীকৃষ্ণ অমর বাচ্চু সম্প্রদায় (গনকটুলী, ঢাকা), শ্রীশ্রী গোপাল মন্দির সম্প্রদায় (চট্টগ্রাম), শ্রী শিবাণী সম্প্রদায় (গোপালগঞ্জ) এবং শ্রীমদ্ভাগবত পাঠ ও ধর্মী আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

হিন্দু ধর্মালম্বীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে যে যুগাবতার ভগবান শ্রীকৃষ্ণ কলিহত জীবের উদ্ধার ও বিশ্ব মানব কল্যাণের জন্য শ্রীচৈতন্যরূপে গোলক ছেড়ে ভূলোকে আবির্ভূত হয়েছিলেন। পাপাচ্ছন্ন মানবের উদ্ধারের একমাত্র সম্বল হরিনাম মহামন্ত্র যাহা শ্রবণে জীবের মহামুক্তি। শ্রীচৈতন্য দেব করুণা ভরা এই মহামন্ত্র হরিনাম কলিহত জীবের উদ্দেশ্যে নেচে গেয়ে বলেছেন “হরে কৃষ্ণ হরে কৃষ্ণ কৃষ্ণ কৃষ্ণ হরে হরে। হরে রাম হরে রাম রাম রাম হরে হরে।

হিন্দু ধর্মালম্বীদের বিশ্বাস এই হরে কৃষ্ণ মন্ত্রে মানুষ উদ্ধার হবে। জীব মুক্তি লাভ করবে। তাই যুগে যুগে হিন্দু ধর্মালম্বীগণ শ্রীশ্রী তারকব্রহ্ম হরিনাম সংকীর্ত্তন পালন করে আসছেন। যাতে করে মানুষ পাপ হতে মুক্তি লাভ করে। আর যেন মানুষ পাপ কাজ না করে। দেশ তথা সমাজ সংসার ভাল থাকে। সকল জীবের শান্তি কামনায় এই নাম যজ্ঞ অনুষ্ঠান পালন করে আসছে।

দয়াগঞ্জের সমাজ কল্যাণ যুব সংঘের সভাপতি কার্ত্তিক লাল মাকরিয়া ও সাধারণ সম্পাদক শ্রী সানোয়ার দাস ও সিনিয়র সদস্যগণ শ্রী খোকন লাল, শ্রী বিক্রম দাস, শ্রী সুমন সামুন, শ্রী সাধু লাল, শ্রী কমল দাস, শ্রী বাবু লাল ফোটে, শ্রী উত্তম চন্দ্র দাস, শ্রী জয়শ্রী সিং, শ্রী সিকোমার দাস, শ্রী শিপন দাস মুনাদের সঙ্গে আলোচনা করে জানা গেছে যে ২২/২৩, দয়াগঞ্জ রোডস্থিত শ্রীশ্রী শিব রাম মন্দিরটি অনেক প্রাচীন মন্দির।

তাহারা এই কলোনীতে বংশ পরম্পরায় বসবাস করিয়া আসিতেছেন এবং মন্দিরটি রক্ষণাবেক্ষণ ও পূজা-অর্চনা করিয়া আসিতেছেন এবং তাহারা সরকারী সহযোগিতা পেলে মন্দিরটির অনেক উন্নয়ন করা সম্ভব। এই কলোনীতে বহু লোকের বসবাস। তাহারা সব সময় মানব কল্যাণে কাজ করে আসছে।

শ্রীশ্রী শিব রাম মন্দির কমিটি ও ওয়ারী সমাজ কল্যাণ যুব সংঘ প্রতিবারের ন্যায় এবারও শ্রীশ্রী তারকব্রহ্ম মহানাম সংকীর্ত্তন ৯ পৌষ ১৪২৪ (২৩ ডিসেম্বর ২০১৭) শনিবার মহাপ্রভুর রাজভোগ ও মহাপ্রসাদ বিতরণ করেছেন এবং সন্ধ্যা ৬টায় শ্রীশ্রী সত্যনারায়ণ দেবের পূজার মাধ্যমে দুই দিনের অনুষ্ঠানের সমাপ্তি করেছেন।

ওয়ারী সিটি কলোনী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*