১৩ই ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং | ৩০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ | রাত ২:৩১

৪ মামলার সোহেল-আমিনুলসহ বিএনপির আসামি শতাধিক

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) আদালতে হাজিরা দিয়ে ফেরার সময় রাজধানীর সচিবালয়ের সামনে ও বঙ্গবাজার এলাকায় গাড়ি ভাঙচুরসহ আগুন দেয়ার ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে পৃথক ৪টি মামলা দায়ের করেছে। জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় আদালতে আত্মসমর্পণের পর বেগম জিয়া ফিরছিলেন।

বুধবার (৬ ডিসেম্বর) ডিএমপির শাহবাগ থানায় পুলিশের ৪ উপ-পরিদর্শক (এসআই) বাদী হয়ে এই মামলাগুলো করেন। রাতে শাহবাগ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবু জাফর বিশ্বাস ব্রেকিংনিউজকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

পৃথক এসব মামলায় বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি হাবীব-উন-নবী সোহেল এবং ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক সাবেক ফুটবলার আমিনুল ইসলামসহ শতাধিক নেতাকর্মীকে আসামি করা হয়েছে। ইতিমধ্যে ঘটনার আটক আমিনুলসহ ৩৫ জনকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

শাহবাগ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবু জাফর বিশ্বাস জানান, গত মঙ্গলবার সকালে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া আদালতে আত্মসমর্পণের পর দুপুরে হাইকোর্ট সংলগ্ন রাস্তা দিয়ে ফিরছিলেন। খালেদা জিয়াকে সমর্থন জানাতে বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদলের বিপুল-সংখ্যক নেতাকর্মীরা হাইকোর্টের মাজার মোড়ে অবস্থান নেন।

তিনি জানান, নেতাকর্মীরা রাস্তায় নেমে মিছিল করতে চাইলে পুলিশ বাধা দেয়। এতে পুলিশের সঙ্গে তাদের সংঘর্ষ শুরু হয়। এ সময় পুলিশের ধাওয়া খেয়ে দৌড়ে পালানোর সময় বিএনপি নেতাকর্মীরা সচিবালয়ের সামনে ও বঙ্গবাজার এলাকায় অন্তত শতাধিক গাড়ি ভাঙচুর করে। তারা দৌড়ে পালানোর সময় একজন পুলিশ সার্জেন্টের মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। ঘটনাস্থল থেকে বিএনপির ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক আমিনুল হকসহ ৩৫ জনকে আটক করা হয় বলে জানান তিনি।

শাহবাগ থানা পুলিশ জানায়, বুধবার দায়ের হওয়া মামলাগুলোয় ঘটনাস্থল থেকে আটককৃতদের ছাড়াও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি, ছাত্রদল ও যুবদলের নেতাকর্মীদের আসামি করা হয়েছে। এছাড়া মামলায় অজ্ঞাতনামা আসামিও রয়েছে। এজাহারভুক্ত আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*