২৩শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং | ৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ | সকাল ৮:০২

সৈয়দ আশরাফের স্ত্রী আর নেই

বিশেষ প্রতিবেদক : বাংলাদেশ    আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের স্ত্রী শীলা ইসলাম আর নেই। ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন রাজিউন।

সৈয়দ আশরাফের মামাতো ভাই মইনুজ্জামান অপু এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।   তিনি জানান, লন্ডনের ইউসিএলএইচ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় স্থানীয় সময় রোববার রাত৩টার (বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে ৮টা) দিকে শীলা ইসলামইন্তেকাল করেন।

মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫৭ বছর।শীলা দীর্ঘদিন ধরে ক্যানসারে ভুগছিলেন।মৃত্যুর সময়ে তার পাশে ছিলেন স্বামী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, কন্যা রীমাআশরাফ, দেবর শাফায়েতুল ইসলাম ও জা।

এর আগে গেলো এপ্রিলে জার্মানির একটি হাসপাতালেকেমো থেরাপিসহ ক্যানসারেরবিভিন্ন চিকিৎসা করা হয় তার। জার্মানিতে তার অস্ত্রোপচার করা হয়। ৩ মাস আগে লন্ডনের একটি হাসপাতালে গুরুতর অসুস্থ শীলা ইসলামকে ভর্তি করা হয়। তাকে কৃত্রিম শ্বাস-প্রশ্বাসের সহায়তায় বাঁচিয়ে রাখা হয়েছিল। সেখানে কিছুটা সুস্থ হওয়ার পর তাকে লন্ডনের বাসায় নিয়ে যাওয়া হয়। পরে সেখান থেকে তাকে সেন্ট্রাল লন্ডনের একটি হাসপাতালের ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (আইসিইউ) নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়। এই হাসপাতালেই সোমবারমারা যান তিনি।

তার পরিবারের সদস্যরা দীর্ঘদিন ধরে যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডনে বসবাস করছেন।শীলা ইসলাম লন্ডনের একটি স্কুলের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষিকা ছিলেন।শীলা ইসলামের জন্ম ও পড়াশোনা লন্ডনে। তিনি লন্ডনের মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটি ও ইউনিভার্সিটি আব নটিংহাম থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি নেন।তাদের একমাত্র মেয়ে রীমা ইসলাম লন্ডনের এইচএসবিসি ব্যাংকের একজন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা।

সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ। তিনি ছাত্র জীবন থেকেই রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন। বর্তমান সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের আগে তিনি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বের আগে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন সৈয়দ আশরাফ।সৈয়দ আশরাফের বাবা সৈয়দ নজরুল ইসলাম বাংলাদেশের প্রথম অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

WordPress spam blocked by CleanTalk.