২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ১০ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ৩:৩৭
সর্বশেষ খবর

বন্দুকের নল ধরে প্রধান বিচারপতিকে ছুটি নিতে বাধ্য করা হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেছেন, প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার (এসকে) সিনহাকে বন্দুকের নল ধরে ছুটি নিতে বাধ্য করা হয়েছে।
শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক মানববন্ধনে প্রধান বক্তা হিসেবে এ মন্তব্য করেন তিনি। বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে একাধিক মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে এ মানববন্ধনের আয়োজন করে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী মহিলা দল।
বিএনপির এই মুখপাত্র আরো বলেন, তারা পার্লামেন্টে প্রধান বিচারপতিকে গালাগালি করেছেন। পৃথিবীর কোথাও দেশের প্রধান বিচারপতিকে এতো নোংরা এবং এতো কুশ্রাব্য ভাষায় গালাগাল করতে পারে, সরকার এবং সরকারের মন্ত্রীরা- এটার কোনো নজির নেই। সেই নজিরও আওয়ামী লীগ তৈরি করেছে।
আওয়ামী লীগ দেশের সর্বোচ্চ আদালতকে টার্গেট করে ধ্বংস করছে বলেও মন্তব্য করেন রিজভী।
প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে রিজভী আহমেদ বলেন, নিজের খবরদারী, নিজের কর্তৃত্বকে নিরঙ্কুশ করার জন্য সুপ্রিমকোর্টের মতো একটি আদালতকে তিনি তার প্রতিপক্ষ মনে করলেন। ষোড়শ সংশোধনীর রায় বাতিলের পরিপ্রেক্ষিতে, কয়েকটা অবজারভেশন, আওয়ামী লীগ এবং তাদের সরকার প্রধান মনে করলেন ওরে বাপরে, এটাতো সাংঘাতিক বিষয়।

রিজভী আরও বলেন, আমার দেখলাম প্রধান বিচারপতি কিছুদিন আগে ছুটি কাটিয়ে দেশে এসে উনার কর্মস্থলে যোগ দিয়েছেন, আবার উনি নাকি ছুটি নিয়েছেন। প্রধান বিচারপতি নিজেই নিজের ছুটি নিতে পারেন। ছুটি নিলেতো আগেই নিতে পারতেন। গ্রীষ্মকালীন ছুটি নিয়ে তিনি যখন কানাডা, জাপান গেলেন তখনই নিতে পারতেন।
তিনি বলেন, ‘এটাও কি জনগণের জানতে বাকি আছে, যে উনি ছুটি নিয়েছেন না তার স্বাক্ষর জালিয়াতি করে, জোর করে, হুমকি দিয়ে বন্দুকের নল ধরে ছুটির ব্যবস্থা করা হয়েছে।’
মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাসের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন- বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান।
মানববন্ধনে মহিলা দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদের পরিচালনায় মহিলাদলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.