সর্ব শেষ খবর
২৪শে আগস্ট, ২০১৭ ইং | ৯ই ভাদ্র, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ | সকাল ১০:৫৭
সুনামগঞ্জে শিশু কন্যা লাশ

নিখোঁজের ৩ দিন পর সুনামগঞ্জে এক শিশু কন্যা সহ দু’জনের লাশ ভেসে উঠলো

নিজস্ব প্রতিনিধি:  সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে ট্রলার ডুবে নিখোঁজের ৩ দিন পর শনিবার এক শিশু কন্যা সহ দু’জনের লাশ লাশ ভেসে উঠলো শনির হাওড়েই।’এদিকে ট্রলাবর ডুবির ঘটনায় তিন শিমু কন্যা সহ ৪ জন নিখোঁজের পর শনিবার পর্য্যন্ত তিন দিন পেরিয়ে গেলেও সিলেট থেকে আসা ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দলের পাঁচ সদস্য নিখোঁজ ঝুমা নামের ৫ বছর বয়ষী অপর এক শিশু কন্যার সন্ধান মেলাতে পারেনি।’

নিহতরা হলেন, তাহিরপুর সদর ইউনিয়নের শিক্সা গ্রামের মৃত রজব আলীল ছেলে হারুন মেস্তরী (৪৫) ও পাশর্^বর্তী বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার ফতেহপুর ইউনিয়নের পাঁচগাঁও বাগুয়া গ্রামের মেহের জামানের তৃতীয় শ্রেণীতে পড়–য়া শিশু কন্যা তান্্হা বেগম (১২)।’ এর আগে শুক্রবার সন্ধায় সাজনা বেগম নামের ৫ বছর বয়সী আরো এক শিশু কন্যার লাশ শনির হাওরের ধাওয়া বিলের ৭’শ গজ দূরে ভেসে উঠে। এ নিয়ে গত দু’দিনের শনির হাওর থেকে দু’ শিশু কন্যা সহ ৩ জনের লাশ ভেসে উঠলো।’

জানা গেছে, বিশ^ম্ভরপুরের হাশিমপুর (শান্তিপুর) গ্রাম থেকে তাহিরপুরের দক্ষিণকুল গ্রামে মেয়ে জামাইর বাড়িতে বৌÑভাত অনুষ্ঠানে যাবার পথে শনির হাওরে ঢেউয়ের কবলে পড়ে বৃহস্পতিবার বিকেলে ট্রলার ডুবির ঘটনায় তিন শিশু কন্যা সহ ৪ জন নিখোঁজ হয়।

নিখোঁজরা হলেন, জেলার তাহিরপুর উপজেলার সদর ইউনিয়নের শিক্সা গ্রামের মৃত রজব আলীর ছেলে হারুন মেস্তরী (৪৫) ও বিশ^ম্ভরপুর উপজেলার ফতেহপুর ইউনিয়নের পাঁচগাঁও বাগুয়ার মেহের জামানের তৃতীয় শ্রেণীতে পড়–য়া শিশু কন্যা তান্হা বেগম (১২), একই উপজেলার একই ইউনিয়নের হাশিমপুর (শান্তিপুর) গ্রামের বড় সোনা মিয়ার শিশু কন্যা ঝুমা বেগম( ৫) ও ছোট সোনা মিয়ার শিশুকন্যা সাজনা বেগম (৫)।

ঘটনা হলে থাকা তাহিরপুর থানার এসআই আমির উদ্দিন শনিবার বিকেলে জানান, শনির হাওরের ধাওয়া বিলে ট্রলার ডুবির স্থান থেকে বেলা সাড়ে শনিবার তিনটার দিকে শিশু কন্যা তান্হার ও ট্রলার ডুবির স্থান থেকে কমপক্ষ্যে ৪ কি.মি. পশ্চিমে উপজেলা সদরের ঠাকুরহাটি গ্রামের সামনে শনির হাওর থেকেই বিকেল সোয় ৪টার দিকে হারুন মেস্তরীর লাশ ভেসে উঠে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*