১৩ই ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং | ২৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ | রাত ৮:৪৭
চট্টগ্রাম বেপজা স্কুল শিক্ষার্থী

চট্টগ্রাম এই হত্যাকারী শিক্ষক চাই না’ প্রতিবাদে চট্টগ্রাম বেপজা স্কুল শিক্ষার্থী

রাজিব শর্মা, চট্টগ্রামঃ ‘দাজ্জাল, কম্বল গরম, লেপ-তোষক, কলম দিয়ে প্লাস চাপ, মোটর বাইক,কানমলা ’।  এগুলো বেপজা পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজে ছাত্র-ছাত্রীদের কাছে আতংকের নাম।

নগরীর স্বনামধন্য একটি বিদ্যাপিঠে দীর্ঘদিন ধরে শাস্তির নামে মানহানিকর এসব নির্যাতন শিক্ষার্থীরা সহ্য করে আসছে। একই শাস্তির কবলে পড়ে বেপজা স্কুলের মেধাবী ছাত্র মাশরাফুল আল কারীবের আজ চোখ নষ্ট হতে চলেছে বলে অভিযোগ করেছে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।

মঙ্গলবার বিকালে ইপিজেড বে-শপিং সেন্টার চত্বরে আয়োজিত এক প্রতিবাদ সভা থেকে  ছাত্র -ছাত্রী ও অভিভাবকরা এ অভিযোগের কথা জানান।

মাসুম বিল্লার মতন উগ্র মেজাজী আরও কয়েকজন শিক্ষক রয়েছেন তাদেরকেউ আইনের আওতায় আনার দাবী জানান একাধিক অভিভাবক ।

পরে এলাকাবাসী, অভিভাবক-ছাত্র জনতা সিইপিজেড থেকে বিক্ষোভ মিছিল এবং মানববন্ধন করে অভিযুক্ত শিক্ষকের বহিষ্কারের দাবিতে বেপজার জি.এম কে অবগতসহ শিক্ষা অধিদপ্তরের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

এদিকে আজ বুধবার (৯ আগস্ট) অভিযুক্ত শিক্ষকের জামিন আবেদনের শুনানীর দিন ধার্য করা হয়েছে বলে আদালত সূত্রে জানা গেছে। গতকাল মঙ্গলবার বিকালে ইপিজেড থানা পুলিশ গ্রেফতাকৃত শিক্ষক অরিফ বিল্লাকে চট্টগ্রাম ৬ষ্ঠ মহানগর হাকিম মেহরাজ রহমানের আদালতে হাজির করলে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নিদের্শ দেন।

এ ব্যাপারে বেপজা পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষের বক্তব্য জানতে তাঁর টেলিফোনে যোগাযোগ করা হলে টেলিফোন রিসিভ না করায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয় নি।

উল্লেখ্য, ২৯শে জুলাই সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ৮ম শ্রেনীর বিশেষ কোচিং ক্লাস চলাকালে একটি অংক করতে গিয়ে ভুল করে মাশরাফুল আল কারীব। এতে গণিত শিক্ষক মো: আরিফ বিল্লা উত্তেজিত হয়ে চিকন কাটাতার প্যাঁচানো বেত দিয়ে মারতে থাকে মাশরাফুলকে। এক পর্যায়ে তারযুক্ত বেতের আঘাতে তার বাম চোখে। তার বাম চোখ সাথে সাথে লাল বর্ণ ধারণ করে এবং গুরুতর জখম হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*