২১শে আগস্ট, ২০১৭ ইং | ৬ই ভাদ্র, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ | সন্ধ্যা ৬:০৬

‘প্লাস্টিকের চাল-চিনি’তে বাজার সয়লাব, তদন্তে কমিটি

বিশেষ প্রতিবেদক :  প্লাস্টিকের চাল চিনিতে সয়লাব হয়ে গেছে বাজার। এ নিয়ে ভুক্তভোগী মানুষের অভিযোগ, পত্রিকায় একের পর এক প্রতিবেদনকোনোটাতেই ভ্রুক্ষেপ করছিল না সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। শেষে আদালতের নির্দেশে গঠন করা হয়েছে তদন্ত কমিটি।

প্লাস্টিকের চাল ও চিনি বিক্রির এই ঘটনাকে ঘিরে ভারতের কর্নাটক ও তামিলনাড়ু রাজ্যে চলছে শোরগোল। পরিস্থিতি এমন জায়গায় পৌঁছেছে, বাজার নিয়ন্ত্রণে পুলিশ নামিয়েছে রাজ্য।

গত শুক্রবার কর্নাটকের বিধানসভায় বিষয়টি উত্থাপন করেন বিরোধী দলনেতা জগদীশ শেট্টি। তিনি জানান, সংবাদমাধ্যমে প্রচারিত খবরে দাবি করা হচ্ছে- ‘অন্ন ভাগ্য বা পিডিএস’ প্রকল্পের আওতায় রাজ্য সরকার যে চাল ও চিনি বিক্রি করছে, তা প্লাস্টিকের তৈরি।

এই অভিযোগের তদন্ত করার দাবি জানান জগদীশ।বিধানসভায় জগদীশ বলেন , এই খবরটি যদি ভুয়াও হয়, তাহলে এ ধরনের ভুল খবরের তদন্ত করা উচিত। কারণ, এগুলি নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী। তিনি বলেন, সরকারের উচিত সামগ্রীগুলির পরীক্ষা করা এবং খবরের সত্যতা যাচাই করা।

জগদীশ আরো জানান, প্লাস্টিকের চিনির একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে ইন্টারনেটে। সেখানে দেখা গেছে চিনি চায়ে মেশালে মুহূর্তে ধোঁয়া উঠতে শুরু করছে চা থেকে। তারপর দেখা যাচ্ছে যে পাত্রে চা বসানো হয়েছে, পাত্রটি পুড়ে যেতে শুরু করেছে। এই ভিডিওটি শেয়ার দিচ্ছেন অনেকেই।

তবে রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী রমেশ কুমার এই অভিযোগকে খারিজ করে জানান, প্লাস্টিকের চাল বানানো সম্ভব নয়। আর রাজ্যে যখন চাল আছে সেখানে কেন কেউ বেশি খরচের প্লাস্টিকের চাল বানাবে ? রাজনৈতিক স্বার্থে এ ধরনের খবর প্রচার করা হচ্ছে বলে সন্দেহ প্রকাশ করেন তিনি।অবশ্য এই সন্দেহ প্রকাশের পর রাজ্যের এক আইনজীবী আদালতে এই বিষয়ে অভিযোগ করেন। তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*