সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১:৩৬ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ খবর :
স্ত্রী রেবেকা বেগমকে হত্যার অভিযোগে স্বামীকে গ্রেপ্তার মিজানুরের প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ছুরিকাঘাতে খুন নিলা রায়কে ৫১ হাজার টাকা মাসিক বেতনে ৬ হাজার নারী গৃহকর্মী নেবে হংকং ঢাকার গুলশানের স্পা সেন্টারে অভিযানে ২৮ জন গ্রেপ্তার আল্লামা শফীর মৃত্যু নিয়ে ফেসবুকে কটূক্তি করায় গ্রেপ্তার আলাউদ্দিন রাজারহাটে দিন দিন বেড়েই চলেছে চালসহ নিত্যপণ্যের দাম সিটিজেন এনভায়রনমেন্ট ডেভেলপমেন্ট সোসাইটির উদ্যোগে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ প্রযুক্তিনির্ভর অর্থনীতির দিকে দেশকে এগিয়ে নিতে ফ্রিল্যান্সাররা আমাদের মূল কারিগর পেঁয়াজ আমদানিতে ৫ শতাংশ শুল্ক প্রত্যাহার পরিবেশবান্ধব উন্নত বাংলাদেশ গঠনে ইঞ্জিনিয়ারদের আরো অবদান রাখতে হবে -বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

ঘর থেকে গায়েব ফোন জঙ্গলে, গ্যালারিজুড়ে বাঁদরের সেলফি

বাঁদরের সেলফি

২০ বছর বয়সী জ্যাকরিদজ রডজি মালয়েশিয়ার বাসিন্দা। রাতে ঘুমানোর আগে মাথার পাশে ফোনটি রেখেছিলেন। সকালে লাপাতা।

রডজির কথায়, ‘চুরি-ডাকাতির কোনো লক্ষণই ছিল না। ঘরে সব রয়েছে, শুধু ফোনটা নেই। মনে হচ্ছে যেন কোনো জাদুবলে গায়েব হয়ে গিয়েছে আমার মোবাইল।’

নিজের ফোন ট্র্যাক করেন রডজি দেখে তাঁর বাড়ির পেছনের জঙ্গলে ফোনের লোকেশন আছে। সে অনুযায়ী গিয়ে ফোন খুঁজেও পান মোবাইল। কিন্তু কিভাবে ফোনটা জঙ্গলে পৌঁছল, কিছুতেই সেটা বুঝতে পারছিলেন না রডজি।

সেই সময় মজা করে রডজির এক কাকা বলেন, ‘ফোন খুঁজে দেখ, হয়তো চোরের ছবি পেয়ে যাবি।’ কাকার কথায় হেসে ফেললেও একবার ফোনে গ্যালারি চেক করতে যান রডজি। তাতেই চোখ ছানাবড়া হয় তার। হাসবেন, না কাঁদবেন, বুঝে পান না রডজি। তিনি দেখেন, তাঁর ফোনের গ্যালারিজুড়ে আছে একদল বাঁদরের নানা অঙ্গভঙ্গির ছবি। রয়েছে বাঁদরদের বিভিন্ন পোজের সেলফি ও ভিডিও। তাজ্জব হয়ে যান রডজি ও তাঁর কাকা। তাঁদের ধারণা, জঙ্গলের মধ্যে যে গাছের নিচ থেকে মোবাইল ফোনটি উদ্ধার করা হয়েছে, সেখানকারই বাসিন্দা এই বাঁদরের দল।

রডজির কথায়, ‘আমার ধারণা, রাতে জানালা খোলা পেয়ে কোনো বাঁদর আমার ঘরে ঢুকে পড়ে। তারপর তুলে নিয়ে গেছে মোবাইল ফোনটি। শখ মিটিয়ে ছবি তুলেছে। ভিডিওতে দেখলাম, একজন আমার ফোনটা খেয়েও নিতে চেয়েছে দারুণ খাওয়ার জিনিস ভেবে। হয়তো ফটো সেশনের সময় ওদের হাত থেকেই মোবাইল ফোনটা পড়ে যায়। সেটাই আমি কুড়িয়ে পেয়েছি।’

টুইটারে বাঁদরের দলের এসব কীর্তিকলাপ শেয়ার করেছেন মালয়েশিয়ার ওই ছাত্র। তিনি জানিয়েছেন, এমন জিনিস শতকে এক-আধবার দেখা যায়। চোখে না দেখে শুধু শুনলে মনে হবে আজগুবি গল্প, যেমনটা প্রথমে রডজির পরিবারের সঙ্গে হয়েছিল। কেউ নিজের চোখে না দেখলে এমনটা যে হয়, বিশ্বাসই করতে পারবেন না।

SHARE THIS:

শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

দ্যা নিউজ এর বিশেষ প্রকাশনা

পুরাতন সংবাদ পডুন

SatSunMonTueWedThuFri
   1234
19202122232425
2627282930  
       
   1234
       
282930    
       
      1
       
     12
       
2930     
       
    123
25262728   
       
      1
9101112131415
30      
  12345
6789101112
272829    
       
   1234
2627282930  
       
1234567
891011121314
22232425262728
293031    
       
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৪-২০২০ || এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি
IT & Technical Support: BiswaJit