বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ০৩:১৮ অপরাহ্ন

সর্বশেষ খবর :
বেনাপোলে “দৈনিক আলোকিত সকাল” পত্রিকার দ্বিতীয় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত বিজিবি’র হাতে ভারতীয় ইয়াবা ট্যাবলেটসহ এক পাচারকারী আটক শিশু নির্যাতন বন্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে -লায়ন মোঃ গনি মিয়া বাবুল ভোলায় আখের ফলন ভাল, দাম কম পূজোর সময় নৃত্যকরতে বাধা দেওয়ায় হিন্দু যুবক খুন সর্ষের মধ্যেই ভুত, পাঁচ বছরের তুহিনের খুনি স্বয়ং তার বাবা ও চাচা শেখ হাসিনাকে মানব প্রেমিক হিসেবে তুলে ধরা হয়েছে” হাসিনা ডটারস টেল” মুভিতে অবৈধ উপায়ে টাকা আয় করেন ইমরান দাবী প্রাক্তন স্ত্রী রেহামের ভোলার নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মাছ ধরায় ১৩ জেলের জেল-জড়িমানা জলে-স্থলে-অন্তরীক্ষে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের বিজয়কেতন -তথ্যমন্ত্রী

২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা সংক্রান্ত প্রস্তুতিমূলক প্রেস ব্রিফিং

এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা সংক্রান্ত প্রস্তুতিমূলক প্রেস ব্রিফিং

আগামী ১১ অক্টোবর ২০১৯ খ্রিঃ তারিখে দেশব্যাপী একযোগে ১৯টি কেন্দ্রের ৩২টি ভেন্যুতে এমবিবিএস কোর্সের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হতে
যাচ্ছে। ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে ইতোমধ্যে সকল প্রস্তুতি গ্রহণ চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। এ বছর সরকারি (৪,০৬৮আসন) ও বেসরকারি (৬,৩৩৬আসন) মেডিকেল কলেজে ১০,৪০৪টি আসনের বিপরীতে মোট ৭২,৯২৮ জন ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য আবেদন করেছে যা গত বছরের তুলনায় ৭,০০৯ জন বেশি।

২। একটি সুষ্ঠু ও অবাধ প্রতিযোগিতামূলক ভর্তি পরীক্ষা সুচারুভাবে সম্পাদনের জন্য সরকার বদ্ধপরিকর। এ লক্ষ্যে সাইবার ক্রাইম প্রতিরোধ, পরীক্ষার দিন সড়ক-মহাসড়কের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ এবং শিক্ষার্থী ও অবিভাবকদের নির্বিঘ্নে চলাচল; নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ, কোচিং সেন্টার বন্ধকরণ, ফটোকপি মেশিন বন্ধ রাখা, পরীক্ষা কেন্দ্রের আইন শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণ, প্রশ্ন ও উত্তরপত্রের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ, কুচক্রীমহলের
অপরাধ তৎপরতা বন্ধ উল্লেখযোগ্য। এসকল চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় কার্যকর সকল পদক্ষেপ ইতোমধ্যে গ্রহণ করা হয়েছে।

৩। ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পাদনের জন্য ইতোমধ্যে মন্ত্রণালয় সংশ্লিষ্ট অংশীজনদের নিয়ে ০৪টি সভা আয়োজন করেছে। সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সংশ্লিষ্টদের মধ্যে দায়িত্বাবলী বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও কেন্দ্র ও ভেন্যুর জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয় ; জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগের জন্য জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়; সাইবার ক্রাইম প্রতিরোধ এবং পরীক্ষার আগের দিন রাত ১০.০০টা হতে পরীক্ষার দিন সকাল ১১.০০ টা পর্যন্ত ইন্টারনেটের গতি সীমিত রাখার তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ ও বিটিআরসি; সড়কের নিরাপত্তা নিশ্চিত এবং নির্বিঘ্নে চলাচলের জন্য সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ; নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য বিদ্যুৎ বিভাগের সাথে বিশেষ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

৪। এছাড়াও ভর্তি পরীক্ষার সার্বিক নিরাপত্তা প্রদান, সাইবার ক্রাইম প্রতিরোধ, কোচিং সেন্টার বন্ধকরণ, ফটোকপি মেশিন বন্ধ রাখা, পরীক্ষা
কেন্দ্রের আইন শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণ, প্রশ্ন ও উত্তরপত্রের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ, গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি, কুচক্রী মহলের অপরাধ তৎপরতা বন্ধে জননিরাপত্তা বিভাগ, বাংলাদেশ পুলিশ, বাংলাদেশ র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব), ডিজিএফআই ও এনএসআইসহ সংশ্লিষ্টদের সমন্বয়ে
বিশেষ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

৫। এবছর প্রশ্নপত্র প্রণয়নে প্রযুক্তিগত পরিবর্তন আনা হয়েছে। প্রশ্নপত্র প্রেরণ্যের জন্য ট্রাংকের সাথে সংযুক্ত ট্র্যাকিং ডিভাইসসমূহ ইতোমধ্যে
প্রস্তুত করা হয়েছে। আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী এবং গোয়েন্দা সংস্থা তাদের গোয়েন্দা তৎপরতা ও নজরদারি জোড়দার করেছে। ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার মাধ্যমে শিক্ষার্থী ও অবিভাবকদেরকে কোন প্রকার গুজবে কান না দেওয়ার জন্য সতর্ক বার্তা প্রচারের জন্য মন্ত্রণালয় প্রস্তুত রয়েছে।

৬। দূর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার সতর্কবার্তা থাকলে পরীক্ষার্থীদেরকে আগে- ভাগেই পরীক্ষার হলে পৌছানোর জন্য ক্ষুদে বার্তা/ বিজ্ঞপ্তি/ টিভি স্ক্রলের মাধ্যমে অবহিত করার জন্য স্বাস্থ্য অধিদপ্তর প্রস্তুত রয়েছে।

৭। পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদেরকে পরীক্ষার দিন ৯.০০ ঘটিকার মধ্যে আবশ্যিকভাবে পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশের জন্য এবং পরীক্ষা সংক্রান্ত বিভিন্ন নির্দেশনা প্রদানের লক্ষ্যে সরকারি/ বেসরকারি টেলিভিশন, দৈনিক পত্রিকা এবং মোবাইলে ক্ষুদে বার্তা (SMS) প্রদানের মাধ্যমে নির্দেশন প্রদান করা হবে।

৮। পরীক্ষা সংশ্লিষ্ট সকল কর্মকর্তা/ হল পরিদর্শক/ কর্মচারীগণকে সকাল ৮.০০ ঘটিকার পূর্বেই পরীক্ষা কেন্দ্রে আবশ্যিকভাবে প্রবেশের নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে।

৯। ঢাকা মহানগরের ০৫টি কেন্দ্রের ১১টি ভেন্যুতে ৩৫,৯৮৫ জন পরীক্ষার্থী এবং ঢাকা বাহিরে ১৫টি জেলায় ৩৬,৯৪৩ জন পরীক্ষার্থী ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে। ইতোমধ্যে সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসকদের সাথে কেন্দ্র সচিবগণ সমন্বয় সভা সম্পন্ন করেছেন। মন্ত্রণালয়ের সাথে জেলা প্রশাকগণের নিবিঢ় যোগাযোগ অব্যাহত রয়েছে।

১০। ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পাদনের লক্ষ্যে কেন্দ্রসমূহ তদারকির জন্য মন্ত্রণালয় থেকে ১০৭ জন কর্মকর্তার সমন্বয়ে কেন্দ্র ও ভেন্যুভিত্তিক টিম গঠন করে তাঁদের দায়িত্ব বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে।

১১। ভর্তি পরীক্ষার সাথে সংশ্লিষ্ট শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী, পরিদর্শনকারী টিমসহ ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা কেন্দ্রে মোবাইল ফোন, ইলেকট্রনিক ডিভাইস, ক্যালকুলেটর, ঘড়ি, হেডফোন, ব্লু-টুথসহ অন্যান্য ইলেকট্রনিক ডিভাইস পরীক্ষা কেন্দ্রে আনয়ন, বহন ও ব্যবহার নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

১২। পরীক্ষার সার্বিক কার্যক্রম তদারকি, নির্দেশনা ও পরামর্শ প্রদানের জন্য ভর্তি পরীক্ষা সংক্রান্ত গঠিত Oversight Committee সময়ে সময়ে নানাভাবে পরামর্শ প্রদানের মাধ্যমে একটি সুষ্ঠু ভর্তি পরীক্ষা আয়োজনে সহযোগিতা অব্যাহত রেখেছে। মন্ত্রণালয় ছাড়াও স্বাস্থ্য অধিদপ্তর Oversight Committe-এর সাথে প্রয়োজনীয় সভা অনুষ্ঠানের মাধ্যমে পারস্পরিক সমন্বয় কার্যক্রম ত্বরান্বিত করছে।

শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

দি নিউজ এর বিশেষ প্রকাশনা

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন

All rights reserved © -2019
IT & Technical Support: BiswaJit