শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ১২:৫৭ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ খবর :
আফগানিস্তানে মসজিদে বোমা হামলায় ৬২ জন নিহত ‘কঠিন চীবর দান’ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর বাণী ‘কঠিন চীবর দান’ উপলক্ষে রাষ্ট্রপতির বাণী Foreign Minister calls upon German businesses to invest in Bangladesh প্রেমিকার সাথে ঘনিষ্ঠ মুহূর্তের ছবি হোয়াটসঅ্যাপে ভাইরাল, মানসন্মান নিয়ে টানাটানি বাবার বঙ্গবন্ধু ফিল্ম সিটিকে পর্যায়ক্রমে বিশ্বমানের ফিল্ম সিটিতে রূপান্তর করতে কাজ করছি শিশু নির্যাতন কিংবা হত্যাকারীদের কঠোর শাস্তি পেতে হবে -প্রধানমন্ত্রী “আমি মায়ের কাছে যাব” এটিই ছিল মৃত্যুর পূর্বে শেখ রাসেলের শেষ কথা -মুক্তিযোদ্ধা মঞ্জু ই-সিগারেট নিষিদ্ধ হওয়া প্রয়োজন -তথ্যমন্ত্রী এ সরকারের আমলে সকল ধর্ম-বর্ণের মানুষ নিরাপদ -গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী

কাশ্মীরে আক্রমণ চালাতে বালাকোট জঙ্গিঘাঁটিতে ট্রেনিং শুরু

কাশ্মীরে আক্রমণ চালাতে বালাকোট জঙ্গিঘাঁটিতে ট্রেনিং শুরু

বালাকোটে পাক জঙ্গিদের ঘাঁটি গুঁড়িয় দিয়েছিল মাত্র সাত মাস আগেই ভারতীয় বায়ুসেনা। এবার কাশ্মীরে আক্রমণ চালাতে ফের সেই জঙ্গিঘাঁটিতে নতুন করে শুরু হল ট্রেনিং পর্ব। সূত্রের খবর, অন্তত ৪০ জন জঙ্গিকে ট্রেনিং দেওয়ার কাজ চলছে সেই বালাকোট। তবে সবার দৃষ্টি এড়াতে বেনামেই চলছে কাজকর্ম।

বালাকোটে এয়ারস্ট্রাইক করে জঈশ জঙ্গিদের ঘাঁটিতে আঘাত করেছিল বায়ুসেনা। সূত্রের খবর সেই জঙ্গি ঘাঁটি নতুন করে জেগে উঠেছে। পাক গুপ্তচর সংস্থা আইএসআইয়ের মদতেই সেই ঘাঁটিতে নতুন করে সক্রিয় হয়েছে জঙ্গিরা।

বালাকোটে প্রায় জঙ্গিদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে কাশ্মীরে হামলা চালানোর জন্য। জম্মু কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা বিলোপের পরেই পাকিস্তান ভারতের বিরুদ্ধে জঙ্গি মদত শুরু করে। বালাকোটের ঘাঁটি সক্রিয় করার নেপথ্যেও সেই মদতই কাজ করছে।

পুলওয়ামা হামলার পর বালাকোটে জইশের জঙ্গি ঘাঁটি উড়িয়ে দিয়েছিল বায়ুসেনা। পাক অধিকৃত কাশ্মীরের বায়ুসেনার যুদ্ধবিমান প্রায় ১০০টি বোমা ফেলে নিশ্চিহ্ন করে দিয়েছিল জইশের জঙ্গি ঘাঁটি। এই নিয়ে তোলপাড় হয়েছিল গোটা বিশ্ব। পাকিস্তান প্রথম থেকেই সেই হামলায় ক্ষয়ক্ষতির কথা অস্বীকার করে আসছে।

কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা বিলোপের পর থেকেই প্রকাশ্যে ভারতে জঙ্গি হামলা চালানোর মদত দিয়ে চলেছে পাকিস্তান। পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান প্রকাশ্যে হুমকি দিয়েছিলেন পুলওয়ামার মতো জঙ্গি হামলা হতে পারে ভারতে।

পাকিস্তানের এবারের স্বাধীনতা দিবসও এবার উৎসর্গ করা হয়েছিল কাশ্মীরিদের জন্য। প্রধানমন্ত্রী সহ পাকিস্তানের নেতারা জায়গায় জায়গায় গিয়ে গলা ফাটিয়েছেন ভারতের বিরুদ্ধে। এমনকি যুদ্ধের হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন ইমরান খান। ভারতকে আক্রমণ করার সঠিক জায়গা হিসেবে অধিকৃত কাশ্মীরকে বেছে নিয়েছিলেন তিনি। সেখানেই ছুটে গিয়েছিলেন স্বাধীনতা দিবস উদযাপনে।

মুজফফরাবাদের অ্যাসেম্বলিতে বক্তব্য রাখতে গিয়ে ইমরান খান বলেন, ‘গত ফেব্রুয়ারির থেকে ভয়ঙ্কর অ্যাকশনের জন্য তৈরি হচ্ছে ভারত।’ তিনি বলেন, ‘কাশ্মীরে যা চলছে, তার থেকে বিশ্বের নজর ঘোরাতে ভারত কোনও মারাত্মক প্ল্যান করছে।’ তিনি আরও উল্লেখ করেন যে, পাকিস্তানের সেনাবাহিনী ভারতের পরিকল্পনা সম্পর্কে ভালোভাবেই অবগত।’ ভারত অধিকৃত কাশ্মীরে অভিযান চালাবে বলেই অনুমান তাঁর। আর এভাবেই বালাকোটের কথা স্বীকার করে ফেলেন পাক প্রধানমন্ত্রী।

শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

দি নিউজ এর বিশেষ প্রকাশনা

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন

All rights reserved © -2019
IT & Technical Support: BiswaJit