শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৩:০২ অপরাহ্ন

সর্বশেষ খবর :
খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে মাগুরায় যুবদলের মানববন্ধন রাজস্ব ঘাটতির শীর্ষে বেনাপোল কাস্টমস ওয়ার্ল্ড হিন্দু ফেডারেশন ও বাগীশিক এর উদ্যোগে ঝিগাতলায় গীতা শিক্ষা নিকেতন উদ্বোধন ভারতে পাচার হওয়া ১০ নারীকে ট্রাভেল পারমিটে বেনাপোলে হস্তান্তর মৌলভীবাজার জেলা হিন্দু ছাত্র মহাজোটের ১০১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন আশাশুনিতে দুর্গোৎসব উপলক্ষে মতবিনিময় সভা শিশু-কিশোরদেরকে আগামী দিনের সৈনিক হিসেবে গড়ে তুলতে হবে -মোস্তাফা জব্বার মুক্তিযুদ্ধের ন্যায় গেরিলা যুদ্ধ করে ষড়যন্ত্রকারীদের নিশ্চিহ্ন করতে হবে -ধর্ম প্রতিমন্ত্রী চিলমারীর মাদক সম্রাট খোকা গ্রেফতার নদীকে নিয়ে কিছু করার এখন সুবর্ণ সুযোগ -নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী

জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন

জাতির পিতাকে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৬টায় ধানমণ্ডির ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে দুই নেতা কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন। এ সময় বিউগলে করুণ সুর ভেসে আসে। সশস্ত্র বাহিনীর একটি চৌকস দল গার্ড অব অনার দেয়।

পরে কোরআন তেলাওয়াত এবং বঙ্গবন্ধুসহ ১৫ আগস্টের শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। মোনাজাতে দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনা করা হয়।

ঞ্জাতির পিতাকে আওয়ামীলীগের শ্রদ্ধা নিবেদনপরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগ সভাপতি হিসেবে দলের জ্যেষ্ঠ নেতাদের নিয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পন করেন। রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা জানানোর পর আওয়ামী লীগের সর্বস্তরের নেতাকর্মীসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনসহ সর্বস্তরের মানুষ শ্রদ্ধা জানায়।

এরপর প্রধানমন্ত্রী চলে যান রাজধানীর বনানীর কবরস্থানে। সেখানে সকাল সাড়ে ৭টায় ১৫ আগস্টের শহীদ পরিবারের সদস্যদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান শেখ হাসিনা।

আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে দিবসটির শুরুতে সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে বঙ্গবন্ধু ভবন ও দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়সহ সংগঠনের সবস্তরের কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণ ও কালো পতাকা উত্তোলন করা হয়। সকাল সাড়ে ৬টার কিছু আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে পৌঁছান। তার কিছু পরেই সেখানে আসেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ সকাল ১০টায় গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা জানানো হবে। বাদ জোহর দেশের সব মসজিদে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে।

দিবসটি উপলক্ষে সরকারি, আধা সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ভবন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও বেসরকারি ভবনগুলোয় জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা হচ্ছে। বিদেশে বাংলাদেশ মিশনগুলোয়ও জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা এবং আলোচনা সভার আয়োজন করা হবে। এ ছাড়া দেশের সব সরকারি হাসপাতালে দিবসটি উপলক্ষে বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা দেওয়া হবে।

১৯৭৫ সালের শোকাবহ এই কালো দিবসে সেনাবাহিনীর কিছুসংখ্যক বিপথগামী সদস্য ধানমণ্ডির বাসভবনে বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করে।

ঘাতকরা শুধু বঙ্গবন্ধুকেই হত্যা করেনি, তাদের হাতে একে একে প্রাণ হারিয়েছেন বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিণী বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব, বঙ্গবন্ধুর সন্তান শেখ কামাল, শেখ জামাল ও শিশু শেখ রাসেল, পুত্রবধূ সুলতানা কামাল ও রোজি জামাল।

পৃথিবীর এই জঘন্যতম হত্যাকাণ্ড থেকে বাঁচতে পারেননি বঙ্গবন্ধুর অনুজ শেখ নাসের, ভগ্নিপতি আবদুর রব সেরনিয়াবাত, তাঁর ছেলে আরিফ, মেয়ে বেবি ও সুকান্ত, বঙ্গবন্ধুর ভাগ্নে যুবনেতা ও সাংবাদিক, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক শেখ ফজলুল হক মনি, তাঁর অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী আরজু মনি, আবদুল নাঈম খান রিন্টু ও কর্নেল জামিলসহ পরিবারের ১৬ জন সদস্য ও ঘনিষ্ঠজন। এ সময় বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যা শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা বিদেশে থাকায় প্রাণে রক্ষা পান।

শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

দি নিউজ এর বিশেষ প্রকাশনা

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন

All rights reserved © -2019
IT & Technical Support: BiswaJit