বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০১:১০ অপরাহ্ন

সর্বশেষ খবর :
সালথায় দুই ইয়াবা ব্যবসায়ীকে আটক করেছে পুলিশ দীর্ঘ ২৮ বছর পর সরাসরি ভোটে নির্বাচিত হলো ছাত্রদলের নতুন নেতৃত্ব: সভাপতি খোকন আর সম্পাদক শ্যামল মোটর সাইকেলে তুলে নিয়ে শ্রমিককে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন বাজারে আসছে 6000mAh ব্যাটারির স্যামসং ফোন, দাম সাধ্যের মধ্যেই প্রাথমিক শিক্ষার পড়ুয়াদের ৬৫ শতাংশ বাংলাই ঠিকমতো জানে না মেহেরপুরে নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন ৩ নারীসহ আল্লাহর দলের ৮ সদস্য আটক নবীগঞ্জে বিপুল পরিমাণ অতিথি পাখিসহ ৫ পাখি শিকারী র‌্যাবের খাঁচায় বন্দি, ভ্রাম্যমান আদালতে ৪ মাসের জেল ‘Howdy, Modi’ meeting in Houston Trump & Modi Joint Rally? নবীগঞ্জ উপজেলা সৎসঙ্গের উদ্যোগে ঠাকুর অনুকুল চন্দ্রের ১৩২ তম শুভ আর্বিভাব দিবস পালন ভোলায় ৫০বছরের পুরনো কবরে অক্ষত লাশ!

গৃহপালিত হিন্দু ও বাংলাদেশ

ভবানী কাশ্যপ, সাউথ আফ্রিকা

বাংলাদেশের ১৯৭১ সালে হিন্দু জনসংখ্যা ২৮% , ৭ কোটি সম্পূর্ণ জনসংখ্যা হিসাব করলে ১.৯৬ কোটি হিন্দু বাংলাদেশে ২০১৯ সালে আনুমানিক জনসংখ্যা ১৮ কোটি জনসংখ্যার বৃদ্ধি হার বিবেচনায়, ১৮ কোটি র মধ্যে হিন্দু হওয়া উচিত ৫ কোটি।

জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে হিন্দুদের সক্রিয়তা বিবেচনায় ৫০ লাখ বাদ দিলে ৪.৫ কোটি হওয়ার কথা। কিন্তু আজ জনসংখ্যা ২ কোটি ( আনুমানিক) কেন? এর উত্তর আন অফিসিয়ালি আমরা সবাই জানি। অফিসিয়ালি রাষ্ট্র ও আমরা সবার বাধ্য বাধকতা আছে এই ইস্যু চেপে চলার।

নাগরিক হিসেবে রাষ্ট্রধর্ম অফিসিয়ালি ঘোষিত হবার পর হিন্দু সেকেন্ড ক্লাস নাগরিক।  এটা রাষ্ট্র ও সকল নাগরিকের জন্য অফিসিয়াল সত্য

সুনাগরিক ও একজন পার্টিকর্মীর দায়িত্ব পালন না করে বাংলাদেশের এলিট ও রাজনীতিতে সক্রিয়  হিন্দু লজ্জাজনক ভাবে গৃহপালিত আচরণের কারণে, আজকে প্রিয়া সাহা আমেরিকায়।

এলিট  ও রাজনিতি সক্রিয় হিন্দুকে আওয়ামীলীগ ও বিএনপি দুইদল দাঁড়ানোর ও বসার জায়গা করে দিয়েছে। আপনারা চরম ভাবে বেইমানী করেছেন পার্টি, সম্প্রদায় ও রাষ্ট্রের সাথে।

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ হিন্দুকে ফিক্সড ভোট ব্যাংক হিসেবে পাওয়ার পর কতটা মূল্যায়ন করেছে তারচে বেশি যৌক্তিক প্রশ্ন এইমুহুর্তে, আওয়ামীলীগ বিএনপি রাজাকার হিন্দুদের কিভাবে দূরে সরাবে। যে হিন্দু গুলো তার নিজের সম্প্রদায়ের নাহ, তারা কারো আপন হতে পারেনা।  

বাংলাদেশে হিন্দুরা রাজনৈতিক ও সামাজিক অবস্থানে যাবার  রাষ্ট্রীয় সুযোগ পেয়েছে আজকের প্রিয়া সাহা ইস্যুতে কিছু প্রশ্ন, হিন্দুদের নিজেদের নিজেরা করার আছে

রাজনৈতিক সংশ্লিষ্টতার পুরস্কার হিসেবে, রাজনৈতিক অবস্থান পেয়ে, হিন্দুর কল্যাণে নিজেদের সংযুক্ত রেখেছে হিন্দু? হিন্দুর সামাজিক রাজনৈতিক ঘটনায় নিজ নিজ দল নেতার সাথে কথা বলেছিলেন, নাকি গৃহপালিত কর্মীর মত আচরণ করে এসেছেন

প্রতিবছর প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রপতির সাথে ধর্মীয় উৎসব কেন্দ্রিক আলাপের সুযোগে, হিন্দুর সামাজিক প্রকৃত অবস্থা তুলে ধরেছিলেন, নাকি তেল বাজি করেছিলেন?

রাষ্ট্র ও হিন্দু সম্প্রদায়ের মধ্যে আজকের অবিশ্বস্ততার জন্য, এলিট হিন্দুকে আমরা রাষ্ট্রদ্রোহি বলা উচিত নয়কি ?

 প্রিয়া সাহার ইস্যুর পর একটা শ্রেণীর হিন্দুর, প্রিয়া সাহাকে ভুল প্রমান করার, রাষ্ট্রদোহী প্রমান করার, তাগিদ দেখলাম। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আজকের হস্তক্ষেপ সাধারন হিন্দু ও তারুণ্যর প্রতিবাদ এর কারণে

লক্ষণীয় হল, এলিট হিন্দু এখানে নিরব ও সুবিধাবাদী আচরণ করেছে। নাটকের জায়গা নিশ্চিত খুঁজছে, কোথাই কোন পজিশনে গিয়ে সুবিধা নিবে।  

হিন্দুদের আচরণগত পরিবর্তন দরকার। গৃহপালিত আচরণ ছেড়ে দায়িত্বশীল সুনাগরিক আচরণ দরকার। একটা বিশাল সুবিধাবাদী হিন্দু গোষ্ঠীর কারণে সব হিন্দু কাঠগড়ায়বাংলাদেশে হিন্দু নির্যাতন হয়।

২০১২ থেকে হওয়া হিন্দু নির্যাতন গুলোর সমাধানে এলিট হিন্দু দায়িত্বহীন আচরণ করেছে। বার বার মানব বন্ধন করার পর বাংলাদেশের কোন সরকার হিন্দুদের পাত্তা দেওয়ার প্রয়োজন মনে করেনি, কারন দালাল হিন্দুরাই  হিন্দুদের ভুল পথে পরিচালিত করেছে।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আজ লন্ডন থেকে প্রিয়া সাহার ইস্যুতে হস্তক্ষেপ ও নির্দেশনা দিলেন, ২০১২ থেকে হাজার খানেক মানব্বন্ধন প্রতিবাদ, উনার নজরে আসেনি? এটা সম্ভব ?

 অধিকার এর আওয়াজ বিশ্বব্যাপি কখনো রুদ্ধ করা যায়নি। ৪৭ থেকে ৭১ আন্দোলনের ইতিহাসের বাঙালি। ২০১৯ পর্যন্ত সকল রাজনৈতিক দলের, রাজনৈতিক পদক্ষেপে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখা বাঙালি হিন্দুদের মূল্যায়নের নতুন প্রয়োজনীয়তা অনুভব করতে হবে সব দলকে।

গ্লোবালাইজেশন এর সুফল হিন্দু ও নিবে।  গৃহপালিত হিন্দু নয়, দায়িত্বশীল হিন্দু বাংলাদেশের সন্মান এ ভুমিকা রাখবে। ইউনিয়ন পরিষদ থেকে জাতিসংঘ পর্যন্ত একজন বিশ্ব নাগরিকের তার অভাব অভিযোগ নিয়ে দাঁড়ানো, আন্তর্জাতিক ও রাষ্ট্রীয় আইনে অনুমোদিত।

পিতার সন্তান, চাচার কাছে বিচার চাইলে পিতা পুত্র উভয়ের দায়িত্ব থাকে।

বাংলাদেশি হিন্দুর প্রিয়া সাহা’র মত বিশ্বমঞ্চে বিচারের জন্য জেতে না হউক, এটা প্রত্যাশা রইল।

বাংলাদেশি হিন্দুর শপথ হউক, গৃহপালিত নাগরিক নয়- সুনাগরিক হওয়ার।

ভবানী কাশ্যপ; সাউথ আফ্রিকা

শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

দি নিউজ এর বিশেষ প্রকাশনা

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন

All rights reserved © -2019
IT & Technical Support: BiswaJit